Select Page

‘দামাল’ ট্রেলার নিয়ে যে সব সমালোচনা

‘দামাল’ ট্রেলার নিয়ে যে সব সমালোচনা

অনলাইনে প্রকাশ হতেই তোলপাড় তুলেছে রায়হান রাফীর ‘দামাল’ ট্রেলার। বেশির ভাগ দর্শক ‘পরাণ’-এর ধারাবাহিকতায় একটি হিট সিনেমায় প্রত্যাশা করছেন। তবে কিছু কিছু বিষয়ে এসেছে সমালোচনাও। জবাবও দিয়েছেন রাফী।

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময়ে স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের গল্প নিয়ে ‘দামাল’-এর কাহিনি গড়ে উঠেছে। সেই সময় পশ্চিমবাংলার নানা জায়গায় ফুটবল খেলে অর্জিত সমস্ত অর্থ মুক্তিযুদ্ধের জন্য ব্যয় করা হয়েছিল। সেই গল্পের সাথে মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে দেশের ভেতরে মানুষের আত্মত্যাগ ও বীরত্বের কাহিনি এসেছে এ সিনেমায়। ট্রেলারে দুটো অংশই এসেছে সমান্তরালে।

এ ছবিতে কিছু ভিএফএক্সের কাজ রয়েছে। যেখানে অসঙ্গতি হিসেবে অনেকেই বলছেন, একই ফ্রেমে গ্যালারির একই দর্শকদের ভিন্ন অংশে দেখানো। এর আগে ‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’ ছবির পোস্টার নিয়েও একই অভিযোগ ওঠে।

কিছু দর্শকের অভিযোগ একই দলের খেলোয়াড়দের কারো জার্সি নাম্বার ইংরেজিতে, আবার কারো বাংলায়। এ ছাড়া ওই সময়ের খেলোয়াড়দের হাফপ্যান্টের সঙ্গে অসামঞ্জস্য কারো কারো চোখে এড়ায়নি।

জার্সির নাম্বার নিয়ে রায়হান রাফী বলেন, ‘‘গোলকিপারের দুই সিনের জার্সি দুটি ভিন্ন ম্যাচের। আমাদের গল্পটা ট্রু ইভেন্ট-এর ছায়া নিয়ে তৈরি হয়েছে। এই টিমটি ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে জনমত তৈরি করা এবং মুক্তিযোদ্ধাদের সাহায্যার্থে অর্থ সংগ্রহের উদ্দেশ্যে খেলেছে। তারা ভারতের বিভিন্ন স্থানে প্রদর্শনী ফুটবল ম্যাচ আয়োজন করেছিল। মূলত ভারতে তারা রিফিউজি হিসেবে ছিলেন। এখন যেমন আমাদের দেশে রোহিঙ্গারা অবস্থান করছেন। পুরো টিমের জার্সি তৈরি করার মতো সামর্থ্য তাদের ছিল না। প্রথম ম্যাচে গোলকিপার জার্সি ছাড়াই মাঠে নামেন। পরে বিপক্ষ দল থেকে তাকে একটি জার্সি দেওয়া হয়। যেটিতে ইংরেজিতে ‘1’ লেখা ছিল। পরবর্তী ম্যাচে দলের অন্য সদস্যদের মতোই গোলকিপারের জন্যেও জার্সি তৈরি করা হয়েছিল। যেখানে লেখা ছিল বাংলায় ‘১’। ট্রেইলারে দুটো ঘটনার সময়ের দুটো জার্সি দেখা গেছে বলেই অনেকে সেটাকে ভুল ধরেছেন! অথচ এটাই ছিল সেসময়ে আমাদের দলের বাস্তবতা।’’

স্বাধীন বাংলা ফুটবল টিমের পতাকা ধরা নিয়ে আপত্তি আছে কারো কারো। তবে ওই সময়ের ছবি দেখলে এই আপত্তি টেকে না। সেই ছবি রাফীও শেয়ার করেছেন।

তবে রাজনৈতিক ও ধর্মীয় বিষয় নিয়ে প্রশ্ন তোলায় সংশোধনের কথা বলেছেন রাফী। এমনও শোনা যাচ্ছে। ট্রেলারে দেখা যায় ‘নারায়ে তকবির আল্লাহু আকবর’ স্লোগান দিচ্ছে রাজাকার। এ নিয়ে আপত্তি তোলেছেন ফ্রান্সে নির্বাসিত অ্যাক্টিভিস্ট পিনাকী ভট্টাচার্য।

পরে তিনিই ফেসবুক পোস্টে বলছেন, ‘দামাল সিনেমার পরিচালক রায়হান রাফি ইনবক্সে যোগাযোগ করে ফোনে আমার সাথে কথা বলেছে। সে রাজাকারের মুখে নারায়ে তাকবির আল্লাহু আকবর শ্লোগান দেয়াটাকে অনিচ্ছাকৃত ভুল বলে মুল সিনেমা থেকে তা বাদ দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। শুধু তাই না সে শ্লোগান বাদ দিয়ে সিনেমার ট্রেলারটাও পালটে দেবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। এই প্রতিশ্রুতির জন্য রায়হান রাফিকে ধন্যবাদ। ‘

ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত ‘দামাল’ সিনেমায় অভিনয় করেছেন ইন্তেখাব দিনার,সিয়াম আহমেদ, শরিফুল রাজ, বিদ্যা সিনহা সাহা মিম, সুমিত সেনগুপ্ত, রাশেদ মামুন অপু, সাঈদ বাবু, শাহনাজ সুমি, বৃষ্টি, সামিয়া অথৈ, সৈয়দ নাজমুস সাকিব, পূজাসহ আরো অনেকে। ২৮ অক্টোবর রিলিজ পাচ্ছে ‘দামাল’।


মন্তব্য করুন

Shares