Select Page

হুমায়ূনের জন্মদিনের আগে ‌‘ডুব’, কাকতালীয় নাকি অন্যকিছু?

হুমায়ূনের জন্মদিনের আগে ‌‘ডুব’, কাকতালীয় নাকি অন্যকিছু?

লেখক-নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদের জন্মবার্ষিকী ১৩ নভেম্বর। তার ১০দিন আগে ৩ নভেম্বর মুক্তি পাচ্ছে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর আলোচিত সিনেমা ‘ডুব’। বিষয়টি কি নিছক কাকতালীয়?

এ ধরনের প্রশ্ন জমতে শুরু করেছে ইতোমধ্যে। গত বছরের শেষ দিকে শোনা গেল হুমায়ূনের জীবনী অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে ‘ডুব’, তখন থেকে প্রশ্ন বা কৌতুহলের শেষ নেই। এর যথেষ্ট কারণ আছে— হুমায়ূনের জীবনের সবচেয়ে নাটকীয় অংশ অর্থাৎ মেহের আফরোজ শাওনের সঙ্গে সম্পর্ক ও বিয়ে বাংলাদেশের বাজারে দারুণ বিক্রয়যোগ্য বিষয় হতে পারে, যতটা না লেখক হিসেবে তার স্ট্রাগল। ফলে বিষয়টি টের পেয়ে আপত্তিও তোলেন শাওন। শেষ পর্যন্ত সম্প্রতি সেন্সর ছাড়পত্র পেয়েছে সিনেমাটি। আর কাটছাট নিয়েও নানামুখী গুজব আছে।

ইতোমধ্যে বিদেশে একটু পুরস্কারও জিতেছে ‘ডুব’। নামি-দামি পত্রিকায় ছাপানো হয়েছে রিভিউ। তবে সন্তপর্নে এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে ভ্যারাইটিতে প্রকাশিত রিভিউ। এর কারণ হিসেবে অনেকেই ‘সেক্স স্ক্যান্ডাল’ শব্দটির উপস্থিতির দিকে নির্দেশ করছেন।

আবার অন্য একটি রিভিউ বলছে ‘ডুব’-এর নায়ক জাভেদ হোসেনের দ্বিতীয় স্ত্রীকে নাকি দর্শক একটুও সহানুভূতি দেখাবে না। সিনেমার প্রচারণার জন্য এটুকুই তা যথেষ্ট। নির্মাতা স্বীকার না করলেও দর্শককে অনেক ইঙ্গিত দিচ্ছে এসব কিছু। এছাড়া রোকেয়া প্রাচীর ভাষ্য তো রয়েছেই।

তবে কেন হুমায়ূনের জন্মের মাসে! একে পরিকল্পিত (যদি নির্মাতা-প্রযোজকের মনে খবর জানেন, তবে তো!) বলবেন কিনা তা ব্যক্তিগত ধ্যান-ধারণার উপর, আবার ব্যবসায়িক বুদ্ধির হিসেবেও দেখা যায়।

অন্যদিকে তাকালে একটা সমীকরণ আসে— ‌‘ডুব’ মুক্তির প্রাথমিক ঘোষণা ছিল পয়লা বৈশাখ। এটা একটা সততার দিকও বটে। কিন্তু বেখাপ্পা আপত্তি ও অন্যান্য দিক মিলিয়ে ঠেলে দিল বছরের শেষ দিকে। মজার বিষয় হলো ফারুকীর ছবি মুক্তির দিকে তাকালে দর্শকরা দুটি স্লট পাবেন— বছরের শুরু ও শেষ। শুরুর (জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি) দিকে মুক্তি পেয়েছে তার ৩ সিনেমা, শেষ দিকে (সেপ্টেম্বর ও অক্টোবর) মুক্তি পেয়েছে বাকি দুটি। সে হিসেব ‘ডুব’ মুক্তি ফারুকীয় ট্র্যাডিশন মেনেই চলছে।

নভেম্বরে মুক্তির দিক থেকে হুমায়ূনের জন্মদিন ছাড়াও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া ও এসকে মুভিজের অন্য হিসেবও থাকতে পারে। বিশেষ করে ঈদুল আজহার-দুর্গা পূজা ও বড়দিনের মধ্যবর্তী সময় হওয়ায় তেমন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে হবে না অন্য সিনেমার সঙ্গে, যদিও বাংলাদেশে ঈদ ছাড়া অন্য দুই উপলক্ষ তেমন গুরুত্ব পায় না। নতুন ভারতীয়দের প্রাধান্য আছে এমন সিনেমা দুই দেশে একই সময়ে মুক্তি পায়। তাই জাজের সে হিসেব অসম্ভব নয়।

দেখা যাক ‘ডুব’ দেখে দর্শক কেমন বিনোদন পান। পরিকল্পিত না কাকতালীয় সে ভাবনা থাক না আপাতত!


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

Shares