Select Page

তৌকীরের সিনেমায় হালদা

তৌকীরের সিনেমায় হালদা

Halda

পৃথিবীর একমাত্র জোয়ার-ভাটার নদী হালদা, যেখানে রুই জাতীয় মাছ ডিম ছাড়ে এবং নিষিক্ত ডিম সংগ্রহ করা হয়। হালদার সাথে বাংলাদেশের অন্যান্য নদীর সংযোগ না থাকাতে রুই জাতীয় মাছের ‌‘জীনগত স্টক’ সম্পূর্ণ অবিকৃত রয়েছে।

আর সে নদী উঠে আসছে তৌকীর আহমেদের সিনেমায়। যার নামও ‘হালদা’। সম্প্রতি এ অভিনেতা-নির্মাতা হালদায় শুটিংয়ের কিছু দৃশ্য ফেসবুকে শেয়ার করেন।

মে মাসে শুরু হওয়ার কথা নতুন সিনেমাটির শুটিং। কিন্তু এপ্রিলে দেখা গেল লোকেশনে, শুটিং করতে। এ প্রসঙ্গে তৌকীর প্রথম আলোকে বলেন, ‘হালদা নদীতে একটা নির্দিষ্ট সময়ে মাছ ডিম পাড়ে। সেই ডিম পাড়ার সময়টা এখনই। তাই আমরা এই দৃশ্যগুলোর শুটিং এখনই করে নিচ্ছি। তবে পুরোদমে ছবির শুটিং শুরু করব আসছে ঈদের পর।’

আজাদ বুলবুলের গল্পে ‌‘হালদা’র চিত্রনাট্যও তৌকীর আহমেদের। ছবির অভিনয়শিল্পী কারা, এই নিয়ে এখনি কিছু বলতে নারাজ তিনি। এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘এখনো যেহেতু পুরোদমে ছবিটির শুটিং শুরু করিনি, তাই বিষয়টি এই মুহূর্তে প্রকাশ করতে চাইছি না। পুরোদমে শুটিং শুরুর আগে বিষয়টি সবাইকে জানাতে পারব।’

মাছের প্রজননক্ষেত্র হিসেবে পরিচিত হালদা নদী ও আশপাশের মানুষের জীবনবৈচিত্র্য নিয়ে তৌকীর আহমেদের নির্মাণ করছেন ‘হালদা’। নদী ও নদীর গতি-প্রকৃতি, নদীর ক্ষয় এবং নদীতীরবর্তী মানুষের জীবনের প্রবাহ ও জটিলতা— সবকিছুই এ ছবির বিষয়বস্তু বলে তিনি জানান।

এ দিকে, মুক্তির জন্য প্রস্তুত হয়ে আছেন তৌকীরের আরেকটি সিনেমা— ‘অজ্ঞাতনামা’।


মন্তব্য করুন

Shares