Select Page

ভুবন মাঝির কথা বলি

ভুবন মাঝির কথা বলি
আচ্ছা সিনেমাটির নাম কেন ভুবন মাঝি হলো?
মুক্তির ১০দিন পরে আজ দেখে এলাম পরিচালক ফাখরুল আরেফিন খানের মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে সিনেমা ভুবন মাঝি। এমনিতেই হাতেগোনা কয়েকটি সিনেমা বাদ দিয়ে মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে আমাদের তেমন সিনেমা নেই। তার উপর যা আছে সেগুলিতে জোর জবরদস্তি করে যুদ্ধ দেখাতে গিয়ে হাস্যকর বানিয়ে ফেলে। সেদিক থেকে ভুবন মাঝি বেশ ভালভাবেই পাশ করে ফেলেছে।

এই সিনেমার গানে আহা কি জাদু! যত শুনি তার চেয়েও বেশি শুনতে ইচ্ছে করে প্রিয় কালিকা প্রসাদের আমি তোমারই নাম গাই গানটি। এত মধুর গান। পরমব্রতের পড়শি গানটিও সুন্দর। সঙ্গীত পরিচালক তোমায় শ্রদ্ধা ভরে স্মরণ করি।
সিনেমাটি মূলত মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক। মোটামুটি এমন চিন্তা নিয়েই তা দেখতে গিয়েছিলাম। কিন্তু গিয়ে একেবারে অবাক হলাম যে একই সাথে কত শক্তিশালী একটা বিষয় নিয়ে পরিচালক মুভ করেছেন। এমন সাহসীকতার জন্যে তাকে সাধুবাদ জানাই।
এর গল্প মূলত ২০১৩ সালের। যেখানে একজন লালন ভক্ত সাধু মারা যান। তার সৎকারের সময় এলাকার কথিত মুসল্লিরা জানাজা পড়তে অপারগতা জানায় কারণ সাধু ঈশ্বর প্রদত্ত ধর্মকর্মের চেয়েও সাধনা নিয়েই সবসময় পড়ে থাকতেন। এদিকে সাধু মারা যাবার আগে তার নিজের জীবন কাহিনী সব বলে যান এক সাংবাদিকের কাছে। সেই গল্পে থাকে তার মুক্তিযুদ্ধে আসার কাহিনী। মুক্তিযুদ্ধের সময় নিজের সাথে ঘটে যাওয়া করুণ আর সাহসিকতার কাহিনী। সেই গল্পে থাকে তার বন্ধুর কাহিনী। তার পরিবারের কাহিনী। প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সহযোগিতার কাহিনী। আর তার প্রেয়সীর কাহিনী।
ভুবন মাঝিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করা কলকাতার শিল্পী পরমব্রত বেশ ভাল অভিনয় করেছেন। ভাল লেগেছে সিনেমাতে তিনি বাংলাদশীদের মতই বাংলা উচ্চারণ করেছেন। আর অপর্না, কি অপরূপ রূপবতী আমাদের অপর্না ঘোষ। তার অভিনয়ের ভীষণ ভক্ত আমি। তরুণদের মাঝে সম্ভবত সবচেয়ে প্রতিভাবতী অভিনেত্রী তিনি। বন্ধু মিজান চরিত্রে মাজনুন মিজান কি অনবদ্য ছিলেন। এই মানুষটি সত্যিই একজন গুণী অভিনেতা। তবে সবচেয়ে অবাক লেগেছে সঙ্গীত শিল্পী ওয়াকিলকে দেখে। এত কঠিন একটা চরিত্রে তিনি কি চমৎকার ভাবে অভিনয় করেছেন। আসলে তিনি যে অভিনয় জানেন সেটিই আমার জানা ছিলনা। তার সহশিল্পী নওশাবাকেও ভাল লেগেছে।
ভুবন মাঝির দৃশ্য ধারণ দেখে আমি মুগ্ধ। গানের সময় ব্রীজের দৃশ্য, মানুষের দেশ ছেড়ে চলে যাওয়ার দৃশ্য, পাক বাহিনীর অন্ধকারে পোড়ানোর দৃশ্য, রাজাকারের হাতে অপর্নার সম্মান হরণের সময় ছায়ার দৃশ্য এসব চমৎকার।
ভুবন মাঝি চলচ্চিত্রের তিনটি গল্পকে এক সুতোয় নিয়ে আসা দেখে মুগ্ধ হয়েছি। কিন্তু একেবারে শেষে এসে যেন গল্পটি খেই হারিয়ে ফেলেছে। যেন কারোর কথা রাখতে গিয়ে পরিচালক গল্পটিতে গণ আন্দোলন দেখিয়েছেন। এটি ভাল লাগেনি আমার।
সবশেষে অনেক দিন পরে বাংলা চলচ্চিত্র একটি চমৎকার মুক্তিযুদ্ধের সিনেমা পেলো। আচ্ছা ভুবন মাঝি আসলে কে ছিল? প্রিয়তমা হারানো সাধু? 🙂


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

স্পটলাইট

Movies to watch in 2018
Coming Soon

Shares