Select Page

ওমর সানীর সেরা ১০

ওমর সানীর সেরা ১০


ওমর সানী অভিনীত ছবির মধ্যে গল্প, গান, অভিনয়, ব্যবসাসফলতা, নির্মাণ এসব বিষয় নজরে রেখে তার সেরা ১০ ছবি নির্বাচন করা হয়েছে। ছবিগুলো বিভিন্ন দিক থেকে তার ক্যারিয়ারে গুরুত্বপূর্ণ ছিল –

১. প্রেমগীত (১৯৯৩)
দেলোয়ার জাহান ঝন্টু পরিচালিত ওমর সানীর সেরা ছবির মধ্যে একটি। প্রথমদিকের ছবি হিশাবেও অসাধারণ অভিনয় ছিল। ছবির গল্প ছিল রোমান্টিক ট্র্যাজেডি। একজন ব্যর্থ প্রেমিকের গল্পে স্যাক্রিফাইসিং রোলে নিজের অন্যতম সেরা পারফরম্যান্স করেছে। ছবির গানগুলো জনপ্রিয়।

২. কে অপরাধী (১৯৯৭)
উত্তম আকাশ পরিচালিত ওমর সানীর আরেকটি সেরা ছবি। এ ছবিতেও অসাধারণ অভিনয় করেছে। এ ছবিটিও রোমান্টিক ট্র্যাজেডি। ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত একজন প্রেমিকের স্বেচ্ছায় নিজেকে প্রেমিকা শাবনূরের কাছ থেকে সরিয়ে নেয়ার করুণ গল্প। নানা ঘটনার মধ্য দিয়ে ছবি এগিয়ে যায় ট্র্যাজেডিতে। লুকের দিক থেকে ভালো ছিল সানী। গানের জনপ্রিয়তা আছে।

৩. কুলি (১৯৯৭)
মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ওমর সানীর সবচেয়ে ব্যবসাসফল ছবি। সে বছরের অন্যতম সেরা ব্যবসাসফল ছবিও ছিল। মায়ের অপমানের শোধ নিতে হুমায়ুন ফরীদির মেয়ে পপির সাথে দুই জনের ভূমিকায় অভিনয় করে সানী। একজন বড়লোক আর একজন কুলি। কমেডির মধ্য দিয়ে ঘটনা এগিয়ে যায়। সানীর লুক ও অভিনয় ভালো ছিল। গানের জনপ্রিয়তা আছে।

৪. চাঁদের আলো (১৯৯২)
শেখ নজরুল ইসলাম পরিচালিত একক নায়কের প্রথম ছবি সানীর। প্রথম ছবিই ছিল সুপারহিট। নায়িকা ছিল মুক্তি। সমাজের অসম প্রেমের গল্প। বিভিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে সানী-মুক্তির প্রেম এগিয়ে যায়। গানগুলো জনপ্রিয়।

৫. মহৎ (১৯৯৩)
নূর হোসেন বলাই পরিচালিত আরেকটি রোমান্টিক ট্র্যাজেডি। সমাজের অবস্থানে পিছিয়ে থাকায় নায়িকা শাহনাজের সাথে সানীর বিয়ে হয় না। বিয়ে হয় ইলিয়াস কাঞ্চনের সাথে। কাঞ্চনের সাথে বন্ধুত্বের সুবাদে সানীর সাথে আবার দেখা হয় শাহনাজের। তারপর চলতে থাকে মানসিক দ্বন্দ্ব। ছবির ‘প্রেম কখনো মধুর’ গানটি কালজয়ী।

