Select Page

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার (২০০৮-১০)

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার (২০০৮-১০)

২০০৮ : এই বছর ২৪ টি শাখায় পুরস্কার প্রদান করা হয়। প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক সৈয়দ মুস্তফা সিরাজের ‘রানীঘাটের বৃত্তান্ত’ অবলম্বনে মুরাদ পারভেজ নির্মিত প্রশংসিত চলচ্চিত্র ‘চন্দ্রগ্রহণ’ সর্বোচ্চ ৭টি শাখায় পুরস্কার লাভ করে।এই বছর চিত্রনায়ক রিয়াজ অভিনীত ৩টি চলচ্চিত্র মিলে ১৯ টি শাখায় জাতীয় পুরস্কার লাভ করে,পাশাপাশি তিনি তৃতীয়বারের মত জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন। প্রখ্যাত অভিনেত্রী দিলারা জামান, গীতিকার কবির বকুল ও সুরকার ইমন সাহা প্রথমবারের মত জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন।

১. সেরা চলচ্চিত্র : চন্দ্রগ্রহণ
২. সেরা পরিচালক : মুরাদ পারভেজ (চন্দ্রগ্রহণ)
৩. সেরা কাহিনীকার : মো. রফিকুজ্জামান (মেঘের কোলে রোদ)
৪. সেরা চিত্রনাট্যকার : মুরাদ পারভেজ (চন্দ্রগ্রহণ)
৫. সেরা সংলাপ রচয়িতা : মুরাদ পারভেজ (চন্দ্রগ্রহণ)
৬. সেরা সংগীত পরিচালক : ইমন সাহা (চন্দ্রগ্রহণ)
৭. সেরা নৃত্য পরিচালক : মাসুম বাবুল (কি যাদু করিলা)
৮. সেরা অভিনেতা : রিয়াজ (কি যাদু করিলা)
৯. সেরা অভিনেত্রী : পপি (মেঘের কোলে রোদ)
১০. সেরা সহ অভিনেতা : শামস সুমন (স্বপ্নপূরণ)
১১. সেরা সহ অভিনেত্রী (যৌথভাবে) : দিলারা জামান ও চম্পা (চন্দ্রগ্রহণ)
১২. সেরা খল অভিনেতা : জহিরউদ্দিন পিয়ার (চন্দ্রগ্রহণ)
১৩. সেরা শিশু শিল্পী : দিঘী (এক টাকার বউ)
১৪. বিশেষ শাখায় সেরা শিশু শিল্পী : ওয়াফা (আমার আছে জল)
১৫. সেরা গীতিকার : কবির বকুল (মেঘের কোলে রোদ)
১৬. সেরা সুরকার : আলম খান (কি যাদু করিলা)
১৭. সেরা গায়ক : অ্যান্ড্রু কিশোর (কি যাদু করিলা)
১৮. সেরা গায়িকা : কনকচাঁপা (এক টাকার বউ)
১৯. সেরা চিত্রগ্রাহক : মাহফুজুর রহমান খান (আমার আছে জল)
২০. সেরা সম্পাদক: মো. সহিদুল হক (কি যাদু করিলা)
২১. সেরা শিল্প নির্দেশক : কলন্তর (মেঘের কোলে রোদ)
২২. সেরা শব্দগ্রাহক : রেজাউল করিম (কি যাদু করিলা)
২৩. সেরা পোশাক ও সাজসজ্জা : শামসুল ইসলাম (মেঘের কোলে রোদ)
২৪. সেরা রূপসজ্জাকর : শামসুল ইসলাম (মেঘের কোলে রোদ।

