Select Page

জাহিদ ও তিশা ধর্মপ্রাণ মুসলমানের চরিত্রে অভিনয় করেছেন : ফারুকী

জাহিদ ও তিশা ধর্মপ্রাণ মুসলমানের চরিত্রে অভিনয় করেছেন : ফারুকী

# সেন্সর ছাড়পত্র স্থগিত হয়েছে ‘শনিবার বিকেল’ সিনেমার
# নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী বললেন, একটা ডাহা মিথ্যা কথা যখন অনলাইনে ছড়িয়ে ঘৃণা উস্কে দেয়া হয়, তখন আর আসলে চুপ থাকার সুযোগ নাই
# আরো বলেন, জাহিদ ও তিশার সন্ত্রাসী নয়, ধর্মপ্রাণ মুসলমানের চরিত্রে অভিনয় করেছেন
# গুজব প্রতিরোধে সরকারের বিশেষ সেলের সাহায্য চাইলেন নির্মাতা

১৬ জানুয়ারি জানা যায়, মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘শনিবার বিকেল’ সিনেমার সেন্সর ছাড়পত্র স্থগিত করেছে।

সেন্সর বোর্ডের সদস্য ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ বলেন, আগের দিন দ্বিতীয়বারের মতো ‘শনিবার বিকেল’ ছবিটি প্রদর্শনের আয়োজন করে সেন্সর বোর্ড। প্রদর্শনী শেষে সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, ‘শনিবার বিকেল’ মুক্তি পেলে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হবে। সেজন্য সেন্সর ছাড়পত্র স্থগিত করা সহ ছবিটি ‘ব্যান’ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বিষয়টি নিয়ে খুব একটা প্রতিক্রিয়া জানাননি ফারুকী। ওই সময় বলেন, আনুষ্ঠানিক চিঠি পেলে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন।

কিন্তু শুক্রবার ফেসবুক পোস্টে মুখ খুললেন তিনি। জানান, ‘শনিবার বিকেল’ নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে। বলা হচ্ছে, জাহিদ হাসান ও নুসরাত ইমরোজ তিশা সন্ত্রাসী অভিনয় করেছেন। কিন্তু প্রচারণাটি সত্য নয়। এ দুই অভিনয়শিল্পীকে দেখা যাবে ধর্মপ্রাণ মুসলিম চরিত্রে।

তিনি লেখেন, “ভেবেছিলাম আমি ফেসবুকে কোনো কথা বলবোনা। সেন্সর বোর্ড ছবি আটকেছে, আমরা আপীল করবো। ব্যাস।

কিন্তু একটা ডাহা মিথ্যা কথা যখন অনলাইনে ছড়িয়ে ঘৃণা উস্কে দেয়া হয়, তখন আর আসলে চুপ থাকার সুযোগ নাই। দেখতে পাচ্ছি হুজুররা ওয়াজ পর্যন্ত করছেন এটা নিয়ে এবং হাজার হাজার মানুষ সেটা শেয়ার পর্যন্ত দিচ্ছেন।

পরিষ্কার করে বলছি, শনিবার বিকেল ছবিতে জাহিদ হাসান এবং তিশার অভিনীত চরিত্র সন্ত্রাসীর নয়। তারা দুইজন ধর্মপ্রাণ মুসলমানের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। একদল জ্ঞানপাপী অনলাইনে মিথ্যা বলেছেন যে, জাহিদ এবং তিশা সন্ত্রাসী চরিত্রে অভিনয় করেছেন এবং তাদের গায়ে ইসলামী লেবাস দেয়ার মাধ্যমে ইসলাম অবমাননা করা হয়েছে। ঐ জ্ঞানপাপীরা আপনাদের বিভ্রান্ত করছে। আমরা দ্রুতই ট্রেলার ছাড়বো। তখনই পরিষ্কার হয়ে যাবে, যে এটার পেছনে একটা ভয়াবহ মিথ্যা প্রোপাগান্ডা চালানো হয়েছে। বাংলাদেশের ধর্মপ্রাণ মানুষ এবং ধর্মীয় নেতাদের প্রতি আমার আহ্বান, দয়া করে কারো খেলার গুঁটি হবেন না। দয়া করে কোনো মিথ্যা প্রচারণায় বিভ্রান্ত হবেন না।

আমরা জানি, সরকারের একটা বিশেষ সেল আছে গুজব প্রতিরোধের। তারা কি একটু খুঁজে দেখতে পারে এই মিথ্যাটা কারা ছড়ালো প্রথম? তাদেরকে কি বিচারের আওতায় আনা যায়?”

বাংলাদেশ-ভারত-জার্মান এই ত্রিদেশীয় যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘শনিবার বিকেল’ বাংলা ভাষা ছাড়াও ইংরেজি ভাষাতেও হয়েছে ডাবিং। টানা ১৫ দিন মহড়ায় মাত্র ৭ দিনেই শেষ করেছেন ছবির শুটিং।

২০১৬ সালে ঢাকার গুলশানের হলি আর্টিজানে সন্ত্রাসী হামলার ছায়া ধরে ‘শনিবার বিকেল’ বা ‘স্যাটার ডে আফটারনুন’ নির্মিত হয়েছে বলে আগে থেকেই কেউ কেউ মন্তব্য করে আসছিলেন।

ছবিটিতে অভিনয় করেছেন ফিলিস্তিনের অভিনেতা ইয়াদ হুরানি, জাহিদ হাসান, নুসরাত ইমরোজ তিশা, ইরেশ যাকের, মামুনুর রশীদ ও কলকাতার পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়সহ অনেকে।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

স্পটলাইট

Saltamami 2018 20 upcomming films of 2019
Coming Soon

[wordpress_social_login]

Shares