Select Page

বাংলা সিনেমায় ধনীদের উপস্থাপন এত দুর্বল কেন?

বাংলা সিনেমায় ধনীদের উপস্থাপন এত দুর্বল কেন?

বাঙলাদেশের সিনেমার ধনীরা আদতে কেমন ধনী ছিলেন? বিশেষ করে নব্বই দশকের সিনেমাগুলো থেকেই যদি আমরা বুঝতে চাই।

আমরা দেখি সিনেমার ধনীরা কোট টাই পরে খাবার টেবিলে বসে পাউরুটিতে জ্যাম বা মাখন মেখে মেখে খায়। টেবিলে কলা থাকে, আপেল থাকে, কমলাও থাকে। ধনী মানে গোলাম মুস্তাফা, কখনো খলিল, শওকত আকবর বা আরিফুল হক। তবে গোলাম মুস্তাফা ছাড়া আর আরদের তেমন ধনী মনে হতো না।

তাদের ডুপ্লেক্স বাড়ি থাকে। সিঁড়ি বেয়ে উপড়ে উঠে যায়, নীচে নামে। তারা অফিসে রিভলবিং চেয়ারে বসে। তাদের ছেলে মেয়েরা সন্ধ্যায় পার্টিতে যায়। মদ-টদ খায়। লাল নীল আলো ঝলমলে বদ্ধ ঘরে নূতন বা আর কেউ নাচে গায়, সেইসবে অংশ নেয়। বয়স্ক ধনীরা বাসায় নাইটগাউন পরে। তারা ইজি চেয়ারে বসে পত্রিকা পড়ে, পাইপ টানে। ধনীদের ধুমধাম জন্মদিন হয়। ধনী ঘরের বাচ্চারা যারা অচিরেই হারিয়ে যাবে হয়তো কোন একটা গানের শেষে, তারা হাফপ্যান্টের সাথে শাদা মোজা পরে।

সিনেমার এইসব ধনীরা কেমন যেন অদ্ভুত টাইপ ধনী। কেমন রুচিহীন কটকটে রঙের পোশাক পরা ধনী। তারা বেশিরভাগই সাধারণত তাদের কারখানা শ্রমিকদের ঠকায়। কিংবা মালিক ভালো হলেও নিম্ন মধ্যবিত্ত ম্যানেজার কলকাঠি নাড়ে, ষড়যন্ত্র করে মালিক ও শ্রমিকের ভেতর দূরত্ব তৈরি করে। এইসব সিনেমার টার্গেট দর্শক ছিলো দরিদ্র শ্রেণী। ফলত তাদের ঠিক কতোটুকু ধনী দেখানো উচিত এমন কোন পরিমিতি ছিলো কিনা জানি না। কিন্তু গরীবদের ভেতর একটা ফ্যান্টাসি ঢুকিয়ে দেয়ার বিষয় হয়তো থেকে থাকবে।

যেমন আপনি ডিগ্রি পাশ হলেই ধনীদের মেয়ের সাথে প্রেম করার একটা সমূহ সম্ভাবনা তৈরি হতে পারে। কিংবা এইসব সিনেমা দেখে আমরাও হয়তো ভেবেছি বড় হয়ে কোন এক ধনী মানুষের গাড়ির ড্রাইভারের চাকরি নেবো। তারপর তার সুন্দরী মেয়ের সাথে প্রেম করে ফেলবো। প্রথমে হয়তো ড্রাইভার ভেবে নাক সিঁটকাবে। কিন্তু যখনই দুই-একটা কথা ইংরেজিতে বলে ফেলবো এবং জানবে আমি ডিগ্রি পাশ। তখন প্রেম না হয়ে যাবেই না। যেহেতু তখন কৈশোর শুরু, তাই এইসব ভাবতে ভালো লাগতো।

যাইহোক, ধনীদের মেয়েরা হয় শাবনাজ, দিতি কিংবা মৌসুমীর মতো। তারা পোশাকের জেন্ডার ক্লাস ভেঙে ফেলে। আমরা দেখি ধনীদের মেয়েরা প্যান্ট পরে। আমরা যারা মফস্বল শহরে থেকে বড় হচ্ছিলাম। আমাদের তখন মনে হতো আমাদের আশেপাশে কোন ধনী নেই। সব ধনী মে বি ঢাকার শহরে।

আমাদের নব্বই দশকের সিনেমায় যে ধনীদের আমরা দেখি, যতোটুকু দেখতে পাই। তাতে ধনীদের সম্পর্কে আদতে কিছুই ধারণা পাওয়া যায় না। শুধু একটা ধারণাই স্পষ্ট হয় — ধনীরা হয় মন্দ। এবং দিন শেষে ধনীদের পতন হয়, তাদের অহংকারের পতন হয়। তারা তাদের মেয়েকে গরীবের হাতে তুলে দেয়। এবং এতেই দর্শকরা তুষ্ট। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, এই সিনেমাগুলোতে অর্থ লগ্নি করতো তো ধনীরাই। নাকি? তারা নিজেদের এতো দুর্বলভাবে উপস্থাপন করতো কেন? নাকি অসীম অভাবের মাঝে তারাও আদতে নিজেদের ধনী ভাবতে পারে নাই?


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Coming Soon
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের অভিনয়শিল্পী বাছাই কেমন হয়েছে?

[wordpress_social_login]

Shares