Select Page

যৌথ ‘প্রতারণা’ বন্ধের দাবি শিল্পীদের

যৌথ ‘প্রতারণা’ বন্ধের দাবি শিল্পীদের

রাস্তা বন্ধ করে চলচ্চিত্রশিল্পী ও কলাকুশলীরা যৌথ প্রযোজনার নামে ছবিতে ‘প্রতারণা’ বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।  রোববার দুপুর ১২টার দিকে ঢাকার এফডিসির সামনের রাস্তায় একত্র হয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্রশিল্পী সমিতি ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির নেতৃবৃন্দ ও সদস্যরা।  খবর প্রথম আলো।

আন্দোলনকারী শিল্পী ও কলাকুশলীদের দাবি, কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যৌথ প্রযোজনায় যেসব সিনেমা নির্মিত হচ্ছে সেসব ক্ষেত্রে কোনো নিয়ম মানা হচ্ছে না। এসব সিনেমায় থাকছে না দুই দেশের শিল্পী আর কলাকুশলীদের সমান অংশগ্রহণ। যৌথ প্রযোজনার নামে এভাবে ছবি নির্মাণের বিষয়টিকে তাই তারা ‘প্রতারণা’ বলছেন।

সম্প্রতি বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘বস-২’ ছবিতে শিল্পী ও কলাকুশলীদের অংশগ্রহণ ঠিকভাবে না হওয়ায় যৌথ প্রযোজনা বিষয়ক প্রিভিউ কমিটি একটি আপত্তিপত্র দেয় তথ্য মন্ত্রণালয়কে। পরে বাংলাদেশি প্রযোজকের অনুরোধে মন্ত্রণালয় বিষয়টি পুনর্বিবেচনার জন্য বলে কমিটিকে। এরপরই গত বৃহস্পতিবার অনাপত্তি জানায় প্রিভিউ কমিটি। এখন ছবিটি সেন্সর ছাড়পত্রের অপেক্ষায় আছে। সেখান থেকে ছাড়পত্র পেলেই ছবিটি প্রদর্শনে আর কোনো বাধা থাকবে না।

তবে কোনো ধরনের অনিয়ম নিয়ে ‘বস-২’ ছবিটি যেন মুক্তি না পায়, সে জন্যই চলচ্চিত্রের বিভিন্ন সংগঠনের আগের ঘোষণা অনুযায়ী আজ বিক্ষোভ কর্মসূচি করে। বিক্ষোভ কর্মসূচিতে উপস্থিত শিল্পীদের মধ্যে ছিলেন নায়ক ফারুক, রিয়াজ, বাপ্পী, সাইমন, ইমন, জায়েদ খান, খল চরিত্রের অভিনেতা মিশা সওদাগর, নায়িকা অঞ্জনা, পপি, পরী মনি, মৌমিতা মৌ, নিঝুম রুবিনাসহ আরও অনেকে। পরিচালকদের মধ্যে অংশ নেন মুশফিকুর রহমান গুলজার, মালেক আফসারী, বদিউল আলম খোকন প্রমুখ।

ভারতের জিৎ ও শুভশ্রী অভিনীত ‘বস-২’ সিনেমায় বাংলাদেশ থেকে অভিনয় করেছেন নুসরাত ফারিয়া। বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে প্রযোজনা করেছে কলকাতার জিতস ফিল্মওয়ার্কস প্রাইভেট লিমিটেড।


মন্তব্য করুন

Shares