Select Page

কলকাতার ‘নয়নের আলো’তে নেই বুলবুল

কলকাতার ‘নয়নের আলো’তে নেই বুলবুল

ahmed-imtaz-bulbul‘আমার বুকের মধ্যেখানে মন যেখানে হৃদয় যেখানে’, ‘আমার সারা দেহ খেও গো মাটি’, ‘আমার বাবার মুখে প্রথম যেদিন শুনেছিলাম গান’, ‘আমি তোমার দুটি চোখের দুটি তারা হয়ে থাকবো’, ‘এই আছি এই নাই, ওরে এই আছি এই নাই’- এ গানগুলো তিন যুগেরও বেশি সময় ধরে শ্রোতার মুখে মুখে।

১৯৮৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘নয়নের আলো’ ছবিতে ছিলো এগুলো। সব গানের কথা লিখেছেন এবং সুর ও সংগীত পরিচালনা করেছেন আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল। প্রয়াত বেলাল আহমেদ পরিচালনায় এতে অভিনয় করেন জাফর ইকবাল, সুবর্ণা মুস্তাফা ও কাজরী।

ব্যবসাসফল ছবিটি ১৯৯৮ সালে কলকাতায় রিমেক করেন পরিচালক স্বপন সাহা। ‘নয়নের আলো’ নামে এ ছবিতে অভিনয় করেন তাপস পাল, ইন্দ্রানী হালদার, প্রসেনজিৎ, শ্রীলেখা মিত্র। এতে ‘আমার সারা দেহ খেও গো মাটি’, ‘আমার বাবার মুখে প্রথম যেদিন শুনেছিলাম গান’, ‘আমি তোমার দুটি চোখের দুটি তারা হয়ে থাকবো’ গান তিনটি ব্যবহার হয়েছে। কিন্তু সুরকার ও গীতিকার হিসেবে নাম রয়েছে অন্যের!

nayaner-aloশুক্রবার (৪ নভেম্বর) ফেসবুকে এ নিয়ে বিস্ময় আর হতাশা প্রকাশ করে এক স্ট্যাটাসে আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল লিখেছেন, ‘অবাক করা বিষয় এই, ছবিটিতে সুরকারের নাম অশোক ভদ্র এবং কথা সুভাষ ভদ্র ও সমীর ঘোষ উল্লেখ করা হয়েছে। এ কেমন কথা! এ-ও কি হয়! আবার এক জায়গায় লেখা আছে, গানের কথা প্রচলিত।’

এই স্ট্যাটাসে সংগীতাঙ্গনের শিল্পীরা নিন্দা জানিয়েছেন। গুণী শিল্পী ফেরদৌসী রহমান বলেন, ‘অবাক কান্ড। কিছু একটা করা দরকার। দিন দুপুরে ডাকাতি!’

এ ছাড়া কমেন্ট করেছেন গীতিকার কবির বকুল, কণ্ঠশিল্পী দিনাত জাহান মুন্নী, আঁখি আলমগীর, রিজভী ওয়াহিদ, নতুন প্রজন্মের সংগীতশিল্পী সাব্বির জামান, নাট্যকর্মী রুমা মোদক।  তারা সবাই আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলকে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

অবশ্য কলকাতার ছবিটিতে কাহিনী ও চিত্রনাট্যকার হিসেবে বেলাল আহমেদের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। কিন্তু আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের নাম এড়িয়ে গিয়ে তারা দৈন্যতারও পরিচয় দিলেন বলে মনে করছেন শিল্পীসমাজ।

সূত্র : বাংলা নিউজ টোয়েন্টিফোর


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

স্পটলাইট

Movies to watch in 2018
Coming Soon

[wordpress_social_login]

Shares