Select Page

ফাহমিদুল হকের দৃষ্টিতে ২০২২ সালের সেরা দশ

ফাহমিদুল হকের দৃষ্টিতে ২০২২ সালের সেরা দশ

এশিয়ান মুভি প্লাস ওয়েবসাইটে ২০২২ সাল বছর জুড়ে আলোচনায় থাকা ও উল্লেখযোগ্য ছবি/কনটেন্ট থেকে ‌‘সেরা দশ’ নির্বাচন করেছেন সাংবাদিকতার শিক্ষক ও চলচ্চিত্র আলোচক ফাহমিদুল হক। দেখা যাক তালিকাটি। বাংলা অনুবাদটি নেয়া হয়েছে চ্যানেল আই অনলাইন থেকে।

ফাহমিদুল হক

হাওয়া

মেজবাউর রহমান সুমনের ‘হাওয়া’ জলকেন্দ্রিক মিথ নিয়ে নির্মিত। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের বিগত কয়েক বছরের ইতিহাসে সর্বোচ্চ সাফল্য পাওয়া চলচ্চিত্রের মাঝে অন্যতম। প্রশংসা পেয়েছে ছবির ক্যামেরার পেছনের কাজ। চঞ্চল চৌধুরী, শরীফুল রাজ, নাজিফা তুষি, নাসির উদ্দিন খান, সুমন আনোয়ার, সোহেল মণ্ডলসহ আরো অনেক জাত অভিনেতার সমাহার ঘটেছে ছবিতে।

সমুদ্রের গভীর জলে জেলে আর এক নারীর গল্প ‘হাওয়া’। গভীর সমুদ্রে একদল জেলে মাছ ধরতে গিয়ে নানা রহস্যময় ঘটনার মুখোমুখি হন। সমুদ্র ঝড়, মাছ না ওঠা, সমুদ্রের গভীরে হারিয়ে যাওয়া, এক নারীকে নিয়ে ঘটতে থাকে নানা অপ্রত্যাশিত ঘটনা।

কুড়া পক্ষীর শূন্যে উড়া

নবীন নির্মাতা মুহাম্মাদ কাইয়ুম পরিচালিত চলচ্চিত্রটি সম্প্রতি কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবে সেরা ছবির পুরস্কার জিতে আলোচনায় এসেছে। সমালোচকদের প্রশংসা পেয়েছে ছবিটি। হাওর অঞ্চলের একদল মানুষের সহজ-সরল ও একইসঙ্গে কঠিন সংগ্রামের গল্প উঠে এসেছে এই চলচ্চিত্রে। ছবির সিনেমাটোগ্রাফি মুগ্ধ করেছে দর্শক-সমালোচকদের।

আদিম

টঙ্গী রেলস্টেশনের পাশের ব্যাংকের মাঠ বস্তির মানুষের গল্প ‘আদিম’। পরিচালক যুবরাজ শামীম। সিনেমার চরিত্রদের কেউ পেশাদার অভিনয়শিল্পী নন, স্থানীয় বস্তির বাসিন্দা। শুটিংয়ের সময় নানা বাধাবিপত্তি পাড়ি দিতে হয়েছে পরিচালককে। অর্থাভাবে কখনো বন্ধ থেকেছে শুটিং, কখনো বস্তির মানুষের সঙ্গে তৈরি হয়েছে ভুল-বোঝাবুঝি।

৪৪তম মস্কো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে স্পেশাল জুরি ও নেটপ্যাক জুরি পুরস্কার জিতেছে ‘আদিম’। এছাড়াও সিনেমাটি নেপাল মানবাধিকার আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের আন্তর্জাতিক বিভাগে সেরা ফিচার ফিল্মের পুরস্কার অর্জন করেছে।

