Select Page

ধানমন্ডি, মহাখালী, উত্তরা ও পূর্বাচলে হবে সিনেপ্লেক্স

ধানমন্ডি, মহাখালী, উত্তরা ও পূর্বাচলে হবে সিনেপ্লেক্স

# ধানমন্ডির সীমান্ত সম্ভারের সিনেপ্লেক্স শিগগিরই চালু হবে
# ফোরডিএক্সে সিট মুভমেন্ট করবে। ছবিতে বৃষ্টি দেখলে পানি পড়বে,
বরফ দেখলে ঠাণ্ডা হাওয়া লাগবে, বোমা ব্লাস্ট হলে গরম হাওয়া আসবে
# প্রাথমিক কাজ চলছে মহাখালী, উত্তরা ও পূর্বাচল সিটি
# এরপর চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের দিকে এগুবে
# বছরে চারটি ছবি প্রযোজনা করবে সিনেপ্লেক্স
# গল্পে থাকবে মুক্তিযুদ্ধ, মাদক ও নারীর ক্ষমতায়ন

রাজধানীর স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান জানান, রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি এলাকায় সিনেপ্লেক্স চালু হবে। জায়গাগুলো হলো ধানমন্ডি (সীমান্ত সম্ভার), মহাখালী, উত্তরা ও পূর্বাচল সিটি।

সোমবার স্টার সিনেপ্লেক্সের ১৪ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানে দেশের জনপ্রিয় এই সিনেথিয়েটারের কর্ণধার বলেন, সীমান্ত সম্ভারে (ধানমন্ডি) তিনটি মাল্টিপ্লেক্স করেছি খুবই মডার্ন ডিজাইন দিয়ে। সবকাজ শেষ। শুধুমাত্র চালু হওয়ার আনুষ্ঠানিকতা বাকি।

এছাড়া নগরীর গুলশান, বনানী ও এর আশপাশ এলাকায় বসবাসরতদের জন্য মহাখালীতে একটি মাল্টিপ্লেক্স নির্মাণ করা হবে। এর প্রাথমিক কাজ শুরু হয়ে গেছে বলে জানান।

তিনি বলেন, উত্তরা ও পূর্বাচল এলাকাতেও সিনেপ্লেক্স নির্মাণ হবে। একেবারেই নতুন প্রযুক্তি থাকবে সেখানে। দর্শক এতদিন থ্রিডিএক্স টেকনোলজি দেখেছেন। নতুন এসব মাল্টিপ্লেক্সের আমরা কোরিয়ার অত্যাধুনিক ফোরডিএক্স দেখাবো। এটি সারাবিশ্বে সাড়া ফেলেছে।

স্টার সিনেপ্লেক্স এর চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান বলেন, ফোরডিএক্সে সিট মুভমেন্ট করবে। ছবিতে বৃষ্টি দেখলে পানি পড়বে, বরফ দেখলে ঠাণ্ডা হাওয়া লাগবে, বোমা ব্লাস্ট হলে গরম হাওয়া আসবে। এটা ছবি দেখায় অন্যরকম ফিলিং আনবে।

ধানমন্ডি, মহাখালী, উত্তরা ও পূর্বাচলের পর নতুন করে কক্সবাজার ও চট্টগ্রামে মাল্টিপ্লেক্স নির্মাণ শুরু হবে বলেও উল্লেখ করেন মাহবুবুর রহমান।

মাল্টিপ্লেক্স আকারে সিনেথিয়েটার নির্মাণের পাশাপাশি চলচ্চিত্র প্রযোজনা করবে সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ। মাহবুবুর রহমান বলেন, প্রতিবছর কমপক্ষে চারটি সিনেমা প্রযোজনা করতে চাই। এগুলো সব আমাদের চারপাশের গল্পকে কেন্দ্র করে নির্মিত হবে।

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময়ে চট্টগ্রামের কিছু অংশের গল্প, নারীর ক্ষমতায়ন, মাদক এসব গল্প নিয়েই ছবি প্রযোজনা করা হবে৷ কোন ছবি আগে শুরু হবে শিগগিরই এ বিষয়ে মহরতের মাধ্যমে বিস্তারিত জানানো হবে এমনটাই বলেন স্টার সিনেপ্লেক্সের কর্ণধার মাহবুবুর রহমান।

২০০৪ সালের ৮ অক্টোবর যাত্রা শুরু করে দেশের জনপ্রিয় সিনেথিয়েটার ‘স্টার সিনেপ্লেক্স’। সেই হিসেবে আজ পূর্ণ হলো ১৪ বছর। দীর্ঘ এই বছরগুলোতে হলিউডের ছবির পাশাপাশি দেশের ছবিও প্রদর্শন করে সিনেমা হলটি চলচ্চিত্র শিল্পকে সমৃদ্ধ করেছে। ছবিগুলোকেও পুরস্কার দিয়েছে স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ।

ব্যবসায়িকভাবে সাফল্য ও দর্শক প্রিয়তা পাওয়া ছবির মধ্যে রয়েছে শিকারি, মোল্লা বাড়ির বউ, দারুচিনি দ্বীপ, মনপুরা, থার্ড পারসন সিঙ্গুলার নম্বর, গেরিলা, চোরাবালি, প্রজাপতি, জিরো ডিগ্রী, ঢাকা অ্যাটাক, হৃদয়ের কথা, চন্দ্রগ্রহণ, আয়নাবাজি ও ভুবন মাঝি।

সবগুলো ছবির অভিনয় শিল্পী, নির্মাতা কিংবা প্রযোজক উপস্থিত থেকে পুরস্কার গ্রহণ করেন। পুরস্কার প্রদান করেন স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, চলচ্চিত্র অভিনেতা আকবর পাঠান ফারুক, গিয়াস উদ্দিন সেলিম, চঞ্চল চৌধুরী, মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ, অনিমেষ আইচ, ভাবনা, কনা, পূর্ণিমা, আরিফিন শুভ, জয়া আহসান, রোশান,পপি, শহিদুজ্জামান সেলিম, রেদওয়ান রনি প্রমুখ।

সূত্র : চ্যানেল আই অনলাইন


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

স্পটলাইট

Saltamami 2018 20 upcomming films of 2019
Coming Soon

[wordpress_social_login]

Shares