Select Page

রানা প্লাজার কাটছাট শেষ হলো

রানা প্লাজার কাটছাট শেষ হলো

pori1

দীর্ঘ দিন সেন্সর বোর্ডে আটকে ছিল রানা প্লাজা। সিনেমাটির গল্পে কী আছে দর্শক বিশদ জানে না। এমনকি রেশমার জীবনের সঙ্গে মিল আছে কিনা তাও অস্পষ্ট। তবে আটকে থেকে আলোচিত হয় সিনেমাটিকে। এর বিভিন্ন দৃশ্য, রানা প্লাজা ধসের দৃশ্য প্রভৃতি নিয়ে আপত্তি তোলে সেন্সর বোর্ড। সব মিলিয়ে ছাড়পত্র পাওয়ার বিষয়টি গড়ায় আদালত পর্যন্ত।

অবশেষে ১১ জুন প্রয়োজনীয় কাটছাট শেষে সিনেমাটিকে ছাড়পত্র দিয়েছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড।

২০১৩ সালে সাভারে রানা প্লাজা নামের একটি বহুতল ভবন ধসে পড়ে। এই ঘটনার ১৭ দিন পর ১০ মে ধ্বংসস্তূপ থেকে রেশমা নামের এক মেয়েকে জীবিত উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে নজরুল ইসলাম খান তৈরি করেন রানা প্লাজা চলচ্চিত্রটি। এতে পোশাক শ্রমিক ‘রেশমা’র চরিত্রে অভিনয় করেছেন পরী মনি। তার বিপরীতে অভিনয় করছেন সাইমন সাদিক

দৃশ্যায়নের কাজ শেষ করে সেন্সর বোর্ডে জমা দেওয়ার পর এর কাহিনী ও বেশ কিছু দৃশ্য, পোশাক শিল্প খাতকে অশান্ত করে তুলতে পারে বলে অভিযোগ করেন সেন্সর বোর্ডের সদস্যরা। তারা আপত্তি জানিয়ে বলেন, সিনেমাতে গার্মেন্টস ধসে পড়ার যে দৃশ্যটি দেখানো হয়েছে, তা রীতিমতো ভয়াবহ। এমন দৃশ্য সম্বলিত সিনেমা প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেলে তার ফলাফল হবে আরও ভয়াবহ। বাংলা সিনেমার বড় দর্শক হচ্ছে গার্মেন্টসকর্মীরা। রানা প্লাজা ধসের ঘটনাটি তাদের আরও উত্তেজিত করে তুলবে। পরিস্থিতি অস্থিতিশীল হয়ে উঠবে এতে।

পরীমনি-সাইমন ছাড়াও এতে অভিনয় করছেন আবুল হায়াত, মিজু আহমেদ, কাবিলা, হাবিব খান, শিরিন আলম প্রমুখ। এর কাহিনি-সংলাপ লিখেছেন মুজতবা সউদ। চিত্রগ্রহণে এ এইচ স্বপন। সংগীতায়োজন করছেন আলী ইকরাম শুভ। শিল্প নির্দেশনায় কলমতর, ব্যবস্থাপনায় মান্নান।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Coming Soon
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?
২০২০ সালে বাংলা চলচ্চিত্রের অবস্থা কেমন হবে?

[wordpress_social_login]

Shares