Select Page

চলচ্চিত্র দিবস উদযাপন

চলচ্চিত্র দিবস উদযাপন

533dc8fc3345d-Untitled-9জমকালো আয়োজন আর আনন্দ উল্লাসের মধ্য দিয়ে এফডিসিতে উদযাপিত হলো জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস-২০১৪। গতকাল ছিল জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস। ১৯৫৭ সালের ৩রা এপ্রিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তৎকালীন প্রাদেশিক পরিষদে শিল্প, বাণিজ্য, ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনামন্ত্রী থাকাকালে এফডিসি বিল উত্থাপন করেন। পরে এফডিসি প্রতিষ্ঠা হয়। সরকার এ দিনটিকে জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস হিসেবে ঘোষণা করেছে।

তথ্য মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে, এফডিসির আয়োজনে এবং চলচ্চিত্র পরিবারের সহযোগিতায় গতকাল সাড়ম্বরে পালিত হয় জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস। সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে পায়রা উড়িয়ে জাতীয় চলচ্চিত্র দিবসের দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। এ সময় উপস্থিত ছিলেন তথ্য সচিব মুর্তজা আহমেদ, চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম, এ টি এম শামসুজ্জামান, শর্মিলী আহমেদ, সুজাতা, চিত্রতারকা রুবেল, দিতি, পপিসহ চলচ্চিত্র শিল্পের ব্যক্তিবর্গ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন এফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপর বর্ণাঢ্য র‌্যালিতে অংশ নেন তথ্যমন্ত্রী, এফডিসির এমডিসহ চিত্রতারকা ও চলচ্চিত্র শিল্প কলাকুশলীরা। এতে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক ও পরিবেশক সমিতি, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র চিত্রগ্রাহক সমিতিসহ বিভিন্ন সংগঠন নিজ নিজ ব্যানার নিয়ে অংশগ্রহণ করে। এবারের দিবসটির প্রতিপাদ্য ছিল ‘এগিয়ে চলি ভবিষ্যত্ সৃজনে’।

র‌্যালি শেষে তিনটি টক শো অনুষ্ঠিত হয়। রেড কার্পেট সংবর্ধনায় অংশ নেন জনপ্রিয় চিত্রতারকা আলমগীর, ওয়াসিম, সুজাতা, ইলিয়াস কাঞ্চন, নূতন, ফেরদৌস, শাকিব খান, মিশা সওদাগর, বাপ্পী চৌধুরী, সাথী, ববি, নিপুণ, আলীরাজসহ অনেকেই। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এফডিসির সিনিয়র-জুনিয়র শিল্পী কলাকুশলীদের মিলনমেলায় পরিণত হয়। চলচ্চিত্র পরিচালকদেরও সংবর্ধনা দেয়া হয়।

উত্সবে ‘চলচ্চিত্র ইতিহাস’, ‘ডিজিটাল চলচ্চিত্র’, ‘চলচ্চিত্রের বর্তমান প্রেক্ষাপট সংকট উত্তরণের উপায়’ ও ‘আন্তর্জাতিক প্রেক্ষাপটে বাংলা চলচ্চিত্র’ শীর্ষক চারটি আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। এগুলো সঞ্চালনা করেন অনুপম হায়াত্, মতিন রহমান, মোহাম্মদ হোসেন ও মোরশেদুল ইসলাম।
আলোচক ছিলেন কাজী হায়াত্, মশিউদ্দিন শাকের প্রমুখ। এফডিসির সাউন্ড কমপ্লেক্স এলাকায় স্থাপিত অস্থায়ী উত্সব মঞ্চে ছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। চলচ্চিত্রাভিনেতা ও অভিনেত্রীদের অংশগ্রহণে এই সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি দর্শকদের কাছে ছিল খুবই আকর্ষণীয়।

এফডিসিজুড়ে মেলার আয়োজন করা হয়। চিত্রতারকা ফেরদৌস, নিপুণ, জাজ মাল্টিমিডিয়া, ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড, ফিল্ম আর্কাইভ, এফডিসিসহ বিভিন্ন স্টল সজ্জিত করা হয় বর্ণিল সাজে। বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভ সোনালি যুগের ছবির পোস্টার দিয়ে পুরো এফডিসি সাজিয়ে দেয়। আলোকসজ্জা করা হয়। এটিএনবাংলা সরাসরি সম্প্ররচার করে পুরো অনুষ্ঠানটি। ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডের পৃষ্ঠপোষকতায়, ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজের সহযোগী পৃষ্ঠপোষকতায় এবং পথিক কমিউনিকেশনের সার্বিক আয়োজনে জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস শেষ হয় তারকাসমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও হাতিরঝিলে ফানুস উড়ানোর মধ্য দিয়ে।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Coming Soon
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?

[wordpress_social_login]

Shares