Select Page

যে ছবিটি পাল্টে দিতে পারতো শাহীন আলমের ক্যারিয়ার

প্রধান চরিত্র হিসেবে উল্লেখযোগ্য তেমন ছবি না থাকলেও প্রয়াত শাহীন আলমকে অনেকে এখনো স্মরণ করেন। তবে কেউ কেউ এমন একটি ছবির কথা বলেন, যা সম্পন্ন হলে এ নায়কের ক্যারিয়ার হয়তো একদম অন্যরকম হতো।

১৯৮৬ সালে বিএফডিসির ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ আয়োজনের মাধ্যমে ঢালিউডে আগমন তার। তবে প্রথম ছবি মুক্তি পায় ১৯৯১ সালে। অবাক করা তথ্য হচ্ছে, ইন্ডাস্ট্রিতে আগমনের সাথেই এই শাহীন আলমকে দিয়েই বিগ বাজেটের ‘মাসুদ রানা’র দ্বিতীয় কিস্তি হবার কথা ছিল। শুটিংও হয়েছিল কিছু অংশের কিন্তু সেটি শেষ পর্যন্ত শেষ হয়নি।

সম্প্রতি শাহীন আলমের মৃত্যুবার্ষিকীতে ‘মাসুদ রানা ২’ (the man)-এর প্রসঙ্গে আবার ওঠে আসে। এ প্রসঙ্গে চলচ্চিত্র গবেষক মীর শামসুল আলম বাবু জানান, এ ছবিতে শাহীন আলমের সঙ্গে ছিলেন কলকাতার মুনমুন সেন ও ঢাকার অলিভিয়াসহ দেশ-বিদেশের তারকারা। কিন্তু পরিচালক এসএম শফি মারা যাওয়ায় সিনেমাটি আর হয়নি।

১৯৯৫ সালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান এসএম শফি। এরপর তার স্ত্রী তখনকার জনপ্রিয় নায়িকাও চলচ্চিত্রের জগৎ ত্যাগ করেন।

এ দিকে জাহাঙ্গীর আলম, রুবেলদের উত্তরসূরি হিসেবে মার্শাল আর্টে ব্ল্যাকবেল্টধারী ছিলেন শাহীন। যদিও তার ছবিগুলোতে মার্শাল আর্টকে সেভাবে উপস্থাপন করা হত না তবে ছবিতে ফাইটিং দেখলে তাকে দক্ষ মনে হয়।

শাহীন আলম শুরুর দিকে বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করে আলোচিত হন। পরে অশ্লীল সিনেমার সঙ্গে জুড়ে যায় তার নাম। অনুতপ্ত এ নায়ক এক সময় সেই জগৎ ত্যাগ করেন। মারা যান গত বছরের ৮ মার্চ।

১৯৭৪ সালে কাজী আনোয়ার হোসেনের আইকনিক ‘মাসুদ রানা’ অবলম্বনে প্রথমবার সিনেমা তৈরি হয়। বর্তমানে জাজ মাল্টিমিডিয়া এ স্পাইকে নিয়ে দুটো ছবি করছে। এর মধ্যে আন্তর্জাতিক ছবিটি বারবার পেছালেও দেশীয় সিনেমাটির কাজ প্রায় শেষ। সৈকত নাসিরের পরিচালনায় অভিনয় করেছেন রাসেল রানা ও পূজা চেরি।


আমাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Shares