Select Page

প্রকাশিত হলো সিনে ম্যাগাজিন ‘মুখ ও মুখোশ’

প্রকাশিত হলো সিনে ম্যাগাজিন ‘মুখ ও মুখোশ’

LOGOজুন মাসের প্রথম দিনে প্রকাশিত হলো ত্রৈমাসিক অনলাইন সিনে ম্যাগাজিন ‘মুখ ও মুখোশ’ (http://mukhomukhoshmag.com/)  এর প্রথম সংখ্যা। ফেসবুকে চলচ্চিত্র সম্পর্কিত আড্ডা ও চর্চা থেকে উঠে এসেছে ম্যাগাজিনটি।

অনলাইনটি সম্পর্কে সম্পাদকমণ্ডলী বলছেন ‘প্রথম বাংলা সবাক চলচ্চিত্র ‘মুখ ও মুখোশ’ এর নামানুসারে প্রথম বাংলা অনলাইন সিনে ম্যাগাজিনের নামকরণের পেছনে যৗক্তিক কিছু কারন রয়েছে। বাংলা চলচ্চিত্র অনেক চড়াই উতড়াই পেরিয়ে এই দশকে যেন আবার নতুন করে যাত্রা শুরু করল। আমাদের চলচ্চিত্রকে শিল্প ঘোষণা, চলচ্চিত্রে সুস্থ পরিবেশ ফিরে আসা, নতুন প্রতিভাবান মুখের আনাগোনা যেনো চলচ্চিত্রে এক নতুন দিনের আশার কথাই শোনাচ্ছে আমাদের। চলচ্চিত্র নিয়ে বেশ কিছু ম্যাগাজিন থাকলেও অনলাইনে পূর্নাঙ্গরুপে ‘মুখ ও মুখোশ’-ই প্রথম ম্যাগাজিন। মুখ ও মুখোশ কিছু তরুনের স্বপ্ন। কিছু তরুন; যারা ১৬ কোটি মানুষের কথা বলে’।

মুভি বিষয়ক ফিচার, রিভিউ ও খবরাখবর দিয়ে সাজানো হয়েছে প্রথম সংখ্যাটি। ফিচার বিভাগে স্মরণ করেছেন হুমায়ুন ফরিদী, ঋত্বিক ঘটক, সজল খালেদ, ক্লিন্ট ইস্টউড ও ঋতুপর্ণ ঘোষকে। ফিচারের শিরোনাম দেখা যাক- মুখোশের আড়ালে মুখ ও মুখোশ, শ্রদ্ধাঞ্জলিঃ অন্তরমহলে রাখিব, যেতে দেবো না, কিংবদন্তীর কথা বলছি, ফিল্মি দুনিয়ার স্বপ্নপুরি ‘রামোজী ফিল্ম সিটি’, ঋত্বিক ঘটকঃ জীবন, কর্ম ও দর্শন, বাংলা চলচ্চিত্রের অন্যতম সেরা তিন শিশুতোষ গান, বাংলা ক্ষুদ্র চলচ্চিত্রঃ আমার দেখা সেরা সাত, সজল ভাই, আপনারে আমরা খুঁজিয়া বেড়াই এবং ক্লিন্ট ইস্টউড – দি ম্যান হু নিডস নো নেম।

এই সংখ্যায় লিখেছেন তানভীর খালেদ, আশিকুর রহমান তন্ময়, সাঈদ সোম্য, মাহজাবীন হায়দার জুন, ওয়াহিদ সুজন, নাজমুল হাসান দারাশিকো, কালা মনের ধলা মানুষ, অরিন্দম গুস্তাভো বিশ্বাস, আহমেদ জামান শিমুল, অলক দাস, নাজমুল হাসান মজুমদার, সাইফুল ফারদিন, খালেদ ইমাম সৌরভ।

ম্যাগাজিনটির সম্পাদনা পরিষদে আছেন কাউসার রুশো (ঢালিউড), সুদীপ (হলিউড), নাফিজ মুনতাসির (বলিউড), স্নিগ্ধ রহমান (অন্যান্য বিশ্ব)  এবং মাহদি হাসান (ফিল্মমেকিং) ।

শুধু ঢালিউডের চলচ্চিত্রই নয়- হলিউড, বলিউড এবং বিশ্বের অন্যান্য দেশের চলচ্চিত্র সম্পর্কে তথ্য ও রিভিউ দিয়ে ম্যাগাজিনকে সাজানো হয়েছে। এছাড়াও সিনেমা নির্মানে ইচ্ছুক তরুনদের জন্য রয়েছে ফিল্মমেকিং বিভাগ ও ইন্ডিপেন্ডেন্ট ফিল্ম। নিজেদের প্রচেষ্টা সম্পর্কে বলছে ‘আমরা চেষ্টা করেছি আমাদের সর্বোচ্চটুকু ঢেলে দেয়ার জন্য। জনশক্তি, অর্থ, সময়ের স্বল্পতা স্বত্বেও আমাদের চেষ্টার কোন ত্রুটি থাকেনি মুখ ও মুখোশকে একটি আন্তর্জাতিক সিনে ম্যাগাজিন এর মতো করে সাজানোর’।

জানা গেছে, মুখ ও মুখোশ ত্রৈমাসিক সিনে ম্যাগাজিন হলেও এটি প্রতি সপ্তাহে খবর দিয়ে হালানাগাদ হবে।

বিএমডিবি ডেস্ক


মন্তব্য করুন

Shares