Select Page

মিমের আপত্তি ও ‘ব্ল্যাক’ নিয়ে মামলা

মিমের আপত্তি ও ‘ব্ল্যাক’ নিয়ে মামলা

MiM 2

কলকাতায় ‘ব্ল্যাক’ মুক্তি পেয়েছে ২৭ নভেম্বর, বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে ৪ ডিসেম্বর। তার মাঝে ঘনঘন খবরের শিরোনাম হচ্ছেন সিনেমাটি ও এর নায়িকা বিদ্যা সিনহা মিম। তেমন দুটি খবর হলো— বলিউডের সিনেমায় মিমের আপত্তি ও ‘ব্ল্যাক’ নিয়ে কলকাতার হাইকোর্টে মামলা।

মিম না করেছেন মুম্বাইয়ের মহেশ-মুকেশ ভাটের মালিকাধীন প্রযোজনা সংস্থা বিশেষ ফিল্মসকে। ‘ব্ল্যাক’র কারণে কলকাতার আনন্দবাজার থেকে শুরু করে টাইমস অব ইন্ডিয়াসহ একাধিক মিডিয়ায় সাক্ষাত্কার ও প্রচারণা প্রকাশ পেলে সেখান থেকে আগ্রহী হয়ে মিমকে দীর্ঘ ই-মেইল করে প্রযোজনা সংস্থাটি।

মেইলে উল্লেখ করা হয়, ছবির গল্পের চাহিদা ও বিপননের স্বার্থেই বেশকিছু খোলামেলা দৃশ্যে মিমকে অভিনয় করতে হবে। আর ঠিক এই শর্তেই নারাজ তিনি। সংবাদমাধ্যমকে মিম জানান, সম্মান ও স্ট্যাটাস ঠিক রেখে অভিনয় করতে চান।

অন্যদিকে, ‘ব্ল্যাক’র প্রদর্শন বন্ধ করার দাবিতে ২৭ নভেম্বর কলকাতা হাইকোর্টে একটি মামলা দায়ের করেন ওই ছবির বাংলাদেশের প্রযোজক কামাল মোহাম্মদ কিবরিয়া। তার অভিযোগ, কলকাতার প্রযোজনা সংস্থা দাগ ক্রিয়েটিভ মিডিয়া প্রাইভেট লিমিটেড চুক্তি ভঙ্গ করেছে। তাদের বাণিজ্যিক চুক্তিতে আছে, ছবিটি দুই দেশে একইদিনে মুক্তি পাবে। কিন্তু কলকাতার প্রযোজনা সংস্থা বাংলাদেশের প্রযোজককে না জানিয়ে একতরফাভাবে কলকাতায় মুক্তি দেয়। এতে করে বাংলাদেশের প্রযোজনা সংস্থা আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। তাই কলকাতার প্রদর্শন বন্ধ রেখে একযোগে দুইদেশে মুক্তির আরজি জানান।

MiM 1

যেহেতু ছবিটি এরই মধ্যে কলকাতার প্রেক্ষাগৃহে চলছে, সেহেতু উভয় পক্ষের শুনানি শেষে ‘ব্ল্যাক’ প্রদর্শনের ওপর স্থগিতাদেশ দিতে সম্মত হননি বিচারপতি সৌমেন সেন। তবে নির্দেশ দিয়েছেন, চুক্তি ভঙ্গের ব্যাপারে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার শর্ত থাকায় চার সপ্তাহ পরে এই মামলার পরবর্তী শুনানি হওয়া পর্যন্ত এই প্রদর্শনীর টিকিট বিক্রির অর্থ কলকাতার প্রযোজনা সংস্থাকে ব্যাংকে জমা রাখতে হবে। পরবর্তী শুনানির শেষে বিচারক রায় দেবেন।

 


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Coming Soon
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?

[wordpress_social_login]

Shares