Select Page

কেন দেখবেন ঈদের ৩ সিনেমা

কেন দেখবেন ঈদের ৩ সিনেমা

film_bg_627409802মাঝের খরা কাটিয়ে বাংলা চলচ্চিত্র ইতিবাচক দিকে মোড় নিচ্ছে। একঝাঁক চলচ্চিত্র কর্মীর পরিশ্রমের বিনিময়ে মানুষ হলমুখী হচ্ছেন। সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে গল্প ও প্রযুক্তিতে পরিবর্তন এসেছে।

এবারের ঈদে মুক্তি পাচ্ছে বড় বাজেটের তিনটি আলোচিত চলচ্চিত্র। শাকিবঅপু জুটির লাভ ম্যারেজ’, মাহি অভিনীত ‘অগ্নি ২’ এবং ইমনমিম অভিনীত পদ্ম পাতার জল’। আসুন জেনে নিই এ সব সিনেমার আকর্ষণীয় দিক—

কেন দেখবেন ‘লাভ ম্যারেজ’

শাহীনসুমন পরিচালিত ‘লাভ ম্যারেজ’ নির্মিত হয়েছে হার্টবিট প্রোডাকশনের ব্যানারে। তাপসী ঠাকুর প্রযোজিত রোমান্টিক অ্যাকশন এই ছবির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাকিব খান, অপু বিশ্বাস ও মিশা সওদাগর। ছবিটি ১২২টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেল।

শাকিব-অপু জুটি : বাংলা ছবি যখন নিয়মিত ধ্বংসের দিকে যাচ্ছিল, ঠিক সেই সময়টাতে শাকিব-অপু জুটি আশার আলো হয়ে এসেছেন। সেই সময় থেকেই শাকিব-অপু জুটি মানেই একটা অসাধারণ কিছু হিসেবে বিশ্বাস করতে শুরু করে দর্শক। তাছাড়া প্রযোজক, পরিচালক ও হল মালিকদের চাহিদার শীর্ষে এখনো শাকিব-অপু জুটি।

তাদের পর্দার রসায়ন খুব ভাল। শাকিব খান এর বেশির ভাগ ছবির নায়িকা কিন্তু অপু বিশ্বাস না। বেশির ভাগ হিট ছবির নায়িকা অপু বিশ্বাস। শাকিব খান আর অপু বিশ্বাস জুটি মানেই প্রযোজক নিশ্চিন্তে বসে থাকতে পারে। এই জুটির ছবি সাধারণত ফ্লপ হয় না। আর শাকিব খানের এই শক্ত ক্যারিয়ার গড়েছেন অপু বিশ্বাসের হাতে হাত রেখেই।

মূলধারার ছবি : আপনি যদি মেইন স্ট্রিম ছবির ফ্যান হয়ে থাকেন তাহলে এই ছবি আপনার জন্যই নির্মাণ করা হয়েছে।

যেহেতু নাম ‘লাভ ম্যারেজ’, বুঝতেই পারছেন সম্পূর্ণ প্রেমের একটি চলচ্চিত্র। প্রেমের প্রকাশ তো বিভিন্নভাবে হয়, আমার এ চলচ্চিত্রেও প্রেমের ক্ষেত্রে এক ভিন্নতা এসেছে। প্রেমের পরিণতি কোন এক সময়ে বিয়ের মধ্য দিয়েই ঘটে। চলচ্চিত্রের দেখা যাবে ঢাকাইয়া কুট্টির ছেলে শাকিব। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজীতে মাস্টার্স করা এই ছেলেটি কখনই নিজের পড়ালেখা নিয়ে বড়াই করে না। উচ্চ শিক্ষিত হয়েও বাপ-দাদার ঐতিহ্যকে ধারণ করে চলে। কথা বলে ঢাকাইয়া ভাষায়। সে সিদ্ধান্ত নেয়, প্রেম না করে বিয়ে করবে না। সে যাকে জীবন সঙ্গিনী করবে তার সম্পর্কে ভালভাবে না জেনে, না বুঝে সে তাকে বিয়ে করবে না। ঢাকা শহরের নাম করা ডনের মেয়ে অপু থাকত অস্ট্রেলিয়া। সে ঢাকায় এলে শাকিব তার সঙ্গে প্রেম করতে ব্যর্থ হয়। অপু প্রথমে ভুল বুঝে ছেলেটির ব্যবহারে। অপুর ধারণা ছেলেটি অল্প শিক্ষিত, অভদ্র। কিন্তু অপুর ভুল যখন ভাঙ্গে তখন চলে গেছে বহুদূর। প্রেমে জয় এলেও বাধা বিয়েতে। পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করবে নাকি অন্য কিছু। মিলন তো হতেই হবে। এভাবেই চলচ্চিত্রটির গল্প আবর্তিত।

