Select Page

ফারুকীর নতুন সিনেমা ‘এ বার্নিং কোয়েশ্চেন’ও হবে ইংরেজিতে

ফারুকীর নতুন সিনেমা ‘এ বার্নিং কোয়েশ্চেন’ও হবে ইংরেজিতে

‘নো ল্যান্ডস ম্যান’র আরও একটি ইংরেজি ভাষার ছবি নির্মাণ করতে যাচ্ছেন মোস্তফা সরয়ার ফারুকী।  ‘এ বার্নিং কোয়েশ্চেন’ নামের এই ছবির ঘোষণা এসেছে ‘এশিয়ান প্রজেক্ট মার্কেট’ থেকে। সোমবার তাদের ওয়েব সাইটে চলতি বছরের নির্বাচিত ২০টি ছবির নাম ঘোষণা করে। সেখানেই এলো ‘এ বার্নিং কোয়েশ্চেন’-এর নাম।

বিষয়টি নিয়ে চ্যানেল আই অনলাইনকে ফারুকী বলেন, ‘এশিয়ান প্রজেক্ট মার্কেট’ এর মধ্য দিয়েই আমার দ্বিতীয় ইংরেজি ভাষার ছবিটি ‘এ বার্নিং কোয়েশ্চেন’ এর যাত্রা শুরু হলো।

নতুন এই ছবিটির পুরো আয়োজন, ভাষা, গল্প- সবই আমেরিকার। এ নিয়ে ফারুকী আরো বলেন, ইংরেজি ভাষায় নির্মিতব্য এটি আমার দ্বিতীয় ছবি, যার সমস্ত আয়োজনই হবে আমেরিকায়। ভাষা এবং গল্পের সেটিংও আমেরিকান। যে ছবিটি মেইনস্ট্রিম আমেরিকান বিষয় ডিল করবে।

পরপর দুটি ইংরেজি ছবি বানাচ্ছেন। অথচ বাংলাদেশের পরিচালক আপনি, বাংলা ভাষার ছবি নিয়ে কিছু ভাবছেন না? এমন প্রশ্নে প্রথম আলোকে ফারুকী বলেন,‘আমি ফিল্ম মেকার। যেকোনো ভাষাতেই ছবি করতে পারি, যদি সেই ছবির বিষয়টা বা চরিত্রগুলো আমাকে যথেষ্ট পরিমাণ নাড়া দেয়। এই ছবির গল্পটা আরেকটু বেশি আমেরিকান মেইন স্ট্রিম বিষয় নিয়ে নাড়াচাড়া করবে। ফলে আরেকটু অন্য রকম চরিত্র, লোকেশন নিয়ে কাজ করার সুযোগ পাচ্ছি, সে জন্য আমি আনন্দিত। আরও আনন্দিত আমার নো ল্যান্ডস ম্যান ছবির আমেরিকান প্রযোজক শ্রীহরি সাঠে এই ছবিতেও আমার সঙ্গে থাকছে বলে। বাংলা ভাষায় সিনেমা করা বিষয়ে আমি আসলে জানি না কী বলব বা কী বলা ঠিক হবে। শুধু এটুকু বলতে পারি, একজন ফিল্মমেকারের জীবন খুব লম্বা কিছু না। কয়েক দশকমাত্র। সেখানে পরপর দুটি ছবি বানিয়ে যদি তিন বছর সেন্সর বোর্ডের দরজায় পড়ে থাকতে হয়—এর চেয়ে বেদনার, অপচয়ের কিছু নাই। হয়তো আবারও বাংলা ভাষায় সিনেমা বানাব, যখন ঠিক সময় আসবে।’

ইংরেজি ভাষার এই ছবি নিয়ে আগামিতে ইউরোপ কিংবা অন্যান্য ফিল্ম মার্কেটে যাওয়ার ইচ্ছে রয়েছে কিনা জানতে চাইলে ফারুকী বলেন, ইচ্ছে আছে। আপাতত ছবিটি লঞ্চ করলাম। আসতে আসতে ছবির কাজ এগুবে।

‘নো ল্যান্ডস ম্যান’ দিয়েই ফারুকীর চমকের শুরু। যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া ও ভারতে চিত্রায়িত এই ছবিতে কাজ করছেন নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী, তাহসান খানসহ অস্ট্রেলিয়ান অভিনেত্রী মেগান মিশেল। সর্বশেষ ভারতীয় সংগীত পরিচালক এ আর রহমানকে যুক্ত করেও যথেষ্ট চমক দেখিয়েছেন তিনি। এই ছবিতে সহপ্রযোজক হিসেবে আছেন নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী, ইমপ্রেস টেলিফিল্ম, স্কয়ার গ্রুপের অঞ্জন চৌধুরী, নুসরাত ইমরোজ তিশা, আমেরিকান প্রযোজক শ্রীহরি সাঠে ও বঙ্গবিডি।

এদিকে বছর দেড়েক আগেই ‘শনিবার বিকেল’ নামের একটি ছবির কাজ শেষ করলেও সেন্সর বোর্ড ছবিটি মুক্তির অনুমতি দেয়নি।স্যাটারডে আফটার নুন বা শনিবার বিকেল ছবিটি এখনো মুক্তির কোনো খবর নেই। অন্যদিকে নো ল্যান্ডস ম্যান সম্পাদনা চলছে। এর মধ্যে আরেকটা ছবির চিন্তা কেন? ‘আশা করছি নো ল্যান্ডস ম্যান সিনেমাটা আগামী বছর দর্শকের কাছে পৌঁছাবে! তারপর কী নিয়ে কাজ করব, সেটা জানা থাকাটা আমার জন্য দরকার! আর আমি সব সময়ই একটা কাজ করতে করতেই পরের কাজটা নিয়ে ভাবি! আমার ধারণা, বেশির ভাগ ফিল্মমেকারই তাই করে!’ বললেন ফারুকী।

আ বার্নিং কোশ্চেন ছবির কাস্টিং নিয়ে কিছু ভেবেছেন কি? জবাবে ফারুকী বলেন, ‘এখনো তেমন কিছু ভাবিনি। তবে বাংলাদেশ থেকে একজন থাকবেন। বাকিরা দেশের বাইরের, এখন পর্যন্ত এভাবে মনস্থির করেছি।’


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Coming Soon
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?

[wordpress_social_login]

Shares