মশারি

নুহাশ হুমায়ূন পরিচালিত মশারী সিনেমাটি আবর্তিত হয়েছে কাল্পনিক পোস্ট-অ্যাপোকেলিপটিক পৃথিবীর দুই বোনকে কেন্দ্র করে। নানা দেশে নানা উৎসবে চলচ্চিত্রটি প্রশংসিত হওয়ার পাশাপাশি অনেকগুলো পুরস্কারও জিতেছে। অভিনয় করেছেন জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী সুনেরাহ বিনতে কামাল ও নাইরা অনোরা সাইফ।

প্রিয় সত্যজিৎ

উপমহাদেশের কিংবদন্তি চলচ্চিত্রকার সত্যজিৎ রায়ের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে নির্মাণ করা হয়েছে ‘প্রিয় সত্যজিৎ’ সিনেমাটি। পরিচালনা করেছেন প্রসূন রহমান। ‘প্রিয় সত্যজিৎ’ সিনেমায় অভিনয় করেছেন গুণী অভিনেতা আহমেদ রুবেল, মৌটুসী বিশ্বাসসহ আরো অনেকে। সিনেমার কাহিনি তিন সময়ের তিনজন চলচ্চিত্র নির্মাতাকে নিয়ে। প্রথমজন সত্যজিৎ রায় নিজে। যিনি উপস্থিত না থেকেও বিরাজমান। আর অন্য দুজন পরবর্তী দুই প্রজন্মের।

এটি ব্যক্তি সত্যজিৎ রায়ের জীবন নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্র নয়, পরবর্তী প্রজন্মের নির্মাতাদের ওপর পরিচালক সত্যজিৎ রায়ের প্রভাব এবং তার প্রতি ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা জানানোর গল্প। কিশোরগঞ্জের মসূয়ায় সত্যজিৎ রায়ের দাদা উপেন্দ্রকিশোর রায় চৌধুরীর বাড়িসহ আরও কয়েকটি এলাকা ও পুরান ঢাকার একটি বাড়িতে শুটিং হয়েছে সিনেমার।

রেডরাম

তরুণ পরিচালক ভিকি জাহেদের ওয়েবফিল্ম ‘রেডরাম’। ‘রেডরাম’ একটি মার্ডার মিস্ট্রি, থ্রিলার জনরার সিনেমা। ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম চরকিতে মুক্তি পেয়েছে ওয়েবফিল্মটি। একটি খুনকে কেন্দ্র করেই এগিয়ে যেতে থাকে ‘রেডরাম’–এর দুঃসাহসিক গল্প। কে খুন করেছেন, এমন প্রশ্নে রহস্য দানা বাঁধতে থাকে পরতে পরতে। গল্প যতই এগিয়ে চলে, ততই আগ্রহ বেড়ে যায়। ২ ঘণ্টা ১২ মিনিটের থ্রিলারটি শেষ হওয়ার পরও রেশ থেকে যায়। ‘রেডরাম’-এ অভিনয় করেছেন আফরান নিশো ও মেহজাবীন চৌধুরী।

ক্যাফে ডিজায়ার

নির্মাতা রবিউল আলম রবির ওয়েব ফিল্ম ‘ক্যাফে ডিজায়ার’ তৈরি করা হয়েছে কথাসাহিত্যিক শিবব্রত বর্মনের গল্প অবলম্বনে। ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম চরকিতে মুক্তি পেয়েছে ওয়েব ফিল্মটি। এটি একটি অ্যান্থোলজি সিনেমা। এতে আলাদা আলাদা পাঁচটি গল্প তুলে আনা হয়েছে। এক প্লট থেকে আরেক প্লটের সাধারণ যোগসূত্র হলো বাসনা। প্রাত্যহিক জীবন, অস্তিত্ব সংকট, নর-নারীর সম্পর্ক, মানুষের মনস্তত্ত্ব, বাস্তববাদী শৈলী তুলে ধরা হয়েছে ওয়েব ফিল্মে।

