Select Page

‘রেহানা মরিয়ম নূর’-এর প্রশংসা ও বিজন-আরিফের ছবির প্রযোজক অনুরাগ কাশ্যপ

‘রেহানা মরিয়ম নূর’-এর প্রশংসা ও বিজন-আরিফের ছবির প্রযোজক অনুরাগ কাশ্যপ

বাংলাদেশের ছবির সঙ্গে যুক্ত হলেন বলিউডের বিখ্যাত প্রযোজক-পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ। কান চলচ্চিত্র উৎসব থেকে এ সুখবর মিলেছে। এর আগে বাংলাদেশের প্রথম অফিশিয়াল সিলেকশন ‘রেহানা মরিয়ম নূর’-এর প্রশংসা করলেন তিনি।

একাধিক সংবাদমাধ্যম জানায়, কানে প্রথম শোতেই ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ দেখেন অনুরাগ। পরে ড়দ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ছবিটির প্রযোজক জেরেমি চুয়া ও অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধনের সঙ্গে আড্ডায় কশ্যপ বলেন, ‘এটা আমাদের অঞ্চল থেকে আসা অন্যতম শক্তিশালী একটা সিনেমা। এটা দেখাটা দারুণ এক অভিজ্ঞতা। রীতিমতো অসাধারণ এক কাজ। অভিনয়, শব্দ পরিকল্পনা, লেখা—সবই দারুণ। বাংলাদেশকে আমার অভিনন্দন।’

‘রেহানা মরিয়ম নূর’ টিমের সঙ্গে অনুরাগ কশ্যপের আড্ডার কিছু অংশ ভিডিও আকারে ফেসবুকে পোস্ট করেছেন আজমেরী হক বাঁধন। ২০-২৫ মিনিটের সেই আড্ডায় আরও ছিলেন ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ প্রযোজক জেরেমি চুয়া ও নির্বাহী প্রযোজক এহসানুল হক বাবু।

আরও খবর হলো, বাংলাদেশের গুপী-বাঘা প্রোডাকশনসের ‘একা’ (সলো) চলচ্চিত্রে প্রযোজক হিসেবে যোগ দিয়েছেন ‘রামন রাঘব ২.০’ নির্মাতা।

ভারতীয় পরিচালক সুমন সেনের ‘একা’ ফ্রেঞ্চ ইনস্টিটিউটের লা ফেব্রিক-এ বিশ্বের ১০টি প্রকল্পের একটি হিসেবে কানে নির্বাচিত হয়েছে। লা ফেব্রিকে বিভিন্ন দেশের তরুণ নির্মাতাদের আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র অঙ্গনে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়।

ফরাসি প্রযোজক ডমিনিক ভেলিন্সকি আগেই এই সিনেমায় প্রযোজক হিসেবে বাংলাদেশের গুপী-বাঘা প্রোডাকশনসের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন। এবার অনুরাগ কাশ্যপ এই চলচ্চিত্রের সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় সিনেমাটির কাজে আরো গতি আসবে বলে মনে করছেন গুপী-বাঘা প্রোডাকশনসের বিজন ইমতিয়াজ।

লা ফেব্রিকের নানা আয়োজনে যোগ দিতে ফ্রান্সের কানে আছেন গুপী-বাঘা প্রোডাকশনসের আরিফুর রহমান, বিজন ইমতিয়াজ এবং সুমন সেন। লা ফেব্রিকে ‘একা’ ছাড়াও সিনে মার্কেট মার্শে দ্যু ফিল্মে তারা উপস্থিত আছেন বাংলাদেশি নির্মাতা নুহাশ হুমায়ুনের ‘মুভিং বাংলাদেশ’ সিনেমার প্রকল্প নিয়ে।

আরিফ উৎসবের দুদিন বাকি থাকতেই দেশে ফিরছেন, কিন্তু বিজন এবং সুমন কান থেকে চলে যাবেন সরাসরি প্যারিসে। সেখানে বসেই দুজন মিলে চূড়ান্ত করবেন ‘একা’ চলচ্চিত্রের স্ক্রিপ্ট।

‘একা‘ নিয়ে আলোচনা চূড়ান্ত হওয়ার পর ভারতীয় পরিচালক ও প্রযোজক অনুুরাগ কাশ্যপের (বাম থেকে দ্বিতীয়) সঙ্গে গুপী-বাঘা প্রোডাকশন্সের (ডান দিক থেকে ক্রমানুসারে) আরিফুর রহমান, বিজন ইমতিয়াজ এবং সুমন সেন৷

বিজন জানান, ‘‘সিনেমার ফান্ডিং একটা বড় বিষয়। কিন্তু তারচেয়েও বড় বিষয় স্ক্রিপ্ট এবং ডিরেকশনে অনুরাগের যে দক্ষতা, সেটি এই সিনেমাতে আমাদের সবচেয়ে বেশি কাজে লাগবে। আমরা (বিজন এবং সুমন) স্ক্রিপ্ট লিখে অনুরাগকে পাঠিয়ে দিবো, তিনি তার নোট দিবেন। এভাবেই কাজ এগোবে।”

