Select Page

পুলিশ হেফাজতে নায়িকা মুনিয়া

পুলিশ হেফাজতে নায়িকা মুনিয়া

Munia Afrinঢালিউডের নতুন নায়িকা মুনিয়া। এখন পর্যন্ত মাত্র একটি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন তিনি। অনন্য মামুনের পরিচালনায় নির্মানাধীন এ ছবিটির কাজ শেষ হয় নি এখনো। কিন্তু এর মাঝেই সংবাদপত্রের শিরোনাম হয়েছেন মুনিয়া আফরিন, পুলিশ হেফাজতেও যেতে হয়েছে তাকে।

শুক্রবার বাংলামেইলে প্রকাশিত এক সংবাদ থেকে জানা যায়, শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্তব্যরত আনসারদের সাথে দুর্ব্যবহার এবং সহকারী কর্তৃক পিস্তল দেখানোর ঘটনার অভিযোগে নায়িকা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এসএস মাল্টিমিডিয়া গ্রুপ প্রযোজিত ও অনন্য মামুন পরিচালিত বাংলা ছায়াছবি ভালোবাসার গল্প এর শুটিংয়ে শেকৃবিতে গিয়েছিলেন নায়িকা মুনিয়া, সেখানেই এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, সিনেমার শুটিং ইউনিট শেকৃবিতে প্রবেশের কিছু পরে মুনিয়া প্রাইভেট কার যোগে নির্বাচন কমিশন সংলগ্ন শেকৃবির দ্বিতীয় গেট দিয়ে ঢোকার সময় গেটে কর্তব্যরত আনসার আব্দুস সাত্তার ও সুমন চন্দ্র দেব গাড়িটি আটকিয়ে তাদের পরিচয় জিজ্ঞেস করেন। কিন্তু নায়িকার সাথে থাকা সহকারী নজরুল নিজেদের পরিচয় না দিয়ে কর্তব্যরত আনসারদের সাথে দুর্ব্যবহার করেন। কিন্তু আনসারদের অনড় অবস্থান দেখে তিনি এন্ট্রি খাতায় নাম এন্ট্রি করেন।

পরবর্তিতে নায়িকাকে স্পটে রেখে গাড়ী নিয়ে গেট দিয়ে বের হয়ে যাবার সময় নজরুল কর্তব্যরত আনসারদেরকে রিভালবার বুকে ঠেকিয়ে ভয় দেখিয়ে দেখে নেয়ার হুমকি দিয়ে আবার গাড়িতে উঠে চলে যায়। এ ঘটনায় আনসাররা শেকৃবি প্রশাসনকে অবহিত করলে শুটিংয়ে থাকা নায়িকাসহ ইউনিটের আরও ৪ জনকে প্রক্টর অফিসে বসিয়ে রাখা হয় এবং মোবাইলে নজরুলকে আসতে বলা হয়। ৩ ঘন্টা পরেও নজরুল না আসলে থানায় খবর দিয়ে নায়িকা মুনিয়া আফরিনকে শেরেবাংলা নগর থানার তত্ত্বাবধায়নে দিয়ে দেয়া হয়।

 


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Coming Soon
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?

Shares