৬. বাপের টাকা (১৯৯৮)
এ জে মিন্টু পরিচালিত গল্প ও অভিনয়ে ওমর সানীর উল্লেখযোগ্য ছবি। বিলাসী জীবনে অভ্যস্ত সানী দু’হাতে টাকা ওড়ায়। বাবা আলমগীরের সাথে সম্পর্কের টানাপড়েন থাকে। ব্যবসা করতে গিয়ে লোকসান করে। হতাশ সানী একসময় আবিষ্কার করে বাবা তার জন্য অনেক বড় একটা সারপ্রাইজ রেখেছে। ছবির ফিনিশিং-এ পরিচালক অবাক করে দেন দর্শককে।

৭. মুক্তির সংগ্রাম (১৯৯৫)
উত্তম আকাশ পরিচালিত ওমর সানীর রাজনৈতিক গল্পের অসাধারণ বাণিজ্যিক ছবি। ছাত্র রাজনীতির কবলে ক্যাম্পাস থেকে শুরু হয়ে জাতীয় পর্যায়ে কিভাবে একজন সাধারণ ছাত্রের জীবন বদলে যেতে পারে সে গল্পই তুলে ধরা হয়েছে। লুকের দিক থেকে এ ছবিতে অন্যতম সেরা ছিল সানী। নায়িকা মৌসুমী।

৮. অধিকার চাই (১৯৯৮)
ওয়াকিল আহমেদ পরিচালিত ছাত্র রাজনীতির আরেকটি অসাধারণ ছবি। একজন সাদামাটা ছাত্র যার প্রতিবাদ করার চেতনা ছিল না। সে পরিবেশ পরিস্থিতিতে বাধ্য হয় প্রতিবাদী হতে। বাবার হত্যাকারী মিশা সওদাগরকে খুন করার পর সানীর উপর বিভিন্ন বিপদ আসতে থাকে। নায়িকা শাবনূর।

৯. মধুর মিলন (১৯৯৮)
বাদল খন্দকার পরিচালিত সুনির্মিত রোমান্টিক ছবি। ছবিটির সাউন্ড সিস্টেম ব্যতিক্রমী। সানীর অভিনয় ও লুক অসাধারণ ছিল। নায়িকা শাবনূর। ছবির গল্পে বেড়াতে যাওয়া সানী তার প্রিয়তমাকে খুঁজে পায় রোমান্টিকভাবে এবং অনাকাঙ্ক্ষিত সব ঘটনা ঘটতে থাকে।

১০. হারানো প্রেম (১৯৯৬)
দেলোয়ার জাহান ঝন্টু পরিচালিত মিউজিক্যাল রোমান্টিক ছবি। নায়িকা মৌসুমী। প্রেম ও বিয়ের পর বাপ্পারাজের ষড়যন্ত্রে দুজন আলাদা হয়ে যায়। তারপর ঘটতে থাকে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা। গানগুলো জনপ্রিয় এবং এ জুটির অন্যতম সেরা।

খুব সতর্কভাবে ছবিগুলো নির্বাচিত। বিভিন্ন বিষয় ভেবেচিন্তে ওমর সানী-র সেরা ১০ নেয়া হয়েছে। অনেকের সাথে নাও মিলতে পারে তবে যৌক্তিক ব্যাখ্যা থেকে যাবে।


লেখক সম্পর্কে বিস্তারিত

বাংলাদেশের চলচ্চিত্র গত শতকে যেভাবে সমৃদ্ধ ছিল সেই সমৃদ্ধির দিকে আবারও যেতে প্রতিদিনই স্বপ্ন দেখি। সেকালের সিনেমা থেকে গ্রহণ বর্জন করে আগামী দিনের চলচ্চিত্রের প্ল্যাটফর্ম গড়ে উঠুক। আমি প্রথমত একজন চলচ্চিত্র দর্শক তারপর সমালোচক হিশেবে প্রতিষ্ঠিত হবার স্বপ্ন দেখি। দেশের সিনেমার সোনালি দিনের উৎকর্ষ জানাতে গবেষণামূলক কাজ করে আগামী প্রজন্মকে দেশের সিনেমাপ্রেমী করার সাধনা করে যেতে চাই।

মন্তব্য করুন

Shares