11539583_480945882055547_8414379040206803483_n

কেন দেখবেন ‘অগ্নি টু’

ইফতেখার চৌধুরী পরিচালিত ‘অগ্নি টু’ নির্মিত হয়েছে জাজ মাল্টিমিডিয়া ও এসকে প্রোডাকশনের যৌথ প্রযোজনায়। অ্যাকশনধর্মী এই ছবির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন ঢাকার মাহিয়া মাহি, অমিত হাসান, কলকাতার ওম ও মুম্বইয়ের আশীষ বিদ্যার্থী। এ ছবিটি ১০৮টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেল।

অগ্নি ও মাহিয়া মাহি : এটা ‘অগ্নি’ মুভির সিকুয়াল। ‘অগ্নি’ যেখানে শেষ সেখান থেকেই শুরু ‘অগ্নি ২’। যাদের কাছে ‘অগ্নি’ ছবিটি ভালো লেগেছিল খুব স্বাভাবিকভাবেই তারা ‘অগ্নি ২’ দেখতে যাবেন। তাছাড়াও আরও একটা কারণ মাহিয়া মাহি। অনেকে আরিফিন শুভকে মিস করলেও মাহির জন্য যাবেন।

মাহিয়া মাহি বর্তমান সময়ে ইয়াং জেনারেশানটাকে ধরতে পেরেছে। যার ফলাফল আমরা দেখতে পেয়েছি ম্যাজিক মামনির সাফল্যে।

এসকে মুভিজ ইন্টারন্যাশনাল ও জাজ মাল্টিমিডিয়া : বাংলাদেশের দর্শকদের কাছে যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্রের একটা আলাদা চাহিদা সমসময়েই ছিল এবং এখনো আছে। দুই বাংলার ইতিহাসে অগ্নি ২’ সবচয়ে বেশি বাজেট সিনেমার দাবি করা হচ্ছে। বেশি বাজেট দরকার হয়েছে কারন এ ছবিতে প্রচুর আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। তাছাড়া এ্যাকশন ঘরানার ছবিতে খরচ বেশিই হয়। জাজের ছবি মানেই বেশ ঝকঝকে এবং কিছুটা আলাদা।

প্রমোশন ও মার্কেটিং : ‘অগ্নি ২’ এগিয়ে আছে প্রমোশনে। ব্যাপক প্রমোশন ও মার্কেটিং করা হয়েছে এ ছবির। বর্তমান সময়ে এ ছবির নাম জানে না এ রকম সিনে দর্শক পাওয়া যাবে। মাহিয়া মাহির স্ক্যান্ডাল, তারপর জাজ থেকে চলে যাওয়া ও অবশেষে ফিরে আসা- সব ঘটনাই দর্শকের মনে আগ্রহের সৃষ্টি করেছে। তাছাড়া এই ছবির আইটেম গান মাজিক মামনি ও এ্যাকশন নির্ভর ট্রেইলার সবার কাছে পৌঁছে দিতে পেরেছে জাজ।

