Select Page

‘নাকাব’ না করেও পোস্টারে বাংলাদেশি দুই অভিনেতা!

‘নাকাব’ না করেও পোস্টারে বাংলাদেশি দুই অভিনেতা!

# যৌথ ও ভারতীয় একক প্রযোজনায় অনেকবার অভিনয় করেছেন অমিত হাসান
# ‘নাকাব’-এ শাকিব খান ছাড়া বাংলাদেশি কোনো শিল্পী ছিল না
# অমিত বুঝতে পারছেন না, ‘নাকাব’ পোস্টারে তার ছবি কীভাবে গেল
# সাদেক বাচ্চুর মতে, তার ভক্তরা প্রতারিত হয়েছেন
# পরিবেশক প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া বলছে, ডিজাইনারের ভুল
# সেন্সর বোর্ড বলছে, এ ধরনের পোস্টার-ব্যানার অবৈধ

পশ্চিমবঙ্গের পর বাংলাদেশে গত শুক্রবার মুক্তি পেয়েছিল শাকিব খান অভিনীত কলকাতার ছবি ‘নাকাব’। কিন্তু অভিযোগ উঠেছে সিনেমাটির প্রচারের জন্য গোটা দেশে যে পোস্টার লাগানো হয়েছে, সেখানে বাংলাদেশি অভিনেতা অমিত হাসান ও সাদেক বাচ্চুর চেহারা দেখা গেলেও তারা অভিনয়ই করেননি।

অমিত হাসান বেশ কিছু যৌথ ও ভারতীয় একক সিনেমায় অভিনয় করেছেন। তাই পোস্টার দেখে অনেকেই বিশ্বাস করেছেন তিনি আছেন ‘নাকাব’-এ। কিন্তু সিনেমা হলে গিয়ে তাকে পাননি দর্শক। মূলত শাকিব খান বাংলাদেশের কেউ অভিনয় করেননি এ সিনেমায়।

অমিত হাসান বলেন, ‘আমি বিষয়টি নিয়ে অবাকই হয়েছি। নাকাব ছবিতে আমি অভিনয় করিনি, অথচ ছবির পোস্টার ও ব্যানারে আমার ছবি ব্যবহার করা হয়েছে। প্রথমে মগবাজার দিয়ে যাওয়ার সময় আমি লক্ষ করি পোস্টারে আমার ছবি। প্রথমে বুঝতে পারিনি। মনে হয়েছিল, নিচে কোনো একটি পোস্টারে হয়তো আমার ছবি ছিল, ওপরের পোস্টার ছিঁড়ে যাওয়ায় আমার ছবি দেখা যাচ্ছে। কিন্তু ভালো করে লক্ষ করলাম, দেখি আমি। বিষয়টিতে অবাক হই। বলাকা সিনেমা হলে যে বিশাল একটি ব্যানার ব্যবহার করা হয়েছে, সেখানেও আমার ছবি। আসলে এসব কী হচ্ছে, আমি কিছু বুঝতে পারছি না।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আবদুল আজিজ ভাইকে ফোন দিয়েছিলাম। তিনিও বিষয়টি শুনে অবাক হয়েছেন। তিনি আমাকে জানিয়েছেন, পোস্টার ডিজাইন যে করেছে, সে ভুল করেছে।’

ছবির পোস্টার তৈরির ক্ষেত্রে ডিজাইনারের ভুল করার কোনো সুযোগ আছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে অমিত হাসান বলেন, ‘আমি জানি, যেকোনো ছবির পোস্টার করার জন্য ডিজাইনারকে ছবি সরবরাহ করতে হয়। এখন কোন ডিজাইনার কাজটি করেছেন, আর কারাই বা এত বড় একটা ভুল করল, সেটা চোখে ধরাও পড়ল না? বিষয়টি আমি বুঝিনি।’

এদিকে সাদেক বাচ্চু বলেন, ‘ছবিতে অভিনয় করিনি অথচ পোস্টারে আছি! কিছু হলেও তো ভক্ত আছে আমার। যারা পোস্টার দেখে হলে যায় তাদের সঙ্গে প্রতারণা করা উচিত হয়নি।’

বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে সেন্সর বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান জানান, বিষয়টি অবৈধ, ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এনটিভি অনলাইনকে তিনি বলেন, ‘এমন বিষয় যদি হয়ে থাকে, তবে তা অবৈধ। কারণ, আমাদের এখানে যখন একটি ছবি সেন্সরের জন্য জমা দেওয়া হয়, তখন ছবির পাত্রপাত্রীদের নামও দেওয়া হয়। এমনকি পোস্টার করার সময়ও আমাদের অনুমতি নিতে হয়। যদি কেউ অভিনয় না করে থাকেন, আর তার ছবি দিয়ে পোস্টার-ব্যানার করা হয়, তবে তা অবৈধ। আমরা এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করব।’

বাংলাদেশের চলচ্চিত্র ‘পাষাণ’-এর বিনিময়ে বাংলাদেশে এসেছে ‘নাকাব’। ছবিটি আমদানি করেছে জাজ মাল্টিমিডিয়া। ‘নাকাব’ ছবিটি প্রযোজনা করেছে কলকাতার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মস। ‘নাকাব’-এর মাধ্যমে প্রথমবার এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাজ করেছেন বাংলাদেশের শাকিব খান। ছবিতে শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেছেন কলকাতার দুই নায়িকা নুসরাত ও সায়ন্তিকা। রাজীব বিশ্বাস পরিচালিত ‘নাকাব’-এ শাকিব খান অভিনয় করেছেন দ্বৈত চরিত্রে।

সূত্র : এনটিভি অনলাইনকালের কণ্ঠ

 

 

 


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

স্পটলাইট

Movies to watch in 2018
Coming Soon

[wordpress_social_login]

Shares