Select Page

লিখেছেন: Jubaead Dweep

অশ্লীল যুগ : এড়িয়ে যাওয়া যাবে, অস্বীকার করা যাবে না

এক. চলচ্চিত্র নির্মাণ শুরু হয় ১৮৯০ এর দিকে। ওই সময়ে আমাদের ভূখণ্ডে চলচ্চিত্র নির্মিত না হলেও বেশ কয়েকটা প্রদর্শনী হয়েছিল। এই অঞ্চলে ১৯০০-এর দশকে নির্বাক এবং ১৯৫০-এর দশকে সবাক চলচ্চিত্র নির্মাণ ও প্রদর্শন শুরু হয়। ৪০ ও ৫০ এর দশকে তৎকালীন ব্রিটিশ ইন্ডিয়া ও পূর্ব পাকিস্তানে নামে-ছদ্মনামে অনেকে চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন তবে সেগুলো ঐতিহাসিকভাবে আলোচ্য নয়। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের ইতিহাস শুরু ১৯৫৬ সালে, মুখ ও মুখোশ ছবিটির মাধ্যমে। পরিচালনা করেন আবদুল জব্বার খান। ছবিতে তিনি নিজেই প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন। এটাই পূর্ব পাকিস্তানের প্রথম সবাক বাংলা পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। সেসময় এখানে কিছু উর্দু চলচ্চিত্রও নির্মাণ হয়েছিল। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের ইতিহাসে মুখ ও...

বিস্তারিত

প্রসঙ্গঃ শঙ্খচিল

এই যে গৌতম ঘোষ শঙ্খচিল নামের একটা সিনেমা বানাল এবং সেখানে অখন্ড ভারত প্রতিষ্ঠার সেন্টিমেন্ট তৈরী করল এবং দেখা গেল দেশের অধিকাংশই বিষয়টা মেনে নিতে পারেনি। একটা সময় ছিল আমরা গৌতম ঘোষকে সম্মান করতাম। তার সিনেমা মেকিঙয়ের প্রশংসা আমি এখনও করি। কিন্তু শঙ্খচিল নির্মান এই গুনি ব্যক্তিটি ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার পেলেও বাংলাদেশের মানুষের কাছে মারা খেয়ে গেল। ছুডো একটা পোর্টাল থেকে শুরু করে জাতীয় দৈনিক ঘোষকে নিয়ম করে ছয় ইঞ্চি আট ইঞ্চি করে ভরতেছে। আমার ফ্রেন্ডলিষ্ট এত ব্রড এত ওয়াইড অথচ একটাও পজেটিভ রিভিউ আমি পেলাম না। গালাগালি আর নেগেটিভ রিভিউয়ের ছড়াছড়ি। কেউ কেউ আবেগি কন্ঠে বলতেছে ‘গৌতম...

বিস্তারিত

আমাদের গল্পের সিনেমা যেরকম হতে পারে

সিনেমা নিয়ে পড়াশুনা করতে গেলে সব থেকে যে বিষয়টা বেশী আসে তা হল সাবজেক্ট। সিনেমার বিষয়বস্তুকে প্রাধন্য দেবার জন্য প্রচুর চাপ দেয়া হয়। অধিকাংশ বই ইংরেজি, ফলে বিভিন্ন দেশের সিনেমার বিষয়বস্তুতেও থাকে মার্কিন, ইংরেজ প্রভাব। যেরকম সুপার হিরো মুভি, মার-মার কাট কাট একশান, তেলুগু স্টাইল, বলিউড কপি পেষ্ট এবং মূল ধারার ইরানি চলচ্চিত্র। ইরানে সম্রাট আওরঙ্গজেব জন্মায় নি এবং কখন যাই নি। যার ফলে ইরানের ইসলামী মনোভাব আর এ উপমহাদেশের ইসলামী মনোভাব এক নয়। এককথায় বলা যায়, সম্রাট আওরঙ্গজেব ইসলামকে তার মতন করে সাজিয়েছেন এবং বর্তমান বাংলাদেশে যে ইসলাম পালন হয় তার শুরু ঐসময়েই। কোন ইসলামী বা আসমানী কিতাবে...

বিস্তারিত

পরবাসিনী – অন্যরকম কিছু হতে যাচ্ছে!

বাংলাদেশে যখন লালটিপ সিনেমাটা বেড়ল, সহব্লগার দুর্যোধন সিনেমাটা দেখে এসে এক রিভিউ লিখল। সেই রিভিউ এত বিখ্যাত হল যে, মানুষতো বলতেই লাগল, দুর্‍যোধনের লালটিপ। লালটিপ যে স্বপন আহমেদ বানিয়েছেন এ কথা প্রায় সকলে ভুলে গেল। সিনেমাটা অতটা সুন্দর হয়নি রিভিউটা যতটা সুন্দর হয়েছিল। উপমহাদেশীয় ফিল্মমেকারদের মধ্যে আশুতোশ গৌরিকরের নাম খুব শোনা যায়। তিনি লাগান, স্বদেশ, যোধা আকবরের মতো বড় ক্যানভাসের সিনেমা বানিয়ে দর্শককে অবাক করে দিতে ভালোবাসেন। কিন্তু এই আশুতোশের প্রথম দুটি ছবি পেহলা নেশা এবং বাজি- বক্স অফিসে প্রচুর হিট হলেও ছবি দুটো খুব অনুন্নত এবং ইংরেজি কাল্ট ফিল্ম থেকে কপি পেষ্ট। সেখানে কোন মেধার পরিচয় নেই, আছে...

বিস্তারিত

নুসরাত ফারিয়া প্রথম নয় !

‘গাওয়াহ্‌: দ্য উইটনেস; নামের একটা ছবিতে, ইমরান হাশমির বিপরীতে অভিনয় করবেন নুসরাত ফারিয়া। লুক টেষ্ট হয়ে গেলেই তিনি ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হবেনে। এ ছবিতে ফারিয়া একটা রহস্যময় চরিত্রে অভিনয় করেছে।’ এই সংবাদ এখন সবার মুখে মুখে। নিঃসন্দেহে বাংলাদেশের জন্য এটা একটা খুশীর সংবাদ। তথ্যটাতে আমিও প্রচন্ড খুশী হয়েছি। এবং বেশ কিছু জায়গায় নিউজটা শেয়ার করেছি। হঠাৎই লক্ষ করলাম, এক পক্ষ প্রচারনা চালাচ্ছে যে নুসরাত ফারিয়াই বাংলাদেশ থেকে বলিউডে যাওয়া প্রথম অভিনেত্রী। তারা জেনে করছে নাকি না জেনে করছে তা আমি জানিনা। কিন্তু তথ্য ভুল এবং ভ্রান্তিকর। ইতিহাস ক্ষতিগ্রস্থ করাটা একই সাথে অনুচিত এবং অপরাধ। ফারিয়ার বলিউডে যাওয়ার তথ্যে অনেকে আমার...

বিস্তারিত
  • 1
  • 2

ই-বুক ডাউনলোড করুন