Select Page

যে চরিত্রের জন্য পুরস্কার দেওয়া হয়েছে সেটা কমেডি ছিলো না: বাবু

যে চরিত্রের জন্য পুরস্কার দেওয়া হয়েছে সেটা কমেডি ছিলো না: বাবু

ফজলুর রহমান বাবু সেরা কৌতুক অভিনেতা বিভাগে জিতেছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৭। বদরুল আনাম সৌদ পরিচালিত ‘গহীন বালুচর’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য এই স্বীকৃতি পেলেন। অন্যদিক ২০১৮ সালের ‘কমলা রকেট’ এ অভিনয় করে সেরা কৌতুক অভিনেতা হিসেবে পুরস্কার জয় করেছেন মোশাররফ করিম।

কৌতুক অভিনেতা বিভাগে ফজলুর রহমান বাবু ও মোশারফ করিম পুরস্কার পাওয়ায় অবাক হয়েছেন অনেকেই। এ নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়াও দেখা যাচ্ছে। ফজলুর রহমান বাবুদের মতো তুখোড় অভিনেতাকে কৌতুক অভিনেতার পুরস্কার দেওয়াকে হাস্যকর ঘটনাও বলছেন কেউ কেউ।

এই বিষয়ে জাগো নিউজকে ফজলুর রহমান বাবু বলেন, ‘গতকাল জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্তদের নাম ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই অনেক ফোন পেয়েছি। আমার ভক্ত শোভাকাঙ্খিরা ব্যপারটি ভালোভাবে নেয়নি বলেই মনে হয়েছে। অনেকেই বলেছে আপনার মতো একজন সিরিয়াস অভিনেতাকে কৌতুক অভিনেতা বানিয়ে দিলো! আমার মনে হয়েছে এখন ছবিতে এই ক্যাটাগরি রাখাই ঠিক না। ছবি আর কোনো নির্দিষ্ট ফর্মেটের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই।’

আরও বলেন, ‘আমাকে যেই চরিত্রের জন্য কৌতুক চরিত্রে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে সেটা কোনো কমেডি চরিত্র ছিলো না। এটা একটা সিরিয়াস চরিত্র ছিলো। তবে এই চরিত্রটি মানুষ ইনজয় করেছে। এটা এক রকম খল চরিত্রই ছিলো। যেখানে দেখানো হয়েছে একজন লোভি মানুষ, অনেক উচ্চাকাঙ্খা তার। লোভে পড়ে একের পর এক অপরাধ করে চলে সে। চরিত্রটি হয়তো মজার ছিলো, কিন্তু কৌতুক চরিত্র ছিলো না।’

নাটকের পাশাপাশি ফজলুর রহমান বাবু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেও দর্শকের প্রচুর প্রশংসা কুড়িয়েছেন। গোলাম রব্বানীর বিপ্লবের ‘স্বপ্ন ডানায়’, ‘বৃত্তের বাইরে’, এনামূল করিম নির্ঝরের ‘আহা’ ও গিয়াস উদ্দিন সেলিমের ‘মনপুরা’ ও ‘স্বপ্নজাল’ আবু সাইয়ীদ পরিচালিত ‘শঙ্খনাদ ও তৌকীর আহমেদের ‘অজ্ঞাতনামা’, রায়হান রাফির ‘পোড়ামন ২’সহ অনেক চলচ্চিত্রেই অভিনয় করেছেন তিনি। বর্তমানে নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুলের ‘জ্যাম’সহ আরও কয়েকটি সিনেমায় অভিনয় করছেন তিনি।


মন্তব্য করুন

Shares