২০০৯ : এই বছর মোট ২৬টি শাখায় পুরস্কার প্রদান করা হয়। চালু হয় প্রখ্যাত শিল্পীদের সম্মানিত করা জন্য ‘আজীবন সম্মাননা’ বিভাগ, প্রথম বছরে এই সম্মাননায় ভূষিত হন অভিনেত্রী সুলতানা জামান। সৈয়দ অহিদুজ্জামান ডায়মন্ডের ছবি ‘গঙ্গাযাত্রা’ সর্বোচ্চ ৮টি শাখায় পুরস্কার লাভ করে।এছাড়া গিয়াসউদ্দিন সেলিম নির্মিত ‘মনপুরা’ সেরা চলচ্চিত্রের মর্যাদা লাভ করে।টিভি অভিনেতা মামুনুর রশীদ, চঞ্চল চৌধুরী প্রথমবারের মতো জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন।সঙ্গীত ভূবনে প্রায় তিন দশক কাটানোর পর কুমার বিশ্বজিৎ প্রথম জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন। তবে নিপুনের পুরস্কার প্রাপ্তি নিয়ে বেশ বিতর্ক উঠে, বিশেষ করে সিমলা (গঙ্গাযাত্রা)-কে হারিয়ে পুরস্কার জয়টা বেশ বিস্ময়কর!

১. আজীবন সম্মাননা : সুলতানা জামান
২. সেরা চলচ্চিত্র : মনপুরা
৩. সেরা পরিচালক : সৈয়দ অহিদুজ্জামান ডায়মন্ড (গঙ্গাযাত্রা)
৪. সেরা কাহিনীকার : সৈয়দ অহিদুজ্জামান ডায়মন্ড (গঙ্গাযাত্রা)
৫. সেরা চিত্রনাট্যকার : গিয়াসউদ্দিন সেলিম (মনপুরা)
৬. সেরা সংলাপ রচয়িতা : মুজতবা সউদ (চাঁদের মত বউ)
৭. সেরা সংগীত পরিচালক : আলম খান (এবাদত)
৮. সেরা নৃত্য পরিচালক : তানজিল (আমার প্রাণের প্রিয়া)
৯. সেরা অভিনেতা (যৌথভাবে) : ফেরদৌস(গঙ্গাযাত্রা) ও চঞ্চল চৌধুরী (মনপুরা)
১০. সেরা অভিনেত্রী : পপি(গঙ্গাযাত্রা)
১১. সেরা সহ অভিনেতা : শহিদুল আলম সাচ্চু (বৃত্তের বাইরে)
১২. সেরা সহ অভিনেত্রী : নিপুন (চাঁদের মত বউ)
১৩. সেরা খল অভিনেতা : মামুনুর রশীদ (মনপুরা)
১৪. সেরা কৌতুক অভিনেতা : এটিএম শামসুজ্জামান (মন বসে না পড়ার টেবিলে)
১৫. সেরা শিশু শিল্পী : সৈয়দা অহিদা সাবরিনা (গঙ্গাযাত্রা)
১৬. বিশেষ শাখায় সেরা শিশু শিল্পী : জারকান (প্রিয়তমেষু)
১৭. সেরা গীতিকার : কবির বকুল (স্বামী স্ত্রীর ওয়াদা)
১৮. সেরা সুরকার : কুমার বিশ্বজিৎ (স্বামী স্ত্রীর ওয়াদা)
১৯. সেরা গায়ক : কুমার বিশ্বজিৎ (স্বামী স্ত্রীর ওয়াদা)
২০. সেরা গায়িকা (যৌথভাবে) : চন্দনা মজুমদার ও কৃষ্ণকলি (মনপুরা)
২১. সেরা চিত্রগ্রাহক : মাহফুজুর রহমান খান (বৃত্তের বাইরে)
২২. সেরা সম্পাদক : জুনায়েদ হালিম (বৃত্তের বাইরে)
২৩. সেরা শিল্প নির্দেশক :  কলন্তর (গঙ্গাযাত্রা)
২৪. সেরা শব্দগ্রাহক : সুজন মাহমুদ (বৃত্তের বাইরে)
২৫. সেরা পোশাক ও সাজসজ্জা : দিলীপ সিং (গঙ্গাযাত্রা)
২৬. সেরা রূপসজ্জাকর : খলিলুর রহমান (গঙ্গাযাত্রা)

