Select Page

পুত্র এখন পয়সাওয়ালাঃ একটি অ-নার্গিস আক্তার চলচ্চিত্র

পুত্র এখন পয়সাওয়ালাঃ একটি অ-নার্গিস আক্তার চলচ্চিত্র

farah-ruma-bobita-putro-ekhon-poisha-wala

অবিশ্বাস করতে ইচ্ছে করে যে নার্গিস আক্তার পরিচালিত একটি সিনেমা দেখে হল থেকে বের হচ্ছি যেহেতু সিনেমার পোস্টারে ব্রান্ড হিসেবে তার নামটি মুদ্রিত; মেঘলা আকাশে’র সিকুয়্যাল “মেঘের কোলে রোদ“, “চার সতীনের ঘর” এর মত সাহসী ও বক্তব্যধর্মী চলচ্চিত্র নির্মানের মাধ্যমে তিনি যে ব্রান্ড ভ্যালু তৈরী করেছেন। আমার নিজের একটি ভ্রান্ত ধারনা যে বয়স বাড়লে মানুষের সৃজনশীলতা কমে যায়। জানিনা এই ছবিটি আমার সেই ধারনারই প্রকাশ কিনা, ব্যক্তিগত নার্গিস আক্তারকে আমার জানা নেই। কিন্তু অনেক পুরুষ নির্মাতার তুলনায় তার হাত যে শক্তিশালি তার প্রমাণ তিনি দিয়েছেন।

সে হিসেবে তার কাছ থাকে ভিন্নধর্মী কিছু আশা করে ছিলাম দীর্ঘদিন থেকেই। এই ছবির পাশাপাশি পৌষ মাস যায় পৌষ মাস আসে, আসেনা “পৌষ মাসের পিরিতি”। একটি ক্ষীণ আশা ছিল অনেকদিন পর একটি পূর্ণ বিনোদনের ছবি দেখব পুরনো আমেজে যদিও এখানে “ববিতার শেষ ছবি” একটি সস্তা প্রচারনা।

ছবির নামটি শুনে ছবির কাহিনী সম্পর্কে সবার পরিষ্কার ধারনা হয়ে যায় সেটা মূল বিষয় নয়। আচ্ছা শাবানা-আলমগীরের যুগে এরকম কাহিনী নিয়ে কয়টি ছবি নির্মিত হয়েছে? সঠিক সংখ্যাটি বলতে অনেক হিসেব করতে হবে। খোদ শাবনূরের আমলেও এরকম কাহিনী নিয়ে নির্মিত ছবির সংখ্যা কম নয়। সে দোষ নার্গিস আক্তারেরও নয়। আগে নির্মিত হয়েছে বলে এই কাহিনী এখন কালোপযোগী নয় এটা বললে ভুল হবে।  তবে ভুল তারা করেছেন সেই সব পুরাঘটিত বর্তমান চালু রেখে। সেইসব ল্যাকটা খিচুড়ি। কাচ্চি না হোক একটু ভুনা খিচুড়িও রাঁধতে পারলেন না এই বেলা?

এই ছবিতে নতুন বা ভালো কিছু কি দেখলাম? ঠিক মনে করতে পারছি না।  একটা ভালো কিছুও বলতে পারছি না বলে খারাপ লাগছে। ফারাহ রুমা অভেনত্রী কিংবা নায়িকা হিসেবে খারাপ নন। কিন্তু তাকে দিয়ে চিরায়ত ন্যাকামো করানো আর সংলাপের ধার না থাকায় একেবারেই ম্লান।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Coming Soon
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?

সাম্প্রতিক খবরাখবর

[wordpress_social_login]

Shares