Select Page

শিহাবের ‘আনারকলি’তে দেবাশীষের বাগড়া

শিহাবের ‘আনারকলি’তে দেবাশীষের বাগড়া

মুঘল সম্রাট আকবরের ছেলে সেলিম প্রেমে পড়েছিলেন নর্তকী আনারকলির। কিন্তু তাদের সে প্রেম মেনে নিতে পারেননি সম্রাট। জীবন্ত কবর দেন আনারকলিকে। এ কাহিনী নিয়ে দিলীপ বিশ্বাস ১৯৮১ সালে নির্মাণ করেন ‘আনারকলি’। প্রধান চরিত্রে ছিলেন রাজ্জাক-ববিতা। গাজী মাজহারুল আনোয়ারের প্রযোজনায় দেশ কথাচিত্র থেকে এটি নির্মিত হয়।

একই নামে সিনেমা নির্মাণে শিহাব শাহীনের উদ্যোগে বাগড়া দিলেন নির্মাতা দেবাশীষ বিশ্বাস। তিনি ফেসবুকে জানান, ‘আনারকলি’ নাম ও গল্প কপিরাইট তার বাবা দিলীপ বিশ্বাস ও গাজী মাজহারুল আনোয়ারের নামে করা। তাই কেউ এ নামে ছবি বানাতে চাইলে উত্তরসূরী হিসেবে তার অথবা গাজী মাজহারুলের কাছ থেকে অনুমতি নিতে হবে।

সাধারণত সিনেমার কপি রাইট প্রযোজকের হাতেই থাকে। তেমনটাই বলছেন শিহাব শাহীন। ‘ছুঁয়ে দিলে মন’ নির্মাতা জানান, ‘আনারকলি’র কপিরাইট গাজী মাজহারুল আনোয়ারের, দেবাশীষের না। উনি আবার এ ছবির তিন প্রযোজকের একজন শাহরিয়ার শাকিলের চাচা। শাকিল ভাই উনার সাথে কথা বলেছেন। তিনি অনুমতি দিয়েছেন। আর সিনেমাটির প্রধান প্রযোজক ‘আয়নাবাজি’র গাউসুল আলম শাওন।

শিহাব আরো জানান, তার ছবির গল্প হবে সম্পূর্ণ আলাদা। ১ ফেব্রুয়ারি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ‘আনারকলি’র অভিনয় শিল্পীদের নাম ঘোষণা করা হবে। শুটিং শুরু হবে ১ এপ্রিল।

এর আগে নতুন নির্মাতাদের সিনেমা নিয়ে সমালোচনা করে নিন্দিত হয়েছিলেন দেবাশীষ। এ কাণ্ড সর্বশেষ ঘটে ‘আয়নাবাজি’র ক্ষেত্রে। তবে তিনি শিহাব শাহীনের মন্তব্যের উত্তর দেননি।

 


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Coming Soon
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?

[wordpress_social_login]

Shares