‘ক্যাফে ডিজায়ার’–এ অভিনয় করেছেন আজাদ আবুল কালাম, ইন্তেখাব দিনার, সোহেল মন্ডল, তমা মির্জা, খাইরুল বাশার, শ্যামল মাওলা, সানজিদা প্রীতি, সারিকা সাবরিন, আইশা খান, ফারহানা হামিদ, প্রিয়ন্তী উর্বী, প্রিয়াম অর্চি, বায়েজিদ হক জোয়ারদারসহ আরও অনেকে।

গুণিন

খ্যাতিমান নির্মাতা গিয়াসউদ্দিন সেলিম এর তৃতীয় সিনেমা ‘গুণিন’। রাজ-পরী জুটির প্রথম সিনেমা এটি। হাসান আজিজুল হকের ছোটগল্প ‘গুণিন’ থেকে নেয়া হয়ে এ ছবির গল্প। দুই ভাইয়ের দ্বন্দ্ব ও একই নারীর প্রতি তাদের ভালোলাগাকে ঘিরে ছবির গল্প। সিনেমায় শরিফুল রাজ অভিনয় করেছেন রমিজ এবং পরীমনি রাবেয়ার চরিত্রে। রাজ-পরী ছাড়াও নাম চরিত্রে অভিনয় করেছেন আজাদ আবুল কালাম। আরও অভিনয় করেন দিলারা জামান, ইরেশ যাকের, মোস্তফা মন্ওয়ার, শিল্পী সরকার অপু, ঝুনা চৌধুরী প্রমুখ। টানা দুই সপ্তাহ প্রেক্ষাগৃহে চলার পর ওটিটি প্লাটফর্ম চরকিতে মুক্তি দেয়া হয়েছে ছবিটি।

পরাণ

সত্য ঘটনার ছায়া অবলম্বনে ত্রিভুজ প্রেমের গল্পে নির্মিত ‘পরাণ’ ছিলো বছরের সবচেয়ে আলোচিত ও ব্যবসাসফল সিনেমা। সিনেমার গল্প ও নির্মাণ মুগ্ধ করেছে দর্শককে। গত বছরের ১০ জুলাই প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির পর দেশের দর্শকদের মুগ্ধ করে ‘পরাণ’ আমেরিকাসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশ- ফিনল্যান্ড, সুইডেন, ডেনমার্কে ও অস্ট্রেলিয়ায় মুক্তি পায়। মাল্টিপ্লেক্সের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশিদিন প্রদর্শিত হওয়া সিনেমা এটি। রায়হান রাফীর পরিচালনায় সিনেমার প্রধান তিনটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন শরিফুল রাজ, বিদ্যা সিনহা মিম ও ইয়াশ রোহান। এছাড়াও আরও আছেন শহীদুজ্জামান সেলিম, শিল্পী সরকার অপু, রোজী সিদ্দিকী, লুৎফর রহমান জর্জ, রাশেদ মামুন অপু, মিলি বাশার প্রমুখ।

মায়াশালিক

শিহাব শাহীনের ওয়েবফিল্ম ‘মায়াশালিক’। ওটিটি প্ল্যাটফর্ম বিঞ্জে মুক্তি পায় ওয়েব ফিল্মটি। অভিনয় করেছেন ছোটপর্দার অন্যতম জনপ্রিয় তারকা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব ও তরুণ অভিনেত্রী সাদিয়া আয়মান। মুক্তি পর থেকেই দর্শকমহলে বেশ প্রশংসিত ওয়েব ফিল্ম ‘মায়াশালিক’। দর্শক প্রশংসার পাশাপাশি ওটিটিতে ইতিমধ্যে রেকর্ডও গড়ে ফেলেছে এটি। জাহান সুলতানার গল্পে সায়েন্স ফিকশনের সঙ্গে রোমান্টিক ফ্যান্টাসির মিশেলে রহস্যে ঘেরা এ সিনেমায় অপূর্ব ও সাদিয়া ছাড়া আরও অভিনয় করেছেন শহীদুজ্জামান সেলিম, ইমতিয়াজ বর্ষণ প্রমুখ।


মন্তব্য করুন

Shares