Select Page

শাকিব এত স্বার্থপর!

শাকিব এত স্বার্থপর!

আগে একেক ঈদে শাকিব খানের ৫-৬টি ছবি মুক্তি পেয়েছে। সেই সময় একাধিক সিনেমা অসফল হলেও নায়ক কোনো মন্তব্য করেননি। অথচ ভারতীয় লগ্নির সিনেমা বা নিজের প্রযোজনার সিনেমা মুক্তি পেলে অন্য প্রযোজকদের সহ্যই করতে পারেন না যেন! চেষ্টা করেন সেইসব সিনেমা যেন মুক্তি না পায়।

এবার ‘নোলক’ সিনেমার ক্ষেত্রে একই ঘটনা ঘটছে। কারণ ঈদে মাঠে নামছে শাকিব প্রযোজিত ও মালেক আফসারী পরিচালিত ‘পাসওয়ার্ড’। যদিও অনেকে বলছে, ঈদে দুটি ছবি মুক্তি পেলে ক্ষতির আশঙ্কা নেই।

প্রথম আলো এক প্রতিবেদনে জানায়, শাকিব খান চান, এই ঈদে ‘নোলক’ নয়, শুধু ‘পাসওয়ার্ড’ মুক্তি পাক। চার বছর পর নিজের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাকিব খান ফিল্মস থেকে তৈরি হচ্ছে ছবিটি। তাই ‘পাসওয়ার্ড’ ছবি ছাড়া আর কোনো ছবি নিয়ে তিনি কথা বলছেন না। বরং শোনা যাচ্ছে, ‘নোলক’ ছবির মুক্তির সরাসরি বিরোধিতা করছেন।

কিন্তু মাঠে ছেড়ে দিতে রাজি নন ‘নোলক’ ছবির প্রযোজক সাকিব সনেট।

এই প্রসঙ্গে শাকিব বলেন, ‘যদি “নোলক” ঈদে মুক্তি দেওয়া হয়, তাহলে সেটা হবে আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত। কারণ, এর আগে ঈদে “শিকারি” ছবির সঙ্গে আমার আরও দুটি ছবি “মেন্টাল” ও “সম্রাট” এবং “নবাব” ছবির সঙ্গে আমার “রাজনীতি” মুক্তি না দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছিলাম। কিন্তু কোনো প্রযোজক শোনেননি। ফলে ছবিগুলো ছবি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। “শিকারি” আর “নবাব” কিন্তু সুপার হিট। তখন নিজের অভিজ্ঞতা থেকেই তাঁদের অনুরোধ করেছিলাম।’

এর মধ্যে শিকারি ও নবাব নিয়ে শাকিব সরব থাকলেও অন্য সিনেমাগুলো নিয়ে একদমই নীরব ছিলেন। অথচ তার নামের উপরই বাজি রেখেছিলেন প্রযোজকরা।

শাকিব খান আরও বলেন, ‘আমি জানি, আমার অভিনীত কোন ছবির মধ্যে কী আছে। কোনটি উৎসবে মুক্তি পাওয়ার যোগ্য। তাই আমি বলব, “নোলক” এখন মুক্তি না দেওয়াই ভালো। যদি মুক্তি দেয়, তাহলে ছোট কিছু প্রেক্ষাগৃহ পাবে। তাতে কোনো লাভ হবে?’

এদিকে ‘নোলক’ ছবির পক্ষের বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপ, পেজ, ইউটিউবার আর ব্লগারদের নিয়ে একটি দল তৈরি করে প্রচারণা শুরু করেছে ছবির নায়িকা ববি। তিনি বলেন, ‘শাকিব খান তার কোনো ছবিতেই সেভাবে প্রচারে থাকেন না। “পাসওয়ার্ড” তার নিজের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের ছবি। তাই নিজের ছবি নিয়ে তাঁর কিছুটা উত্তেজনা আছে।’

ববি আরও বলেন, ‘“নোলক” অবশ্যই উৎসবের ছবি। মৌলিক গল্পের বড় বাজেটের ছবি। ঈদে মুক্তি না দিলে প্রযোজক বড় অঙ্কের আর্থিক ক্ষতির মুখোমুখি হবেন। ঈদ ছাড়া অন্য কোনো সময় এই অর্থ তুলে আনা সম্ভব না।’

এদিকে প্রযোজক সাকিব সনেট বলেন, ‘“নোলক” তো শাকিব খানের আরেকটি ছবি। কেন যে সে সরাসরি মুক্তির বিরোধিতা করছেন, বুঝতে পারছি না। তিনি এই ছবির কোনো প্রচারণায়ও অংশ নিচ্ছেন না। এর আগে ঈদে শাকিব খানের একসঙ্গে তিনটি ছবি মুক্তি পেয়েছে। এখন প্রেক্ষাগৃহ বাঁচাতে বেশি বেশি ছবি লাগবে। তাতে প্রযোজকও বাঁচবে, প্রেক্ষাগৃহও বাঁচবে।’

আরও শোনা যাচ্ছে, শাকিবের আপত্তির কারণে ঈদের বাজার থেকে সরে গেছে আরেক সিনেমা ‘শাহেনশাহ’। সেই সিনেমার প্রযোজক কলকাতার ছবির এনে এই নায়কের সঙ্গে টেক্কা দিতে যাচ্ছেন।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

স্পটলাইট

Saltamami 2018 20 upcomming films of 2019
Coming Soon
বাংলা সিনেমা ২০১৯ সালে কেমন যাবে?
বাংলা সিনেমা ২০১৯ সালে কেমন যাবে?
বাংলা সিনেমা ২০১৯ সালে কেমন যাবে?

[wordpress_social_login]

Shares