Select Page

কেন বা কাদের চলচ্চিত্র ফোরাম?

কেন বা কাদের চলচ্চিত্র ফোরাম?

যারা নিয়মিত কাজ করছেন, তারাই চলচ্চিত্র ফোরামে রয়েছেন। অকাজের লোকরাই অন্যের সমালোচনায় মেতে থাকেন। আমাদের চলচ্চিত্র ফোরামে অকাজের লোক নেই। এ সংগঠনের সবার স্বার্থ রক্ষিত হবে। সোমবার দুপুরে ঢাকা ক্লাবে চলচ্চিত্রের নতুন সংগঠন ‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ফোরাম’র আনুষ্ঠানিক ঘোষণা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন শাকিব খান।

বলা হয়ে থাকে, সংগঠনটি করা হচ্ছে শাকিবের উপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা ও যৌথ প্রযোজনার নামে ‘যৌথ প্রতারণা’বিরোধী আন্দোলনের প্রতিক্রিয়ায়। তবে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক কাজী হায়াৎ বলেন, ‘আমাদের চলচ্চিত্র আজ এক বিশাল সংকটে রয়েছে। সে সংকট থেকে উত্তরণের জন্য যারা এ দেশের চলচ্চিত্রকে ভালোবাসি তারা এক হয়ে কাজ করার জন্য সংগঠনটির জন্ম।’

‘আমাদের এখন ভালো ছবি হচ্ছে না তা কিন্তু নয়। আমাদের এখানে ভালো ছবি কিন্তু নির্মিত হচ্ছে। আয়নাবাজি যার উদাহরণ। আরও ভালো ছবি নির্মিত হচ্ছে। কিন্তু কোথায় যেন হারিয়ে যাচ্ছে। এ সমস্যা দূর করতে হবে আমাদের। এসব সমস্যা নিয়ে কাজ করবে চলচ্চিত্র ফোরাম’- বলেন শাকিব।

তিনি বলেন, চলচ্চিত্র ফোরাম গঠনের আগে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সবাইকে নিয়ে সভা করা হয়েছে। যাদের প্রয়োজন তাদের নিয়েই সংগঠন করা হয়েছে। হল মালিক, প্রযোজক, বুকিং এজেন্ট, অভিনয় শিল্পী, নির্মাতা, প্রডাকশনবয় সবাই থাকছেন। এ সংগঠন তৈরির আগে মৌসুমী ম্যাডামের রেস্তোরাঁয় সভা করেছি।

সংগঠনের সূচনা প্রসঙ্গে শাকিব বলেন, “এখানেই (ঢাকা ক্লাব) একটা অনুষ্ঠানে এসেছিলাম আমি। আমার বব্ধু প্রযোজক ইকবাল আমাকে বললেন, ‘শাকিব তুমি তো ভারতীয় ইমপার (চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের সংগঠন) আদলে বাংলাদেশে সংগঠন গঠনের কথা বলেছিলে।’ তখনই আমি দেখলাম অনুষ্ঠানটিতে চলচ্চিত্রের সব সংগঠনের মানুষ উপস্থিত আছেন। তাদেরকে নিয়ে বসে গেলাম, তারা প্রাথমিকভাবে রাজিও হলেন।”

সর্বশেষে শাকিব বলেন, ইদানীং আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে ব্যান একটা কালচার হয়ে দাঁড়িয়েছে। যেটা আমি অনেক বছর দেখিনি। কথা বললেই, পা ফেললেই ব্যান। কিছু বললেই ব্যান! এতগুলো বছর ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করছি, এরপরও কি কথা বলার স্বাধীনতা পাব না? যাদের ব্যান করা হচ্ছে তারাই কিন্তু চলচ্চিত্রকে এগিয়ে নিয়ে চাচ্ছে। আসুন আমরা ব্যান কালচার বাদ দিয়ে চলচ্চিত্রকে এগিয়ে নিয়ে যাই। বঙ্গবন্ধুর গড়া চলচ্চিত্রকে সামনে নিয়ে যাই।

‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ফোরাম’-এর সভাপতি হয়েছেন প্রযোজক নাসিরউদ্দিন দিলু ও সাধারণ সম্পাদক পরিচালক কাজী হায়াৎ। সহ-সভাপতি হিসেবে আছেন মোহাম্মেদ হোসেন, নাদের চৌধুরী, ড্যানি সিডাক, নাদের খান ও সেলিম খান। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামাল মোহাম্মদ কিবরিয়া লিপু। সাংগঠনিক সম্পাদক এম ডি ইকবাল, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ রমিজ উদ্দিন, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি সম্পাদক ফারহান আমিন নূতন, আন্তর্জাতিক সম্পাদক আরিফা পারভীন জামান মৌসুমী, দপ্তর সম্পাদক জাহিদ হোসেন ও কোষাধ্যক্ষ কামরুজ্জামান কমল।

এছাড়া ফোরামের সদস্য হিসেবে আছেন আব্দুল আজিজ, ওমর সানী, কাজী মারুফ, বিদ্যা সিনহা মিম, ববি, অমিত হাসান, শবনম বুবলি, শিবা শানু, নানা শাহ, ডি জে সোহেল, হাফিজুর রহমান সুরুজ, বড়ুয়া মনোজিত ধীমান, অজিত নন্দী ও শাকিব খান।

সব মিলিয়ে চলচ্চিত্র ফোরামের সদস্য সংখ্যা ২০০ এর উপরে। প্রথম কমিটি তিন বছর ক্ষমতায় থাকতে পারবে, এরপর প্রতি দু’বছর পরপর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

Shares