Select Page

কেমন জমলো ‘সিনেমায় জাগরণ, দর্শকের আলোড়ন’?

কেমন জমলো ‘সিনেমায় জাগরণ, দর্শকের আলোড়ন’?

‘পোড়ামন ২’ নিয়ে অনলাইনে বেশ আগ্রহ জন্ম নিলেও কীভাবে অফলাইনের মানুষের কাছে পৌছানো যায়— তা নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করেছিলেন অনলাইনে ব্যস্ত থাকা সিনেমাপ্রেমীরা। নিজেদের উদ্যোগে শুক্রবার রাজধানীর যমুনা ফিউচার পার্কে আয়োজন করে ফেলেন বড়সড় ইভেন্ট ‘সিনেমায় জাগরণ, দর্শকের আলোড়ন’। এর আগে ঘটা করে ফেসবুকে ইভেন্ট খুলে জানান দেয় তারা।

‘সিনেমায় জাগরণ, দর্শকের আলোড়ন’ এই ট্যাগ লাইন নিয়ে ইভেন্টের মূল আয়োজকের কাজ করে ‘থিয়েটার থ্রেড’ এবং বাংলাদেশের চলচ্চিত্র বিষয়ক ফেসবুক গ্রুপ ‘বাংলা চলচ্চিত্র’ অ্যাডমিন ও সংশ্লিষ্ট লেখকরা।

ইভেন্ট শুরু হয় ইফতারের পর। ঘড়ির কাঁটা যখন ঠিক সন্ধ্যা ৭টা ২০ মিনিট। তখনই দর্শকদের অবাক করে দিয়ে মঞ্চে উপস্থিত হয় ‘পোড়ামন ২’ এর পরিচালক ও অভিনেতা-অভিনেত্রীরা। হাততালি আর উচ্ছ্বাসের মাধ্যমে তাদের বরণ করে নেন আগতরা।

সিনেমাটি থেকে সদ্য রিলিজ হওয়া গান ‘ওহে শ্যাম’-এর তালে সিয়াম-পূজার নাচে শুরু হয় প্রোমোশন। পুরো সেন্ট্রাল গ্রাউন্ড তখন দর্শকে পরিপূর্ণ। এরপর শুরু হয় দর্শকদের থেকে প্রশ্নোত্তর পর্ব। উত্তর দেন সিয়াম, পূজা ও রায়হান রাফি।

ইভেন্টের শেষ দিকে উপস্থিত হন কণ্ঠশিল্পী দিলশাদ নাহার কনা। তিনিই ‘ও হে শ্যাম’-এর গায়িকা। এবার গানটি লাইভ শোনা গেল।

শেষ দিকে সবার কাছে সিনেমার দেখার আহ্বান জানিয়ে মঞ্চ ত্যাগ করেন সিনেমার কলাকুশলীরা।

ইভেন্টটির কিছু সেগমেন্ট উপস্থাপন করেন সৈয়দ নাজমুস সাকিব

ইভেন্ট শেষে বিএমডিবির সাথে কথা হয় ‘বাংলা চলচ্চিত্র’ গ্রুপের দুই অ্যাডমিন আব্দুল্লাহ আল মানী ও রাব্বি খানের সাথে। তাদের মতে, দর্শক ও কলাকুশলীদের যোগাযোগের মধ্যে দিয়ে ইন্ডাস্ট্রি ভালো স্থানে চলে যাবে ধীরে ধীর। বাংলাদেশে এ বিষয়টা একদমই নতুন। এমন ইভেন্ট বারবার হোক সেটাই কামনা। তাহলে বাংলা চলচ্চিত্রের সুদিন ফিরতে বাধ্য।

‘সিনেমায় জাগরণ, দর্শকের আলোড়ন’-এর ইভেন্টটি নিয়ে আগতদের মধ্যে উচ্ছ্বাস ছিল চোখে পড়ার মতো। তার রেশ পাওয়া যাচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ছবি ও লেখায় বারবার তারা মনে করছেন আয়োজনটির কথা।

‘পোড়ামন ২’ প্রযোজনা করছে জাজ মাল্টিমিডিয়া। মু্ক্তি পাবে ঈদুল ফিতরে।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

স্পটলাইট

Movies to watch in 2018
Coming Soon

[wordpress_social_login]

Shares