Select Page

‘ডুব’ নিয়ে আপত্তি নয়, আশঙ্কা

‘ডুব’ নিয়ে আপত্তি নয়, আশঙ্কা

‘আরে ভাই, আশঙ্কা ও আপত্তি শব্দ দু’টোর পার্থক্য আগে বুঝতে হবে। আশঙ্কা হল কোন সন্দেহ প্রকাশ করা। কোন বিষয় নিয়ে দুশ্চিন্তা করা। সন্দেহ ও দুশ্চিন্তা থেকেই আশঙ্কা করা হয়। আমিও আশঙ্কা করেছি, আপত্তি নয়।’ মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘ডুব’ নিয়ে সেন্সর বোর্ড ইস্যুকে কেন্দ্র করে এভাবেই বাংলাদেশ প্রতিদিনের কাছে নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করলেন মেহের আফরোজ শাওন। 

সম্প্রতি সেন্সর বোর্ডে জমা পড়ে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘ডুব’ ছবিটি। কিন্তু কোন কোন গণমাধ্যমে খবর এসেছে যে, সেন্সর বোর্ডের কাছে এই ছবির বিষয়ে আপত্তি জানিয়ে একটি পত্র দিয়েছেন মেহের আফরোজ শাওন।

এ বিষয়ে ফারুকী বলেন, ‘ভালো কথা। কিন্তু উনি ডুবের ব্যাপারে আপত্তি জানানোর কে? এটা উনার লেখা বা অন্য কারো মৌলিক সাহিত্য কর্ম থেকে বিনা অনুমতিতে বানানো হয়েছে? এটা একটা মৌলিক চিত্রনাট্য— যেখানে জাভেদ হাসান নামে একজনের একটা গল্প বলা হয়েছে। এখানে উনার চিঠি লেখার এখতিয়ার কোথা থেকে আসল? বা এই চিঠির কী আইনগত মূল্য আছে তা তো আমি জানি না।’

এদিকে শাওন বলেন, “আবারও বলছি, আশঙ্কা প্রকাশ করেই চিঠিটি লিখেছি। চিঠির ভাষা অনেকটা এ রকম-বেশ কিছুদিন আগে কলকাতা ও বাংলাদেশের কয়েকটি প্রভাবশালী গণমাধ্যমে ‘ডুব’ সিনেমার নায়কের সাক্ষাৎকার প্রকাশিত হয়। যেখানে চরিত্র ও কাহিনী বিন্যাসে প্রয়াত হুমায়ুন আহমেদের জীবনীকেই তুলে ধরা হয়েছে বলে দাবি করা হয়। কিন্তু ছবিটির পরিচালক নিজে কখনো এই বিষয়ে হ্যাঁ বা না কিছুই বলেনি। আর আমার দুশ্চিন্তা মূলত এখানেই। আমি চাই না প্রয়াত স্বামী ও আমার জীবনের স্পর্শকাতর কোন ঘটনা তুলে ধরা হোক যার কোন ভিত্তি নেই। আর এসব কারণেই ‘ডুব’ ছবি নিয়ে আমি আশঙ্কা প্রকাশ করেছি।”

যদি আপনার আশঙ্কা সত্যি হয় অর্থাৎ হুমায়ুন আহমেদের জীবনের সঙ্গে ‘ডুব’ ছবির সাদৃশ্য পাওয়া যায় তাহলে কি করবেন এমনটা জানতে চাইলে শাওন বলেন, “এমনটি হলে সেন্সর বোর্ডের ১৯৭৭ সালের নীতিমালা অনুযায়ি পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে হবে। আমার কষ্ট এখানেই যে ‘ডুব’ ছবি নিয়ে ফারুকী সাহেবের এত লুকোচুরি কেন? তিনি একজন গুণী নির্মাতা এতে কোন সন্দেহ নেই। সাহস করে বললেই তো হয় যে ‘ডুব’ সিনেমাটি হুমায়ুন আহমেদের জীবন থেকে নেওয়া কোন ঘটনা নয়। তাহলে আমি হয়তো তা মেনে নেওয়ার চেষ্টা করতে পারি। অথচ সেটা না করে তিনি সাসপেন্স তৈরি করছেন। আর বলছেন, দর্শকরা হলে গিয়েই উত্তর পাবেন।”

শাওন আরো বলেন, “হুমায়ুন আহমেদ ও তার পরিবার নিয়ে কোন বিভ্রান্তিকর তথ্য উপস্থাপন করলে কোন অবস্থাতেই তা মেনে নিব না। আর আমি কেন, সমাজের কেউই মেনে নিবে না। আমি শুধুমাত্র আশঙ্কা থেকেই সেন্সর বোর্ডের কাছে বিষয়টি জানিয়েছি। এখন উত্তরের অপেক্ষায় আছি।”

‘ডুব’-এর প্রধান কয়েকটি চরিত্রে অভিনয় করছেন বলিউডের ইরফান খান, কলকাতার পার্নো মিত্র, ঢাকার নুসরাত ইমরোজ তিশা, রোকেয়া প্রাচীসহ অনেকে। প্রযোজনা করছে বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়া ও কলকাতার এসকে মুভিজ। সহ-প্রযোজক হিসেবে আছেন ইরফান খান।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Coming Soon
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?

[wordpress_social_login]

Shares