২০১০ : এই বছর ২৫টি শাখায় পুরস্কার প্রদান করা হয়। আজীবন সম্মাননায় ভূষিত হন মুকুটহীন নবাব-খ্যাত কিংবদন্তি অভিনেতা আনোয়ার হোসেন।জাকির হোসেন রাজুর ব্যবসাসফল সিনেমা ‘ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না’ সর্বোচ্চ ৭টি শাখায় পুরস্কার লাভ করে।এছাড়া খালিদ মাহমুদ মিঠু নির্মিত ‘গহীনে শব্দ’ সেরা চলচ্চিত্রের পুরস্কার লাভ করে।জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা, নায়ক শাকিব খান, গায়িকা শাম্মী আখতার প্রথমবারের মতো জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন।গীতিকার কবির বকুল পরপর তিনবার পুরস্কার পেয়ে হ্যাটট্টিক করেন। তবে জুরি বোর্ডের সদস্য হওয়া সত্ত্বেও আলমগীর ও সুজেয় শ্যামের পুরস্কার প্রাপ্তি নিয়ে বিতর্ক উঠে। রানওয়ে, অপেক্ষা সিনেমাগুলো কোনো বিভাগেই পুরস্কার না পাওয়া ছিল হতাশাজনক।

১. আজীবন সম্মাননা : আনোয়ার হোসেন
২. সেরা চলচ্চিত্র : গহীনে শব্দ
৩. সেরা পরিচালক : খালিদ মাহমুদ মিঠু (গহীনে শব্দ)
৪. সেরা কাহিনীকার : জাকির হোসেন রাজু (ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না)
৫. সেরা চিত্রনাট্যকার : নারগিস আক্তার (অবুঝ বউ)
৬. সেরা সংলাপ রচয়িতা : জাকির হোসেন রাজু (ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না)
৭. সেরা সংগীত পরিচালক : সুজেয় শ্যাম (অবুঝ বউ)
৮. সেরা নৃত্য পরিচালক : ইমদাদুল হক খোকন (মোঘল এ আজম)
৯. সেরা অভিনেতা : শাকিব খান (ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না)
১০. সেরা অভিনেত্রী : পূর্ণিমা (ওরা আমাকে ভালো হতে দিল না)
১১. সেরা সহ অভিনেতা : আলমগীর (জীবন মরণের সাথী)
১২. সেরা সহ অভিনেত্রী : রোমানা (ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না)
১৩. সেরা খল অভিনেতা : মিজু আহমেদ (ওরা আমাকে ভালো হতে দিল না)
১৪. সেরা কৌতুক অভিনেতা : আফজাল শরীফ (নিঃশ্বাস আমার তুমি)
১৫. সেরা শিশু শিল্পী : দীঘি (চাচ্চু আমার চাচ্চু)
১৬. সেরা গীতিকার : কবির বকুল (নিঃশ্বাস আমার তুমি)
১৭. সেরা সুরকার : শেখ সাদী খান (ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না)
১৮. সেরা গায়ক : এস আই টুটুল (ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না)
১৯. সেরা গায়িকা : শাম্মী আখতার (ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না)
২০. সেরা চিত্রগ্রাহক : হাসান আহমেদ (গহীনে শব্দ)
২১. সেরা সম্পাদক : মুজিবুর রহমান দুলু (অবুঝ বউ)
২২. সেরা শিল্প নির্দেশক : মহিউদ্দিন ফারুক (মনের মানুষ)
২৩. সেরা পোশাক ও সাজসজ্জা : বিবি রাসেল (মনের মানুষ)
২৪. সেরা রুপসজ্জাকর : আবদুর রহমান (মনের মানুষ)


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

স্পটলাইট

Saltamami 2018 20 upcomming films of 2019
Coming Soon
ঈদুল আজহায় কোন সিনেমাটি দেখছেন?
ঈদুল আজহায় কোন সিনেমাটি দেখছেন?
ঈদুল আজহায় কোন সিনেমাটি দেখছেন?

[wordpress_social_login]

Shares