Select Page

ঐতিহ্যবাহী আলমাসও থাকছে না

ঐতিহ্যবাহী আলমাসও থাকছে না


বন্ধ হয়ে গেল চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী আলমাস সিনেমা হল। বলা হচ্ছে, পর্যাপ্ত ও মানসম্মত ছবির অভাবে দীর্ঘদিন ধরে চলা লোকসানের চাপে এ সিদ্ধান্ত।

চট্টগ্রামের ৫৩ বছরের পুরনো হল বন্ধ হওয়া প্রসঙ্গে বাংলাদেশ প্রতিদিনকে চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতি চ্ট্টগ্রামের সভাপতি আবুল হোসেন জানান, প্রায় দেড় মাস আগেই হলটি বন্ধ করে দেন মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্ট থেকে লিজ নেওয়া সাবের আহমেদ। এখন এটি ভাঙার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

১৯৬৭ সালে অবাঙালি এক ব্যবসায়ী সিনেমা হলটি প্রতিষ্ঠা করেন। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর এটি মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের অন্তর্ভুক্ত হয়। পরে এটি আবদুল কাদের নামে এক ব্যবসায়ী লিজ নেন। তার মৃত্যুর পর সাবের আহমেদ লিজ নিয়ে চালাচ্ছিলেন। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে ছবির খরায় চরম লোকসানের কবলে পড়ায় হলটি কল্যাণ ট্রাস্টের কাছে ফিরিয়ে দেওয়া হয়।

আবুল হোসেন জানান, ১১টির স্থলে বর্তমানে চট্টগ্রাম শহরে রয়েছে মাত্র দুটি সিনেমা হল। এগুলো তার মালিকানাধীন ‘সিনেমা প্যালেস’ ও ‘সুগন্ধা’। তিনি সরকারের কাছে আবেদন জানিয়ে বলেন, চলচ্চিত্র ব্যবসার এই মন্দ সময়ে সিনেমা হল দুটি বাঁচিয়ে রাখতে ট্যাক্স, ভ্যাট মওকুফ, সিটি করপোরেশনের ট্যাক্স ও বাণিজ্যিকের পরিবর্তে আবাসিক হারে ও বিদ্যুৎ বিল শিল্প হারে নেওয়া না হলে অচিরেই এই হল দুটিও বন্ধ হয়ে যাবে।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Coming Soon
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?

Shares