Select Page

‘এদেশে পুঁজি ফেরতের আশা করতে পারি, কিন্তু কলকাতায় সেটা নেই’

‘এদেশে পুঁজি ফেরতের আশা করতে পারি, কিন্তু কলকাতায় সেটা নেই’

ভারতীয় চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান এসকে মুভিজ বাংলাদেশে একক প্রযোজনা করতে যাচ্ছে। আর এর জন্য বহুবছর পর তারা ফিল্মপাড়া কাকরাইলে অফিস নিয়েছে। বর্তমানে শাপলা মিডিয়ার অফিস ব্যবহার করছে। বাংলাদেশে তাদের প্রযোজনা ও পরিবেশনার বিষয়টি দেখভাল করছেন চলচ্চিত্র প্রযোজক লিটন। খবর পরিবর্তন।

বাংলাদেশে নতুন করে অফিস নেওয়ার বিষয়ে এসকের কর্ণধার অশোক ধানুকা বলেন, ‘হ্যাঁ অফিস নিচ্ছি। বাংলাদেশের সাথে তো আমার সম্পর্ক কয়েক যুগের। এতদিন যৌথ প্রযোজনা করলেও বর্তমানে নিয়ম-কানুন বেশ কড়া। তাই আমরা এদেশের সিনেমাই প্রযোজনা করতে চাই।’

সেক্ষেত্রে শিল্পী বাংলাদেশের থাকলেও আপাতত অধিকাংশ পরিচালক ও কলা-কুশলী ভারতীয় থাকবে বলে জানান। তিনি বলেন, ‘এ কথা অস্বীকার করার উপায় নেই যে বাংলা সিনেমার বাজার বাংলাদেশে বেশি এ মুহুর্তে। আর শাকিব খান থাকলে তো কোন কথা নেই।’

‘এ দেশে আমরা পুঁজি ফেরত পাবার আশা করতে পারি। কিন্তু কলকাতায় এখন সেটা নেই। তাই আমরা এখানে ব্যবসা করার জন্য অনুমতি নিয়েছি।’

অশোক ধানুকা তার প্রথম সিনেমায় শাকিব খানের উপর বাজি ধরতে চান। কিন্তু পরিচালক বা অন্য শিল্পী কারা থাকছেন তা এখনো ঠিক হয়নি বলে জানালেন।

এসকে মুভিজের বাংলাদেশ যাত্রার শুরুটা হয়েছিলো কিংবদন্তি নায়িকা শাবানার এস এস প্রডাকশনের মাধ্যমে। দুটি প্রতিষ্ঠান মিলে নির্মিত ‘স্বামী কেন আসামী’ ১৯৯৭ সালে মুক্তি পায়। সিনেমাটি সে সময় বাংলাদেশ ভারত দুজায়গাতেই সফলতা পায়।

২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠানটি আবারো বাংলাদেশে ঢুকে। পরিচালক অনন্য মামুনের ‘অ্যাকশন-কাট এন্টারটেইনমেন্ট’র সাথে যৌথ প্রযোজনায় মুক্তি দেয় ‘আমি শুধু চেয়েছি তোমায়’। এর পরের বছর তারা গাঁটছাড়া বাঁধে জাজ মাল্টিমিডিয়ার সাথে। দুটি প্রতিষ্ঠান মিলে নির্মাণ করে ‘অগ্নি ২’, ‘রোমিও ভার্সেস জুলিয়েট’, ‘অঙ্গার’, ‘শিকারী’, ‘নবাব’র মত সিনেমা।

জাজের সাথে তাদের তিন বছর মেয়াদি চুক্তি শেষ হয়ত গত বছর। তখন তারা আবার ‘অ্যাকশন কাট এন্টারটেইনমেন্ট’র সাথে ‘চালবাজ’ যৌথ প্রযোজনায় মুক্তির চেষ্টা করে। কিন্তু প্রিভিউ কমিটির অনুমোদন না পাওয়ায় তারা সিনেমাটি বাংলাদেশে ‘সাফটা’ চুক্তির মাধ্যমে মুক্তি দেয়। মুক্তির অপেক্ষায় আছে যৌথ প্রযোজনার ‘তুই শুধু আমার’।


মন্তব্য করুন

Shares