Select Page

ঢালিউডে ওয়েস্টার্ন ঘরানার সফল নির্মাতা দেওয়ান নজরুল

ঢালিউডে ওয়েস্টার্ন ঘরানার সফল নির্মাতা দেওয়ান নজরুল

ওয়েস্টার্ন ঘরানা সারা বিশ্বের চলচ্চিত্রে অতিচর্চিত একটি বিষয়। বাংলা চলচ্চিত্রে সর্বপ্রথম এ ধারার সম্পূর্ণ কোন ছবি নির্মাণের সাহস করেন পরিচালক দেওয়ান নজরুল। প্রায় ৪৩ বছর আগে ‘আসামী হাজির’ নির্মাণ করে দেখিয়ে দিয়েছিলেন ওয়েস্টার্ন ছবিতে আমরাও কোন অংশে কম নই।

ওয়েস্টার্ন ছবি নির্মাণ আর দশটা ছবির মতো এত সহজ কোন কাজ নয়। এর জন্য সবার আগে দরকার মেধা ও অদম্য ইচ্ছা, যা নজরুল সাহেবের মাঝে বিদ্যমান ছিল। হাল সময়ের বড় বড় তারকা, বিশাল সেট, বাহারি পোশাক, শত শত অশ্বের দৌড়; সঙ্গে বন্দুকের গোলা-বারুদের গন্ধে যেন পুরো ইউনিট জুড়ে থাকতো অন্য মেজাজের ছবি তৈরির গল্পে।

তাই তো এক সময় তার ছবির আগে বলা হতো ‘বিশাল ক্যানভাসে নির্মিত’, সঙ্গে ‘ডায়নামিক’ খেতাব পাওয়া দেওয়ান নজরুলের নাম উচ্চারিত হতো উচ্চস্বরে।

দেওয়ান নজরুলের জন্ম ১৯৫০ সালের ৩ ডিসেম্বর সিরাজগঞ্জে। যিনি একাধারে পরিচালক, প্রযোজক, কাহিনীকার, গীতিকার, সাংবাদিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা। সিরাজগঞ্জ কলেজ থেকে বিএ শেষ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতার উপর ডিপ্লোমা নেন। মূলত সাংবাদিকতা থেকে চলচ্চিত্র পরিচালনায় আসেন তিনি।

‘দোস্ত দুশমন’ ছবির দৃশ্য

বিগ ম্যান-খ্যাত গুণী নির্মাতা ইবনে মিজানের সহকারী হিসেবে চলচ্চিত্রে কর্মজীবন শুরু করেন দেওয়ান নজরুল। বাস্তবে তারা ছিলেন ফুপাতো-মামাতো ভাই। গুরু ইবনে মিজানের আশির্বাদ সঙ্গে নিয়ে ওয়াসিম, সোহেল রানা, জসিম ও অলিভিয়া অভিনীত ‘আসামী হাজির’ দিয়েই প্রথম পরিচালনায় আসেন তিনি। তবে দুর্ভাগ্যবশত ছবিটি সে সময়ে আর নির্মিত হয়নি, পরর্বতীতে নির্মিত হলেও ততদিনে মুক্তি পেয়ে গেছে প্রথম চলচ্চিত্র ‘দোস্ত দূশমন’ (১৫/০৭/১৯৭৭), যা বোম্বের বাম্পার হিট ছবি ‘শোলে’ থেকে কপি করেছিলেন। কপি হলেও অসাধারণ নির্মাণ ও চমৎকার অভিনয়ের গুনে ছবিটি হয়ে যায় মেগা হিট।

চিত্রনায়িকা রঞ্জিতা, নায়ক ওয়াসিম, চিত্রগ্রাহক মাহফুজুর রহমানের সঙ্গে দেওয়ার নজরুল

পরবর্তীতে প্রথমে শুরু করা ‘আসামী হাজির’ ছবিতে অলিভিয়ার জায়গায় ববিতাকে যুক্ত করে মুক্তি দেন (২২/০৯/১৯৭৮)। Bite the bullet, Joekidd, The magnificent seven ride, Django, The undefeated-এর মতো হলিউডের ওয়েস্টার্ন  ছবিগুলো যখন বিশ্ব মাতাচ্ছে তখন আমাদের দেশে মাতিয়েছিল ‘আসামী হাজির’। ছবিটির অভাবনীয় সাফল্যে দেওয়ান নজরুল ঢালিউডে দেখিয়ে দিয়েছিলেন ওয়েস্টার্ন প্যাটার্নের চলচ্চিত্র কীভাবে নির্মাণ করা যায়, যা আমাদের দেশে ছিল সম্পূর্ণ নতুন ধারা।

উনার পরিচালিত অনান্য ছবির মধ্যে বারুদ, জনি, কোরবানী, আসমান জমিন, ধর্ম আমার মা, মাস্তান রাজা, মাটির দূর্গ, কালিয়া, বাংলার নায়ক, সুজন বন্ধু উল্লেখযোগ্য।

নজরুল সাহেব শুধুমাত্র একজন সফল চিত্রপরিচালকই ছিলেন না; ছিলেন একজন সফল গীতিকারও, উনার লেখা অনেক গানও হয়েছিল জনপ্রিয়। অনেকেই জানেন না পপ সম্রাট আজম খানের বিখ্যাত ‘রেল লাইনের ঐ বস্তিতে’ গানটির গীতিকার দেওয়ান নজরুল ছিলেন। অন্যান্য গানের মধ্যে উল্লেখযোগ্য— পাখির বাসার মতো দুটি চোখ তোমার ঠিক যেন নাটোরের বনলতা সেন, চুপি চুপি বলো কেউ জেনে যাবে, আজকে না হয় ভালোবাসো আর কোনদিন নয়, এক চোর যায় চলে এ মন চুরি করে, ও সাগর কন্যা রে, কী যাদূ আছে তোমারও চোখে, দুনিয়াটা মস্ত বড় খাও দাও ফুর্তি করো, চোর আমি ডাকু আমি বলনা রে, চুমকি চলেছে একা পথে এবং রূপে আমার আগুন জ্বলে যৌবন ভরা অঙ্গে।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Shares