1_252081

কেন দেখবেন ‘পদ্মপাতার জল’

তন্ময় তানসেন পরিচালিত ‘পদ্মপাতার জল’ নির্মিত হয়েছে ট্রাইপড স্টুডিওর ব্যানারে। অন্যরকম প্রেমের গল্পের এ ছবির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন ইমন, বিদ্যা সিনহা মিম, তারিক আনাম খান, নিমা রহমান ও অমিত হাসান।

নির্মাণে সময় লেগেছে আড়াই বছর : বিষয়টা মোটেও এরকম নয় যে এটা এতদিন সেন্সরে অথবা বাজেটের অভাবে আটকে ছিল। আসলে এ ছবি অনেক বড় ক্যানভাসে তৈরি। সেই কাজটাই সুন্দরভাবে সামলাতে গিয়ে লেগেছে এত সময়।

আজ থেকে ১০০ বছর আগের একটি ঘটনা নিয়ে ‘পদ্ম পাতার জল’ ছবির প্রেক্ষাপট গড়ে উঠেছে। ছবির গল্পে একজন বাঈজির সঙ্গে সম্ভ্রান্ত পরিবারের ছেলের প্রেম। বর্তমানে এমন পুরোনো কাহিনী নিয়ে চলচিত্র নির্মাণ হয় না। তাতে প্রয়োজন হয় দক্ষতা ও প্রচুর আয়োজন।

চরিত্রায়ন : এ ছবির মুল দুই চরিত্র একজন কবি অন্যজন বাঈজি। কবির চরিত্রে অভিনয় করেছেন ইমন। যাকে দেখা যাবে পুরো ছবিতেই কবিতার মাধ্যমে কথা বলতে। ইমনের কন্ঠ বেশ শ্রুতিমধুর। এবং কবি হিসেবে এই ছবিতে ইমনকে মানিয়েছে বেশ।

বাঈজি চরিত্রে অভিনয় করেছে বিদ্যা সিনহা মিম। মিম ক্লাসিক্যাল নৃত্যে পারদর্শীতা রয়েছে। দু’একটা ভিডিও দেখে বোঝা যায় চরিত্রায়ন সার্থক হয়েছে।

এছাড়া অন্য চরিত্রগুলোতে থাকছেন অমিত হাসান, তারিক আনাম খান, নিমা রহমান, মীরাক্কেল খ্যাত আবু হেনা রনি, রোমানা ও স্বর্ণা প্রমুখ। তারিক আনামের অভিনয় দক্ষতা সকলেরই সেটা জানা আছে। আবু হেনা রনিও দর্শক আগ্রহের সৃষ্টি করেছেন।

গান : গান ভালো হলে চলচ্চিত্র সফল হয়। চলচ্চিত্রটিতে গান রয়েছে ৬টি। সুর করেছেন আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল, এসআই টুটুল, অর্ণব, অদিত এবং ব্যান্ডদল ‘শিরোনামহীন’ ও ‘চিরকুট’। কণ্ঠ দিয়েছেন অর্ণব, কনা, আসিফ আকবর, ন্যান্সি, অদিত, পড়শি, অন্বেষা দত্ত, এলিটা করিম, শোয়েব ও শিরোনামহীনের তুহিন। ইতিমধ্যে কয়েকটি গান রিলিজ পেয়েছে ইউটিউবে। গানগুলো ভালো সাড়াও পেয়েছে। আবহ সংগীতে রয়েছে এক বিশেষ চমক। জনপ্রিয় ব্যান্ড চিরকুট এই ছবির আবহ সংগীত নির্মাণের কাজ করেছে। এর আগে কখনোই কোনো বাণিজ্যিক ছবিতে আবহ সংগীতে কাজ করেনি এ সময়ের জনপ্রিয় ব্যান্ডটি।

 

 


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Coming Soon
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?

Shares