Select Page

জামিন পেলেন অনন্য মামুন ও শাহীন মৃধা

জামিন পেলেন অনন্য মামুন ও শাহীন মৃধা

পরিচালক অনন্য মামুন ও অভিনেতা শাহিন মৃধার জামিনের আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত। ‘নবাব এলএলবি’ চলচ্চিত্রে পুলিশকে নিয়ে অশালীন সংলাপের অভিযোগে পর্নোগ্রাফি আইনে পুলিশের দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তার করা হয় তাদের।

সারা বাংলা ডটনেট জানায়, সোমবার শুনানি শেষে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শাহিনুর রহমান জামিনের আদেশ দেন।

অনন্য মামুন ও শাহীন মৃধার পক্ষে জামিন শুনানি করেন সাইদুর রহমান মানিক। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে জামিনের বিরোধীতা করা হয়। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিনের আদেশ দেন।

গত ২৪ ডিসেম্বর দিবাগত রাতে অনন্য মামুন ও শাহীন মৃধাকে গ্রেফতার করা হয়। ২৫ ডিসেম্বর দুপুরে তাদের আদালতে হাজির করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ।

আদালতে তদন্ত কর্মকর্তা রমনা থানায় দায়ের করা মামলার দুই আসামিকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। ঢাকা মহানগর হাকিম মইনুল ইসলাম তাদের কারাগারে আটক রাখার আবেদন মঞ্জুর করেন।

সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া ‘নবাব এলএলবি’ ছবিতে পুলিশকে বিকৃতভাবে উপস্থাপনের অভিযোগে ২৪ ডিসেম্বর দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ছবির পরিচালক অনন্য মামুনকে মিরপুরের বাসা থেকে আটক করে ডিবি। পরে তাকে রমনা থানায় দায়ের করা পর্নগ্রাফি আইনে দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়।

অনন্য মামুন পরিচালিত ‘নবাব এলএলবি’ চলচ্চিত্রটি কিছুদিন আগে মুক্তি পেয়েছে। ওই চলচ্চিত্রের একটি দৃশ্যে ধর্ষণের শিকার এক নারীকে থানায় মামলা দাখিল করার জন্য যেতে দেখা যায়। ওই দৃশ্যে পুলিশের একজন এসআই (অভিনয় করেছেন শাহীন মৃধা) ওই নারীকে ধর্ষণ বিষয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন করেন। এ নিয়ে আপত্তি জানিয়েছে পুলিশ।

ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগের সাইবার ক্রাইম ইউনিটের পরিদর্শক মো. নসিরুল আমিন সারাবাংলাকে জানান, রাজধানীর রমনা থানায় পর্নগ্রাফি আইনে অনন্য মামুন ও শাহীন মৃধার বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। মামলা নম্বর ১০১। মামলার বাদী ডিএমপি সাইবার ক্রাইম ইউনিটের পুলিশ পরিদর্শক মো. নসিরুল আমিন।

‘নবাব এলএলবি’ চলচ্চিত্রটি ‘আই থিয়েটার’ নামক একটি অ্যাপে মুক্তি পায়। ছবিটির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাকিব খান, মাহিয়া মাহি, অর্চিতা স্পর্শিয়া ও শহীদুজ্জামান সেলিম। প্রযোজনা করেছে সেলিব্রেটি প্রোডাকশন।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Shares