Select Page

শাপলা মিডিয়ার ১০০ ছবি নিয়ে ক্ষোভ শাকিব খানের

শাপলা মিডিয়ার ১০০ ছবি নিয়ে ক্ষোভ শাকিব খানের

 

যখন চলচ্চিত্রাঙ্গনে নিষিদ্ধ নিষিদ্ধ খেলা চলছিল তখন শাকিব খানকে নিয়ে একের পর এক ছবি বানিয়েছে শাপলা মিডিয়া। এখন ওই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে শাকিবের দুরত্ব কারো অজানা নয়। মাঝে আপসের গুঞ্জন শোনা গেলেও নায়কের মন্তব্যে বোঝা গেল বিষয়টি সহজ নয়।

কয়েকদিন আগে ১০০ সিনেমার ঘোষণা দিয়ে এফডিসিতে অনুষ্ঠান করেন শাপলা মিডিয়ার কর্ণধার সেলিম খান। বৃহস্পতিবার নিজের নতুন সিনেমা ‘লিডার: আমিই বাংলাদেশ’-এর ঘোষণা অনুষ্ঠানে ‘স্টুপিড’ বকা দিয়ে শাকিব জানালেন, ১০০টা বাজে সিনেমার দরকার নেই। ইন্ডাস্ট্রি বাঁচাতে একটি ভালো সিনেমাই যথেষ্ট।

তার ভাষায়, ‘‘যেখানে পাশের দেশের ছোট্ট মালায়লাম ইন্ডাস্ট্রি এখন ৩শ’ কোটি রুপি দিয়ে সিনেমা বানাচ্ছে, সেখানে আমরা নাকি ১০/২০ লাখে নেমে এসেছি! হোয়াট আ ফিল্ম! যারা সিনেমাকে এ অবস্থায় নামিয়েছে তারা বলছেন, ‘ভাই না খেয়ে মরছে ইন্ডাস্ট্রির মানুষ। ওদের আমি কাজ দিচ্ছি।’ আমার কথা স্পষ্ট, তোমার কাজ দেওয়ার দরকার নাই। স্টুপিড! তুমি কে কাজ দেওয়ার?’’

এরপরই বলেন, ‘আমার ১০০/৫০০ ছবির দরকার নেই। একটা ভালো ছবিই ঘুরিয়ে দিতে পারে ইন্ডাস্ট্রির চাকা। অনেকেই জানেন, আমার এমনও অনেক ছবি আছে যেটা এক মাস চালিয়ে ছয় মাসের লোকসান পুষিয়ে নেন হল মালিকরা। আমাদের সেই ছবিটি দরকার। আমার ছবি শুধু চালার সাগরিকায় চলবে, সেই স্বপ্ন এখন আর দেখলে হবে না। সঙ্গে প্যারিসের স্বপ্নটাও দেখতে হবে। যে স্বপ্নটা আমি দেখেছি এই ছবির প্রযোজক আশিক ভাইয়ের চোখে।’

এর আগে মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) এফডিসিতে বিশাল আয়োজনের মহরত অনুষ্ঠানে কেক কেটে ১০০ সিনেমার ঘোষণা দেন সেলিম খান। সেখানে লটারির মাধ্যমে ১০০ জন পরিচালককে বাছাই করা হয়।

১০০ সিনেমার সমন্বয়ক হিসেবে যুক্ত রয়েছেন চলচ্চিত্র নির্মাতা শাহীন সুমন ও অপূর্ব রানা। শাহীন সুমন জানিয়েছেন, প্রথম কিস্তিতে ৩০টি সিনেমার জন্য চূড়ান্ত পরিচালকদের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক চুক্তি হয়েছে শাপলা মিডিয়ার। তাদের সাইনিং মানিও দেয়া হয়েছে। আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি ১০টি সিনেমার শুটিং শুরু হবে কক্সবাজারে। বাকি ২০টির শুটিং শুরু হবে মার্চে।

আগামী মার্চ মাসে আরও ৩০ জনকে চুক্তিবদ্ধ করে শুটিংয়ের জন্য পাঠানো হবে। বাকি ৪০ জনকে চুক্তিবদ্ধ করা হবে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে।

সমন্বয়ক শাহীন সুমন বলেন, ‘এই ১০০ সিনেমা নির্মাণ করবেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির নির্মাতারা। আমরা মনে করি, পরিচালক সমিতির সকল নির্মাতাই দক্ষ। তাই এগুলো নির্ধারণ করা হয়েছে লটারির মাধ্যমে। এরমধ্যে ৮০টির মতো সিনেমার নামও নিবন্ধন করা হয়েছে পরিচালক সমিতিতে। আর গতকালই আমরা প্রথম কিস্তিতে ৩০টি সিনেমার জন্য চূড়ান্ত পরিচালকদের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক চুক্তি করেছি। তাদের সাইনিং মানিও দেয়া হয়েছে। আগামী মার্চ মাসে আরও ৩০ জনকে চুক্তিবদ্ধ করে শুটিংয়ের জন্য পাঠানো হবে। বাকি ৪০ জনকে চুক্তিবদ্ধ করা হবে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহেই।  এপ্রিল মাসের মধ্যেই ১০০টি সিনেমার নির্মাণ শেষ করা হবে।’

‘আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি প্রথম কিস্তির ৩০টি থেকে ১০টি সিনেমার শুটিং শুরু হবে কক্সবাজারে। বাকি ২০টির শুটিং শুরু হবে মার্চে। আপাতত ১০টি সিনেমার গল্প, পরিচালক ও শিল্পী সবই প্রস্তুত আছে। একটানা কাজ শেষ হবে ছবিগুলোর। মার্চের প্রথমদিকে এ ১০টি ছবির শুটিং শেষ করে সেন্সরে জমা দেয়া হবে। ছাড়পত্র পাওয়ার পর সিনেমাগুলো প্রেক্ষাগৃহ, ইউটিউব ও টেলিভিশনে মুক্তি পাবে’- বলেন শাহীন সুমন।

/বাংলা ট্রিবিউন ও জাগো নিউজ


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Shares