Select Page

সুবল দাস ও তার জাদুকরি সুর (২৫টি ভিডিও)

সুবল দাস ও তার জাদুকরি সুর (২৫টি ভিডিও)

তুমি যে আমার কবিতা, যখন থামবে কোলাহল, গানেরই খাতায় স্বরলিপি লিখে, এই পৃথিবীর পান্থশালায় গাইতে গেলে গান, একী বাঁধনে বলো জড়ালে আমায়, সন্ধ্যারও ছায়া নামে এলোমেলো হাওয়া, শিল্পী আমি তোমাদেরই গান শোনাবো-সহ অসংখ্য অসংখ্য হৃদয়ছোঁয়া গানের জনক সুবল দাস। দশকের পর দশক তার সুর জাদুতে মুগ্ধ হয়েছে গান পাগল মানুষ। যা এখনো সমান জনপ্রিয়। সেই সব সুরের মূর্ছনা মুগ্ধতা ছড়িয়ে যাচ্ছে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে!

সুবল দাস ছোটবেলা থেকেই স্বপ্ন দেখতেন বড় ফুটবলার হবেন, খুব ভালো খেলতেনও তিনি। ঢাকার আজাদ স্পোর্টিং ক্লাব হয়ে মাঠে নেমেছেন বহুবার। অথচ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তিতাস পাড়ের মানুষটি এক সময় হয়ে গেলেন দেশসেরা একজন সংগীত পরিচালক।

১৯২৭ সালের ২৬ ডিসেম্বর সুবল দাসের জন্ম ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সদরে। ওনার পুরো নাম সুকুমার চন্দ্র দাস, বাবা রাশিকলাল দাস ও মা কামিনী দাস। পরিবারের ইচ্ছাতেই তার সংগীত জগতে আসা। প্রথমে সেতারে তালিম নেন ওস্তাদ খাদেম হোসেন খান ও ওস্তাদ আয়াত আলী খানের কাছে। পরে বেহালার ওপরেও তালিম নেন।

সুবল দাস প্রথমে বাদ্যযন্ত্র, পরে সংগীতের ওপর পারদর্শিতা অর্জন করে সুর ও সংগীত পরিচালনায় মনোনিবেশ করেন। ফতেহ লোহানীর পরিচালনায় ‘আকাশ আর মাটি’ ছবিটি দিয়ে সংগীত পরিচালনা শুরু, সেটি ১৯৫৯ সালের কথা। ছবিটিতে কলকাতার শিল্পী মানবেন্দ্র মুখোপাধ্যায়ের কণ্ঠে তবে কি আমার নেই কোন ঠাঁই গানটি সে সময় দারুণ জনপ্রিয়তা লাভ করে। চলচ্চিত্রের প্রথম সুরারোপিত গানেই বুঝিয়ে দেন এই রাজ্যে তিনি রাজত্ব করতেই আসছেন। চার দশক ধরে তার প্রায় তিন শতাধিক চলচ্চিত্র ও অসংখ্য আধুনিক গানে তাকে পাওয়া গেছে।  

চলচ্চিত্র ও আধুনিক গানে গীতিকার মাসুদ করিমের সঙ্গে বেশ ভালো একটি জুটি গড়ে উঠেছিল সুবল দাসের। অনেক কালজয়ী সুর উঠে এসেছে তাদের দুজনের সমন্বয়ে। এ ছাড়া গীতিকার আবু হেনা মোস্তফা কামাল, সিনে সাংবাদিক আহমেদ জামান চৌধুরী ও গাজী মাজহারুল আনোয়ারের লেখা অনেক গানের সুরের জনক তিনি।  

শুধু গীতিকারই নয় জুটি গড়ে উঠেছিল এক সময়ের সেরা সব চিত্র পরিচালকদের সঙ্গেও। যার মধ্যে কামাল আহমেদ, এফ কবির চৌধুরী ও নজরুল ইসলাম অন্যতম। তাদের প্রায় সব ছবিরই সংগীত পরিচালনার দায়িত্ব পালন করেছেন সুবল দাস। বিশেষ করে কবির সাহেবের সবগুলো ছবিরই সংগীত পরিচালক ছিলেন তিনি।

এ কথা উল্লেখ্য করতেই হয়, আমাদের দেশের কণ্ঠ সম্রাজ্ঞী রুনা লায়লাকে প্রথম বাংলা চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক করার সুযোগ দেন সুবল দাস। ‘স্বরলিপি’ ছবির গানেরই খাতায় স্বরলিপি লিখে শিরোনামের গানটি দিয়ে এবং সে সময় তুমুল জনপ্রিয়তা লাভ করে রুনার গানটি!

