Select Page

সানী-ফেরদৌস বনাম মিশা-জায়েদ

সানী-ফেরদৌস বনাম মিশা-জায়েদ

omar-sani-misha-saudagor

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির চলতি কমিটির (২০১৫-১৬) মেয়াদ শেষ হবে ২ ফেব্রুয়ারি। নিয়ম অনুযায়ী নির্বাচিত কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ার নব্বই দিনের মধ্যে শিল্পী সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

এরইমধ্যে নতুন কমিটি ঘোষণার আভাস দিয়েছেন সমিতির নেতারা। প্রতিদ্বন্দ্বিতার জোর আভাস দিয়ে যাচ্ছে ওমর সানীফেরদৌস বনাম মিশা সওদাগরজায়েদ খান কমিটি।

ওমর সানী বলেন, শিল্পী সমিতির এবারের নির্বাচনে আমি সভাপতি পদে এবং ফেরদৌস সাধারণ সম্পাদক পদে লড়বেন। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রকে এগিয়ে নিতে শিল্পী সমিতির ভূমিকা অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

ferdous-jayed

ফেরদৌস বলেন, আমি খুবই আনন্দিত। চলচ্চিত্রে কাজ করার পাশাপাশি এবার সাধারণ সম্পাদক পদে শিল্পী সমিতির নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি। আমি ধন্যবাদ দিতে চাই ওমর সানী ভাইকে, তিনি আমাকে নিয়ে প্যানেল করেছেন।

এদিকে মিশা সওদাগর বলেন, শিল্পীদের মধ্যে বিভিন্ন গোত্রের লোক আছে যাদের অনেকেই চান আমি নির্বাচনে অংশ নেই এবং তাদের সকলেরই চাওয়া এক্ষেত্রে জায়েদ খান যেন আমার সঙ্গে থাকে। কারণ সকলেই দেখেছেন যে, জায়েদ চলচ্চিত্র শিল্পের জন্য সবসময় কাজ করছেন। শিল্পীদের কোনো কিছু হলে বা চলচ্চিত্র পাইরেসি নিয়েও অনেক কাজ করেছেন তিনি। তাই এবার জায়েদকে নিয়ে নির্বাচন করছি।

তিনি আরো বলেন, সানি প্রেসিডেন্ট হওয়া মানেই আমি হওয়া। কারণ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি একটি অলাভজনক এবং সেবামূলক প্রতিষ্ঠান। শিল্পীরা আমাকে না দিলেও আমার বন্ধুকে ভোট দিক এটাই চাওয়া থাকবে। এটা কোনো বিষয় না। দুই বন্ধু আমরা এখন সিনিয়র হয়েছি, শিল্পীরা ফুলের মালা যাকেই দিক না কেনো আলহামদুলিল্লাহ্ বলব। আর এটা তো সংসদ নির্বাচন না। কেউ না কেউ তো নির্বাচন করবে এটাই স্বাভাবিক।

মানবজমিন অবলম্বনে


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Coming Soon
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?

[wordpress_social_login]

Shares