Select Page

‘নোনা জলের কাব্য’-এ ফরাসি প্রযোজক

‘নোনা জলের কাব্য’-এ ফরাসি প্রযোজক

২০১৬ সালে ভারতের ফিল্মবাজার প্রজেক্ট মার্কেটে নির্বাচিত দুই বাংলাদেশি চলচ্চিত্রের একটি রেজওয়ান শাহরিয়ার সুমিতের ‘নোনা জলের কাব্য’ (দ্য সল্ট ইন আওয়ার ওয়াটারস)। বাংলাদেশ সরকারের অনুদানের জন্যও চূড়ান্ত হয়েছে ছবিটি, পেয়েছে স্পাইক লি ফিল্ম প্রডাকশন ফান্ডও।

এবার আরো প্রযোজক যুক্ত হয়েছেন চলচ্চিত্রটির সঙ্গে। ফরাসি প্রযোজক ইলান জেরার আছেন সেই তালিকায়। তার প্যারিসভিত্তিক প্রতিষ্ঠান অসরাম ইন্টারন্যাশনাল ঢাকার মাই পিক্সেল স্টোরির সঙ্গে যৌথভাব প্রযোজনা করবে ছবিটি। মাই পিক্সেল স্টোরির প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক সুমিত নিজেই। জেরার ছাড়াও ‘নোনা জলের কাব্য’র প্রযোজকের তালিকায়। আরো আছেন জিজি ডিমেন্ট, যার প্রযোজিত স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি ‘গড অব লাভ’ ২০১১ সালে অস্কার পুরস্কার পায়।

জেরার প্রযোজিত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রের মধ্যে আছে ‘মার্চ অব দ্য পেঙ্গুইনস’, ‘গুডবাই বাফানা’, ‘লেবানন’, ‘হোয়েন ডে ব্রেকস’ ইত্যাদি।

‘নোনা জলের কাব্য’ বাংলাদেশের দক্ষিণের এক উপকূলীয় অঞ্চলের গল্প। এক ভাস্কর কাজের জন্য জনবিরল এক মাছ ধরার দ্বীপে পৌঁছেন।

কিন্তু স্থানীয় মানুষ আর প্রকৃতির কাছ থেকে বাধাপ্রাপ্ত হতে থাকেন। আগামী বছর সিনেমাটির শুটিং হওয়ার কথা।

নিউ ইয়র্কে পড়াশোনা করা সুমিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নিয়ে এর মধ্যেই বিভিন্ন দেশের চলচ্চিত্র উৎসবে গেছেন। প্রথম ছবি শেষ হওয়ার আগেই শুরু করেছেন দ্বিতীয়টির প্রস্তুতিও। পরের ছবি ঢাকার টেক দুনিয়া নিয়ে ‘আ নিউ প্রফেট’ এরই মধ্যে আলফ্রেড পি সোলান ফাউন্ডেশন থেকে এক লাখ ডলার প্রডাকশন অ্যাওয়ার্ড জিতেছে।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Coming Soon
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?

[wordpress_social_login]

Shares