Select Page

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার (২০০৫-০৭)

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার (২০০৫-০৭)

২০০৫ : এই বছর  ১৪টি শাখায় পুরস্কার প্রদান করা হয়।সরকারি অনুদানে নির্মিত শহীদ জহির রায়হানের কালজয়ী উপন্যাস অবলম্বনে কোহিনূর আক্তার সুচন্দার চলচ্চিত্র ‘হাজার বছর ধরে’ সর্বোচ্চ ৭ টি শাখায় পুরস্কার লাভ করে। শাবনূর এই বছর প্রথম জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন, এখন পর্যন্ত এটাই শেষ জাতীয় পুরস্কার। ‘হাজার বছর ধরে’র জন্য রিয়াজ পুরস্কৃত না হওয়ায় বেশ বিতর্কের সৃষ্টি হয়।এছাড়া সেরা সংলাপ, সম্পাদক, গীতিকারসহ বেশ কিছু শাখায় পুরস্কার দেয়া হয়নি। তবে সেরা সহ-অভিনেতার পুরস্কার প্রত্যাখ্যান করেন জনপ্রিয় চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন।

১. সেরা চলচ্চিত্র – হাজার বছর ধরে
২. সেরা পরিচালক – কোহিনূর আক্তার সুচন্দা (হাজার বছর ধরে)
৩. সেরা কাহিনীকার – জহির রায়হান (হাজার বছর ধরে)
৪. সেরা চিত্রনাট্যকার – কোহিনূর আক্তার সুচন্দা (হাজার বছর ধরে)
৫. সেরা সঙ্গীত পরিচালক – আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল (হাজার বছর ধরে)
৬. সেরা অভিনেতা – মাহফুজ আহমেদ (লাল সবুজ)
৭. সেরা অভিনেত্রী – শাবনূর (দুই নয়নের আলো)
৮. সেরা সহ অভিনেতা – ইলিয়াস কাঞ্চন (শাস্তি)
৯. সেরা সহ অভিনেত্রী – চম্পা (শাস্তি)
১০. সেরা শিশু শিল্পী – হৃদয় ইসলাম (টাকা)
১১. সেরা গায়ক – মনির খান (দুই নয়নের আলো)
১২. সেরা গায়িকা – সাবিনা ইয়াসমিন (দুই নয়নের আলো)
১৩. সেরা চিত্রগ্রাহক – মাহফুজুর রহমান খান (দুই নয়নের আলো)
১৪. সেরা শিল্প নির্দেশক – কলন্তর।

২০০৬ : এই বছর ১৫টি শাখায় পুরস্কার প্রদান করা হয়। সরকারি অনুদানে নির্মিত কাজী মোরশেদের ‘ঘানি’ সর্বোচ্চ ১২টি শাখায় পুরস্কার লাভ করে। সেরা গীতিকার, শিল্প নির্দেশক ৱসহ বেশ কিছু শাখায় পুরস্কার দেওয়া হয়নি।

১. সেরা চলচ্চিত্র – ঘানি
২. সেরা পরিচালক – কাজী মোরশেদ (ঘানি)
৩. সেরা কাহিনীকার – কাজী মোরশেদ (ঘানি)
৪. সেরা চিত্রনাট্যকার – কাজী মোরশেদ (ঘানি)
৫. সেরা সংলাপ রচয়িতা – কাজী মোরশেদ (ঘানি)
৬. সেরা সংগীত পরিচালক – শেখ সাদী খান (ঘানি)
৭. সেরা অভিনেতা – আরমান পারভেজ মুরাদ (ঘানি)
৮. সেরা অভিনেত্রী – নাজনীন চুমকি (ঘানি)
৯. সেরা সহ অভিনেতা (যৌথভাবে) – মাসুম আজিজ ও রাইসুল ইসলাম আসাদ (ঘানি)
১০. সেরা সহ অভিনেত্রী – ডলি জহুর (ঘানি)
১১. সেরা শিশু শিল্পী- দিঘি (কাবুলিওয়ালা)
১২. সেরা গায়ক – আসিফ (রাণী কুঠির বাকী ইতিহাস)
১৩. সেরা গায়িকা – সামিনা চৌধুরী (রাণী কুঠির বাকী ইতিহাস)
১৪. সেরা চিত্রগ্রাহক – হাসান আহমেদ (ঘানি)
১৫. সেরা সম্পাদক – সাইফুল ইসলাম (ঘানি)

২০০৭ : এই বছরও  ১৫টি শাখায় জাতীয় পুরস্কার প্রদান করা হয়।কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের জনপ্রিয় উপন্যাস অবলম্বনে তৌকীর আহমেদ নির্মিত ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ছবি ‘দারুচিনি দ্বীপ’ সর্বোচ্চ ৮টি শাখায় পুরস্কার লাভ করে।এই ছবিতে অভিনয় করে রিয়াজ ও আবুল হায়াত জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন। লাক্স সুপারস্টার মম প্রথম ছবিতেই জাতীয় পুরস্কারের স্বাদ পান। তবে দারুচিনি দ্বীপকে সেরা চলচ্চিত্রের আসন পেতে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে হয় স্বপ্নডানায় ও নিরন্তরের সাথে। নিরন্তরের জন্য শাবনূরের পুরস্কার না পাওয়াটা ছিল সবচাইতে হতাশাজনক।এছাড়া সাজঘরের জন্য নিপুনের পুরস্কার প্রাপ্তি নিয়েও বিতর্ক উঠে।এই বছর সেরা সংলাপ রচয়িতা, শিশু শিল্পীসহ বেশ কিছু শাখায় পুরস্কার দেওয়া হয়নি।

১. সেরা চলচ্চিত্র – দারুচিনি দ্বীপ
২. সেরা পরিচালক – এনামুল করিম নির্ঝর (আহা!)
৩. সেরা কাহিনীকার – হুমায়ূন আহমেদ (দারুচিনি দ্বীপ)
৪. সেরা চিত্রনাট্যকার – হুমায়ূন আহমেদ (দারুচিনি দ্বীপ)
৫. সেরা সঙ্গীত পরিচালক – এস আই টুটুল (দারুচিনি দ্বীপ)
৬. সেরা নৃত্য পরিচালক – কবিরুল ইসলাম রতন (দারুচিনি দ্বীপ)
৭. সেরা অভিনেতা – রিয়াজ (দারুচিনি দ্বীপ)
৮. সেরা অভিনেত্রী – মম (দারুচিনি দ্বীপ)
৯. সেরা সহ অভিনেতা – আবুল হায়াত (দারুচিনি দ্বীপ)
১০. সেরা সহ অভিনেত্রী – নিপুন (সাজঘর)
১১. সেরা গীতিকার – মুন্সী ওয়াদুদ (সাজঘর)
১২. সেরা গায়ক – অ্যান্ড্রু কিশোর (সাজঘর)
১৩. সেরা গায়িকা – ফাহমিদা নবী (আহা!)
১৪. সেরা চিত্রগ্রাহক – সাইফুল ইসলাম বাদল (আহা!)
১৫. সেরা সম্পাদক- অর্ঘ্য কমল মিত্র (আহা!)


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

স্পটলাইট

Saltamami 2018 20 upcomming films of 2019
Coming Soon
ঈদুল আজহায় কোন সিনেমাটি দেখছেন?
ঈদুল আজহায় কোন সিনেমাটি দেখছেন?
ঈদুল আজহায় কোন সিনেমাটি দেখছেন?

[wordpress_social_login]

Shares