Select Page

‘ফিরে এসো বেহুলা’ এবার টিভিতে

‘ফিরে এসো বেহুলা’ এবার টিভিতে

তানিম নূর পরিচালিত ‘ফিরে এসো বেহুলা’র শুটিং শেষ হয় ২০০৯ সালে,  কিন্তু প্রিমিয়ার হতে হতে সেই ২০১২ সাল। ওই বছর জানুয়ারিতে ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে চলচ্চিত্রটি প্রদর্শিত হয়। এরপর ২০ জানুয়ারি মুক্তি পায় বলাকা সিনেমা হলে। এর অর্ধযুগ পর এই ঈদুল আজহায় ওয়ার্ল্ড টিভি প্রিমিয়ার হতে যাচ্ছে আলোচিত ছবিটির।

চ্যানেল আই অনলাইন সূত্রে জানা যায়, ‘ফিরে এসো বেহুলা’র ওয়ার্ল্ড টিভি প্রিমিয়ার করতে চলেছে চ্যানেল আইতে ঈদের পঞ্চম দিন সকাল সোয়া ১০টায়।

‌‘ফিরে এসো বেহুলা’য় অভিনয় করেছিলেন হুমায়ুন ফরীদি, জয়া আহসান, মামুনুর রশিদ, রাইসুল ইসলাম আসাদ, জয়ন্ত চ্যাটার্জী, তৌকীর আহমেদ, শতাব্দী ওয়াদুদ ও ইন্তেখাব দিনার।

সম্প্রতি নির্মাতা এক সাক্ষাৎকারে হুমায়ূন ফরীদির পারিশ্রমিক নিয়ে বলছিলেন। তার ভাষ্য, ‘উনি খুব রসিক মানুষ ছিলেন। এতো হিউমার উনার! সব কিছু নিয়ে মজা করার সহজাত অভ্যাস ছিলো তার। তো শুটিং যখন করতাম তিনি মজা করে আমাকে বলতেন, কি মিয়া! টাকা পয়সা দিবা না! প্রায় প্রতিদিন তিনি এমনটা করতেন। আমিও বলতাম, ফরীদি ভাই, এইতো দিয়ে দিবো। শুটিং শেষ হওয়ার আগেই দিয়ে দিবো! কিন্তু যেদিন শুটিংয়ের শেষ দিন, সেদিন তিনি আমাকে বললেন, কি মিয়া, শুটিংতো শেষ। পয়সাতো দিলানা? আমি বললাম, দিচ্ছি ফরীদি ভাই, পয়সা রেডি করে রাখছি। তিনি আমাকে বললেন, নাহ! তুমি আমাকে এক প্যাকেট বেনসন লাইট দাও।’

তবে ‘ফিরে এসো বেহুলা’ এ অভিনেতার দেখা হয়নি। এ প্রসঙ্গে তানিম বলেন, ‘২০১২ সালের জানুয়ারিতে ছবিটির প্রিমিয়ার হয়। কিন্তু তিনি দেখতে আসতে পারেননি। আমাকে বলেছিলেন ডিভিডি পাঠিয়ে দিতে। কিন্তু এরপরেতো তিনি অসুস্থই হয়ে যান। ২০১২ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি তিনি মারা যান।’

এ সিনেমার দীর্ঘ বিরতির পর সম্প্রতি তানিম নূর শেষ করেছেন ‘স্বল্পদৈর্ঘ্যে দীর্ঘ যাত্রা’ স্লোগানে তরুণ ১১ নির্মাতাকে নিয়ে ইমপ্রেস টেলিফিল্মের আলোচিত অমনিবাস চলচ্চিত্র নির্মাণের প্রজেক্ট ‘ইতি তোমারই ঢাকা’।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Coming Soon
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?

সাম্প্রতিক খবরাখবর

[wordpress_social_login]

Shares