Select Page

দেশে ১০০ সিনেপ্লেক্স হলে ছবি মুক্তি দেবে জাজ মাল্টিমিডিয়া

দেশে ১০০ সিনেপ্লেক্স হলে ছবি মুক্তি দেবে জাজ মাল্টিমিডিয়া

কর্ণধার আব্দুল আজিজ আত্মগোপনের যাওয়ার পর থেকে সিনেমায় অনিয়মিত জাজ মাল্টিমিডিয়া। হালে একাধিক সিনেমা ও নায়ক-নায়িকার ঘোষণা এলেও গত তিন বছরের জাজের নিজস্ব রিলিজ প্রায় শূন্য, যদিও তাদের পরিবেশনায় মুক্তি পেয়েছে মেজবাউর রহমান সুমনের ‘হাওয়া’সহ একাধিক সিনেমা।

সৈকত নাসির পরিচালিত ‘মাসুদ রানা’ সিনেমার শুটিং সেট

আজ এক ফেসবুকে পোস্টে জাজের ব্যানারে নির্মিত ছবির তালিকা দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে জানানো হয়েছে, রায়হান রাফী পরিচালিত ‘রাস্তা’ কেন তৈরি হবে না। সঙ্গে এও বলছে, সারাদেশে অন্যরা যদি ১০০ সিনেপ্লেক্স তৈরি করে তারা পরপর ছবি মুক্তি দেবে।

নিজেদের ছবি সম্পর্কে জাজ বলছে—

“১. মাসুদ রানা (দেশী) – শুটিং শেষ। এখন ভিএফএক্সের কাজ চলছে।

২. এমআর নাইন (হলিউড) – শুটিং শেষ। এখন হলিউডে পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ চলছে।

৩. মোনা – শুটিং, এডিটিং এবং ডাবিং শেষ। মোনা পোস্ট প্রোডাকশনের শেষ পর্যায়ে আছে। বলা যায় রেডি আছে।

৪. পাপ – শুটিং, ডাবিং এবং এডিটিং শেষ। যেকোন সময় সেন্সরে জমা দিবো।

৫. জিন – অনেক আগেই রেডি আছে মুক্তি দিচ্ছি না, কারণ আমাদের একটা পরিকল্পনা আছে।

৬. শনিবার বিকেল – প্রায় ৪ বছর যাবৎ সেন্সরে আটকে আছে। আশা করি, খুব দ্রুত সেন্সর বোর্ড ইতিবাচক সাড়া দেবেন।

৭. রাস্তা – এই প্রজেক্টটা আপাতত বন্ধ রেখেছি। রাস্তা সিনেমার গল্প সম্পূর্ণ সিস্টেমের বিরুদ্ধে। সিস্টেমের দুর্নীতি এই সিনেমাতে তুলে ধরা হয়েছে। মনে করছি এই সিনেমাও সেন্সরে আটকে যাবে। তাই, রায়হান রাফী ও জাজ মাল্টিমিডিয়া আলাপ করে ঠিক করেছি, আপাতত রাস্তা সিনেমা না করার জন্য। কারণ, শনিবার বিকেল আটকে আছে, আবার যদি রাস্তা সিনেমাও আটকে যায়, আমরা আর্থিকভাবে অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যাবো। শনিবার বিকেল সেন্সর পেলে, রাস্তা সিনেমার কাজ শুরু করার পরিকল্পনা করবো, তার আগে না। তবে রাস্তার পরিবর্তে রাফী অন্য একটা সিনেমা বানাচ্ছে। পরে ঘোষণা দিবো।

৮. বারুদ – সব লক। ডিসেম্বরে শুটিং শুরু হবে। বিগ বাজেটের এই সিনেমা আগামী রোজার ঈদে মুক্তি পাবে। নতুন নায়ক-নায়িকা থাকছে বারুদে।

৯. অগ্নি-৩ – আগামী বছরের মে মাসে শুটিং শুরু করার পরিকল্পনা আছে। এর আগ পর্যন্ত পরিচালক সৈকত নাসির ব্যস্ত আছে। অগ্নি-৩ সিনেমা বাংলা ও ইংরেজি দুই ভাষায় শ্যুট হবে। বিশ্বব্যাপী একসাথে মুক্তি দেয়া হবে।

১০. জানোয়ার – একটা পোস্ট করা হয়েছিল যে কুকুরের ইন্টারভিউ নিতে নিতে ক্লান্ত। সত্যি, কুকুরের ইন্টারভিউ নিচ্ছে জাজের প্রোডাকশন ম্যানেজার উজ্জ্বল। জানোয়ার সিনেমাতে ১০টা মোটামোটি প্রশিক্ষিত দেশী কুকুর লাগবে। কুকুর না পাওয়া পর্যন্ত শুটিং শুরু করা যাচ্ছে না। বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ ও ইন্টারভিউ চলছে।

অনেকে প্রায়ই বলে, সিনেমা রেডি আছে, মুক্তি দিচ্ছি না কেন? 

জাজের একটা পরিকল্পনা আছে। আর সেটা হলো, আগামী ২ বছরের মধ্যে ১০০ সিনেপ্লেক্স করার। না, জাজ সিনেপ্লেক্স করবে না। করবে অন্যরা। আমরা এমনভাবে কাজ করছি, যাতে সবাই সিনেপ্লেক্স বানাতে আগ্রহী হয়।

সবাইকে একটা কথা বলতে চাই, এখন আমাদের সিনেমার বাজেট ১ কোটি টাকার উপরে গেলেই কোন ভাবেই পুঁজি উঠবে না (২-১ সিনেমা আলাদা)। কিন্তু, আজ থেকে ২ বছর পরে আমরা ৩ কোটি টাকার সিনেমা যাতে বানাতে পারি, সেই পরিকল্পনাতে আগাচ্ছি। আর ৪ বছর পরে ৫ কোটি টাকা হবে আমাদের বাজেট।

আজ থেকে ৪ বছর পরে বাংলাদেশের সবচেয়ে লাভবান ব্যবসা হবে সিনেমা ব্যবসা। জাজ সেই লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছে। যেহেতু সিনেমা নিয়ে পরিকল্পনা করার কেউ নেই, তাই জাজই করে যাচ্ছে এই কাজ।”


মন্তব্য করুন

Shares