Select Page

সিনেমার ভুল : ঢাকা অ্যাটাক

সিনেমার ভুল : ঢাকা অ্যাটাক

‘ঢাকা আ্যাটাক’ একটি ভালো মানের কপ থ্রিলার মুভি। আমরা আগেই বলেছি মোবাইলজনিত কোন ভুল আমরা কাউন্ট করব না। সেগুলো বাদ দিলে দীপঙ্কর দীপন পরিচালিত এই সিনেমার উল্লেখযোগ্য ৪টি ভুল আমাদের চোখে পড়েছে।

১. সিনেমার শুরুতেই কেমিক্যাল লুট করার দৃশ্যে দুর্বৃত্তরা লোহার সিঁড়িতে দাঁড়ানো একজন সিকিউরিটি কর্মীকে গুলি করে, যিনি সিঁড়িতে উপুড় হয়ে লুটিয়ে পড়েন। দেখানো হলো সিঁড়িতে উপরে তোলা তার লাশের হাত থেকে রক্ত পড়ছে। অথচ লোকটির গুলি লেগেছিল পিঠে এবং মাধ্যাকর্ষণ সূত্রমতে রক্ত শরীরের নিম্নাংশ দিয়ে গড়িয়ে পড়ার কথা। রক্ত উপরে উঠল কেমনে!

২. বাচ্চাদের স্কুলে বোমা হামলায় ৮ জন বাচ্চা নিহত হলে পুলিশ অফিসার শতাব্দী ওয়াদুদ নির্দেশ দিলেন এই ৮ বাচ্চার পরিবারের সাথে আন্ডারওয়ার্ল্ডের সম্পর্ক আছে কিনা তদন্ত করতে। অথচ এই ৮ বাচ্চাকে কিন্তু বাছাই করে মারা হয়নি, বোমা ফেটেছে তারা মরেছে, এখানে যে কোন বাচ্চা মারা যেতে পারতো। তাহলে শুধু মৃত ৮ বাচ্চার পরিবারকে তদন্ত করা অযৌক্তিক ও অপ্রয়োজনীয় কর্মকাণ্ড ছাড়া কিছুই না!

৩. সিনেমার খলচরিত্র জিসান ছোটবেলা থেকেই খুব ধূর্ত ও ক্রিমিনাল মাইন্ডেড। কোন বোকামি না করেই অপরাধ করতে পারদর্শী। অথচ রেস্টুরেন্টে সাংবাদিক চৈতিকে এত কাছে থেকে গুলি করার জন্য কেন লেজার লাইট ব্যবহার করতে গেলেন তা জাতি জানতে পারেনি।

৪. সিনেমার সবচেয়ে বড় ও দৃষ্টিকটু ভুল ছিল আরিফিন শুভ’র চুল। এক দৃশ্যে ছোট চুল তো পরের দৃশ্যে বাবরি চুল, আবার পরের দৃশ্যে ছোট চুল। এই ব্যাপারে অবশ্য শুভ সকলের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

স্পটলাইট

Movies to watch in 2018
Coming Soon

Shares