Select Page

‘ডুব’-এর কাটছাট প্রসঙ্গে মুখ খুললেন ফারুকী

‘ডুব’-এর কাটছাট প্রসঙ্গে মুখ খুললেন ফারুকী

যদিও একাধিক সংবাদমাধ্যম বলছে সেন্সর বোর্ডের নথি ফাঁস হয়েছে। আদতে তেমন কিছু ঘটেনি। সেন্সর বোর্ডের ওয়েবসাইট নিয়মিতই জানানো হয় আগের মাসের ছাড়পত্র পাওয়া সিনেমাগুলোর অবস্থা। তেমনটাই জানিয়েছে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘ডুব’ নিয়ে।

সেন্সর বোর্ডের ওয়েবসাইট জানায়, সিনেমাটির ৫ দৃশ্যে কর্তনের নির্দেশ দেওয়া হয়। যার দৈর্ঘ্য ২ মিনিট ২৫ সেকেন্ড।

এবার এ নিয়ে মুখ খুললেন নন্দিত নির্মাতা। তিনি ফেসবুকে লেখেন, ‘এই বিষয়ে আমি কথা বলতে চাই নাই!

এখন যেহেতু সরকারের এই চিঠি উন্মুক্ত প্লাটফর্মে কেউ এনেছেন এবং গত কিছু দিন ধরেই এই বিষয়ে আমাদের অগণিত ভক্ত দর্শক চিঠি লিখেছেন, সেহেতু আমার একটা ভাষ্য লিপিবদ্ধ থাকা দরকার মনে করছি।

১: চিঠিটা যারা প্রচার করেছেন তারা একদিকে আমাদের এবং দর্শকদের উপকারই করেছেন। চিঠির কল্যানে সবাই জানতে পারলেন আমরা সর্বসাকুল্যে দুই মিনিট পঁচিশ সেকেন্ড বাদ দিয়েছি। তার মানে গল্প যা থাকার তা-ই আছে। সামনে ট্রেলার আসবে, তখনই আরো স্পষ্ট হওয়া যাবে।

আমার আর্টিস্টিক এক্সপ্রেশন বা গল্পের ক্ষতি হয় এমন কোনো কাট সেন্সর বোর্ড আমাকে করতে বলে নাই, আমিও তা করার প্রশ্নই আসে না।

২: “বস, আপনার কাছে আমরা এই আপোষ প্রত্যাশা করি না। আমাদেরকে আপনি হারতে দিবেন না, প্লিজ!”

এই ধরণের চিঠি প্রচুর পাচ্ছি। এর পেছনে যে ভালোবাসা আছে সেটার জন্য আমি কৃতজ্ঞ। কিন্তু আমি তো কোনো যুদ্ধ করতে আসি নাই। ফলে জয়-পরাজয়ের খেলায় আমি নাই। আমি একটা গল্প বলতে আসছি, সেটাও মোটেও যুদ্ধংদেহী না। সেখানে বরং কিছু ভীষণ ভালনারেবল চরিত্র আছে। এখানে যুদ্ধের কোনো জায়গাই নাই, বরং ধ্যানের জায়গা থাকতে পারে, ভাবনার জায়গা থাকতে পারে।

যাইহোক আবার আসি কাটের প্রসঙ্গে। যদিও আমি এইরকম যে কোনো অপ্রাসঙিক কাটেরই বিরুদ্ধে, কিন্তু কখনো কখনো আপনাকে বিগার পিকচার দেখতে পারতে হবে।

বাদ দেয়া শট এবং সংলাপ দেখলেই আক্কেলমান্দ লোকও বুঝতে পারবেন “জুতা বদলানোর শট বা এই গাড়ী যাবে গাজীপুর”- এইগুলো বাদ দিলেই গল্পের গাড়ীর গন্তব্য বদলে যাবে না, গল্পের গাড়ী তার বাড়ি পৌঁছবেই।’


মন্তব্য করুন

Shares