আরিফের জন্য অবশ্য অনুরাগের সঙ্গে কাজ করতে পারার পেছনে কেবল পেশাগত উচ্ছ্বাসই নয়, আছে ব্যক্তিগত আনন্দও। দীর্ঘদিন ধরে অনুরাগের সঙ্গে কাজ করতে আগ্রহী আরিফ। ২০১৯ সালে আফগান নির্মাতা দিয়ানা সাকিব জামালের শর্টফিল্ম ‘রোকাইয়া’ নিয়ে সিনেমাটির প্রযোজক আরিফ অ্যামেরিকায় লস এঞ্জেলেসে গেলে সেখানে সিনেমাটির স্ক্রিনিং ওপেন করেন অনুরাগ। তখনই সিনেমা ও প্রযোজনার নানা বিষয়ে কথা হয়েছিল দুজনের মধ্যে।

বুধবার আরিফ-বিজন-সুমন এবং ডমিনিকের সঙ্গে আলোচনা শেষে আনুষ্ঠানিকভাবে সিনেমাটির প্রযোজনায় নিজের প্রতিষ্ঠান গুড ব্যাড ফিল্মসকে যুক্ত করার কথা জানান অনুরাগ কাশ্যপ।

অনুরাগ জানিয়েছেন, ‘‘একসঙ্গে করা যায় এমন কাজ খুঁজে পাওয়ার মধ্যে এক ধরনের আনন্দ রয়েছে। আইডিয়া, স্ক্রিপ্ট এবং ভারত – বাংলাদেশ – ফ্রান্সের নির্মাতাদের একযোগে কাজ করে সিনেমা বানানোর প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে আমি খুবই আনন্দিত।”

সিনেমাটি বিপ্লব নামের এক ৫৬ বছর বয়সি বিমা কর্মকর্তাকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে। একঘেয়ে মধ্যবিত্ত জীবন আর তার ভালো লাগে না। প্রতিদিন ভিড়ে গাদাগাদি করে পাবলিক বাসে চেপে অফিস যাওয়ার পথে শহরের মূল চত্ত্বরে নির্মীয়মাণ এক বিশাল ভাস্কর্যের পায়ের আঙুল নজরে পড়ে তার। নির্মাণকাজ শেষ হলে দেশের প্রেসিডেন্ট এই ভাস্কর্যের উদ্বোধন করবেন। জীবনের নানা চাপ বিপ্লবকে ধীরে ধীরে হতাশাগ্রস্ত করে তোলে। ক্ষোভ থেকে একসময় তিনিই ডাক দেন এক গণবিদ্রোহের।

‘একা’ সম্পর্কে নির্মাতা সুমন সেন বলছিলেন, ‘‘আমাদের আগের প্রজন্মের সক্রিয়ভাবে রাজনীতিতে যুক্ত হওয়ার ব্যাপারে যে অনাগ্রহ ছিল, তার কারণেই আমরা এখানে দাঁড়িয়ে আছি। আজকে যে সমাজের ব্যর্থতা, বা আজকে যে সময়ের মধ্য দিয়ে আমরা যাচ্ছি, সেটা তো খুব একটা সুখের সময় নয়। আমরা এমন দেশ বা এমন পৃথিবী দেখতে চাইনি। সেটা কোন নির্দিষ্ট দেশ নিয়ে বলছি না, সেটা ভারত-বাংলাদেশ বা পৃথিবীর যেকোনো দেশ হতে পারে। আজকে আমরা যে সময়টাতে দাঁড়িয়ে আছি, তার অনেকটা দায় আমাদের আগের প্রজন্মের।”

এই প্লটের ওপর ভিত্তি করে সিনেমার স্ক্রিপ্ট মোটামুটি চূড়ান্ত হলেই কলাকুশলী বাছাইয়ের কাজ শুরু হবে। মূল চরিত্রে ভারতের একজন খ্যাতিমান অভিনেতাকে  দেখতে চায় গুপী-বাঘা। তবে এখনও এ বিষয়টি চূড়ান্ত না হওয়ায় নাম প্রকাশে রয়েছে আপত্তি।

‘একা’ ছাড়াও আরো বেশ কিছু প্রকল্পের কাজ নিয়ে একসঙ্গে এগিয়ে চলেছে গুপী-বাঘা প্রোডাকশন্স। রাইড শেয়ারিং প্রকল্প পাঠাওয়ের ওপর ভিত্তি করে ‘মুভিং বাংলাদেশ’ তো এবারই কানে কো-প্রোডাকশন মার্কেটে এলো। এছাড়া ১৪ বছর বয়সি এক মাদ্রাসা ছাত্রের জীবন নিয়ে সিনেমা ‘প্যারাডাইস’ এর কলাকুশলী নির্বাচন শুরু হবে কিছুদিনের মধ্যেই। ২০২২ সালে এর শ্যুটিং শুরুর পরিকল্পনা রয়েছে।

এ ছাড়া অদ্ভুত এক রোগে আক্রান্ত এক পরিবারে ঘটে যাওয়া ঘটনা নিয়ে তৈরি ‘ট্রি অব নলেজ’ সিনেমাটির শ্যুটিং শেষ, রয়েছে পোস্ট প্রোডাকশনে। আগামী বছরের কোনো এক চলচ্চিত্র উৎসবেই হয়তো দেখা যাবে সিনেমাটি।

সংবাদ  সূত্র: প্রথম আলোডয়চে ভেলে


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Shares