Select Page

মাত্র ২১ দিনে ঈদের ছবি নির্মাণ করান জহির রায়হান

মাত্র ২১ দিনে ঈদের ছবি নির্মাণ করান জহির রায়হান

“১৯৬৮ সাল। আসছে ঈদ, বাংলা ভাষার কোনো সিনেমা মুক্তি পাবে না। ইফতেখারুল আলম স্টার ফিল্মস পরিবেশক কর্ণধার বিষয়টি ভাবনায় নিলেন। ডাকলেন জহির রায়হানকে। বাংলা সিনেমা চাই। ২১ দিনে তৈরি হলো ঈদের ছবি দুই ভাই।”

এই তথ্য জানালেন অনেক হিট সিনেমার নির্মাতা ও চলচ্চিত্র শিক্ষক মতিন রহমান। করোনার কারণে শূন্য প্রেক্ষাগৃহের এই সময়ে প্রথম আলোতে ঈদের সিনেমা নিয়ে একটি লেখায় উল্লেখ করেছেন কিছু তথ্য।

উল্লেখ, জহির রায়হানের প্রযোজনায় ‘দুই ভাই’-এর পরিচালক ছিলেন আমজাদ হোসেন, নুরুল হক বাচ্চু, রহিম নওয়াজ ও মুস্তাফা মেহমুদ।

স্বাধীনতার বছর প্রসঙ্গে মতিন রহমান লেখেন, “স্তব্ধ, নিঃশব্দ ছিল সিনেমা প্রজেক্টরের ঘর ঘর শব্দ ১৯৭১ সালে। সংগ্রাম, সংকটকালে স্টুডিও ফ্লোরে আলো জ্বলেনি। পরিচালকের কণ্ঠে উচ্চারিত হয়নি অ্যাকশন কাট। বন্ধ ছিল নতুন সিনেমা মুক্তি। আজিজুর রহমানের সমাধান এবং মোস্তফা মেহমুদের মানুষের মন সেন্সরপ্রাপ্ত সিনেমা দুটি প্রস্তুতও ছিল। ১৯৭১ সাল পুরো সময়ে সিনেমাশূন্যকাল।”

তবে এ নিয়ে চলচ্চিত্র গবেষক মো. শামসুল আলম বাবু ফেইসবুকে মতির রহমানকে উল্লেখ করে লেখেন, “১৯৭১ সালে ৮টি ছবি মুক্তি পেয়েছিলো – স্বরলিপি, নাচের পুতুল, স্মৃতিটুকু থাক, শেষ রাতের তারা, আমার বউ, সুখ দুঃখ, গায়ের বধু, জলছবি – শেষ তিনটা – ৬ ফেব্রুয়ারি – ঈদুল ফিতরের দিন।”

এ ছাড়া ঈদের সিনেমা শুরুর প্রসঙ্গটি মতিন রহমান তোলেন এভাবে, “বাংলাদেশর আমরা ঈদে নতুন সিনেমা দেখার অভিজ্ঞতা লাভ করি ১৯৬৪ সালে। সুভাষ দত্তের সুতরাং এবং জহির রায়হানের প্রথম সিনেমাস্কোপ সিনেমা সঙ্গম ঈদের সিনেমা হিসেবে দর্শকপ্রিয়তা লাভ করে। এর ধারাবাহিকতায় ঈদুল ফিতর এবং ঈদুল আজহা— দুটি দিন সিনেমা দর্শক, নির্মাতা ও কুশলীদের জন্য অতিরিক্ত উৎসব হিসেবে স্বীকৃতি পায়।”


মন্তব্য করুন

Shares