Select Page

‘মনে রেখো’র বাজেট ৩ কোটি ২০ লাখ

‘মনে রেখো’র বাজেট ৩ কোটি ২০ লাখ

হালে বেশির ভাগ বাংলা সিনেমাই প্রচারণায় বলা হয়, বিগ বাজেটে নির্মিত। কিন্তু টাকার অংকটা আর শোনা হয় না। এবার বলা হলো, মাহি ও কলকাতার নায়ক বনি সেনগুপ্ত অভিনীত ‘মনে রেখো’র বাজেট।

ঈদুল আজহার ছবিটি প্রযোজনা করছে দেশের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান হার্টবিট প্রডাকশন হাউজ। মুক্তির দু’দিন আগে চ্যানেল আই অনলাইনকে ‘মনে রেখো’ নিয়ে কিছু তথ্য জানালেন হার্টবিট প্রডাকশন হাউজের কর্ণধার ও ছবির প্রযোজক তাপসী ফারুক।

তিনি বলেন, ‘মনে রেখো যৌথ প্রযোজনায় নির্মাণ করতে চেয়েছিলাম। দু’দেশ থেকে শিল্পীদের নির্বাচন করি সেভাবেই। ছবির পরিচালকের কথা মত (ওয়াজেদ আলী সুমন) আগাই। কিন্তু শুটিং শুরুর ঠিক আগে বুঝতে পারি, যেসব শর্ত ও নিয়মকানুন আছে তাতে যৌথ প্রযোজনায় ছবি নির্মাণ কষ্টসাধ্য।’

‘সেজন্য যৌথ প্রযোজনা বাদ দেই। এরপর এককভাবে মনে রেখো-তে বিনিয়োগ করি। এজন্য ছবির বাজেট তুলনামুলক বেশি। এই ছবির বাজেট প্রায় ৩ কোটি ২০ লাখ টাকা। বনি আর মাহি দুজনই স্টার। তারা তাদের প্রাপ্য পারিশ্রমিক নিয়েছে।’

আরো বলেন, ‘এছাড়া বাংলাদেশ ও কলকাতার আরও শিল্পী আছেন, যাদের শিডিউল নিতে হয়েছে চড়া মূল্যে। নেপালের এক্সক্লুসিভ লোকেশনে ৪টি গানের শুটিং হয়েছে। সেখানে ৭০ জন বিদেশি ব্যাকআপ ড্যান্সার ছিল। গানগুলোর কোরিওগ্রাফি করেছেন বলিউডের আদিল শেখ। চার গানে তার চাহিদামতো পারিশ্রমিক দিয়েছি। এছাড়া মাহি, বনি, জয়ীর পোশাক ডিজাইনার অভিষেককে দিতে হয়েছে অনেক।’

তিনি বলেন, ‘হার্টবিট সবসময় বিগ বাজেটে ছবি নির্মাণ করে। ভালো কাজ উপহার দেয়ার জন্য হার্টবিটের বিশ্বাসযোগ্যতা রয়েছে। ভালো ছবি বানাতে হার্টবিট কখনও কার্পণ্য করে না। সেজন্য আমার সব ছবির বাজেট বেশি থাকে। আর যৌথ প্রযোজনায় না করে এককভাবে প্রযোজনা করায় বাজেট বেশি লেগেছে।’

‘মনে রেখো’ পরিচালনা করেছেন ওয়াজেদ আলী সুমন। মাহি-বনি ছাড়াও এতে অভিনয় করেছেন মিশা সওদাগর, জয়ী, তুলিকা, বিশ্বজিৎ। রোববার ছবিটি সেন্সর বোর্ড থেকে আনকাট মুক্তির অনুমতি পেয়েছে।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

স্পটলাইট

Movies to watch in 2018
Coming Soon

[wordpress_social_login]

Shares