বাংলা আধুনিক ও চলচ্চিত্রের গানের বিকাশে সুবল দাসের অবদান অপরিসীম। অথচ তার অসংখ্য অসংখ্য জনপ্রিয় গানের ভান্ডার থাকা সত্ত্বেও একবারও তাকে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে সম্মানিত করা হয়নি। যা ওনার প্রতি অবিচারই।

সুবল দাস চলচ্চিত্রের গানে নতুন ধারা তৈরি করেছিলেন। মেলোডির পাশাপাশি হালকা চতুর সুরের গান তিনিই সৃষ্টি করেছেন, যা পরবর্তীতে বিশাল জনপ্রিয়তাও অর্জন করে। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য এই বৃষ্টি ভেজা রাতে চলে যেও না, একটি রাতের গল্প তুমি, হাজার রাতের স্বপ্ন, চাকবুম চাকবুম চাঁদনী রাতে, মনেরই ছোট্ট ঘরে আগুন লেগেছে হায়রে

বাংলা গানের স্বনামধন্য মানুষটি ২০০৫ সালের ১৬ আগস্ট মৃত্যুবরণ করেন।

সুবল দাসের সুরারোপিত স্মরণীয় কিছু গান—

তুমি যে আমার কবিতা, কথা: আবু হেনা মোস্তফা কামাল, কণ্ঠ: মাহমুদুন্নবী ও সাবিনা ইয়াসমিন, চলচ্চিত্র: দর্পচূর্ণ

গানেরই খাতায় স্বরলিপি লিখে, কথা: গাজী মাজহারুল আনোয়ার, কণ্ঠ: রুনা লায়লা, চলচ্চিত্র: স্বরলিপি

আমি সাত সাগর পাড়ি দিয়ে, কথা: গাজী মাজহারুল আনোয়ার, কণ্ঠ: মাহমুদুন্নবী, চলচ্চিত্র: আলো তুমি আলেয়া

শত্রু তুমি বন্ধু তুমি, কথা: মাসুদ করিম, কণ্ঠ: আবদুল জব্বার, চলচ্চিত্র: অনুরাগ

সন্ধ্যারও ছায়া নামে এলোমেলো হাওয়া, কথা: মাসুদ করিম, কণ্ঠ: সাবিনা ইয়াসমিন, চলচ্চিত্র: পুত্রবধূ

এই পৃথিবীর পান্থশালায়, কথা: আবু হেনা মোস্তফা কামাল, কণ্ঠ: সৈয়দ আবদুল হাদী, চলচ্চিত্র: যোগ বিয়োগ

চারাগাছে ফুল ফুইটাছে, কথা: মাসুদ করিম, কণ্ঠ: সৈয়দ আবদুল হাদী ও নীনা হামিদ, চলচ্চিত্র: অনেক দিন আগে

স্জনী গো, ভালোবেসে এত জ্বালা কেন বল না, কথা: মাসুদ করিম, কণ্ঠ: বশির আহমেদ, চলচ্চিত্র: ভাঙা গড়া

রূপ নগরের রাজা, তুমি আজ পাবে সাজা, কথা: মাসুদ করিম, কণ্ঠ: রুনা লায়লা, চলচ্চিত্র: রাজমহল

ডাকে বারেবারে কে আমারে ডাকে বারেবারে কে, কথা: মাসুদ করিম, কণ্ঠ: সাবিনা ইয়াসমিন, চলচ্চিত্র: শিরি ফরহাদ

ভীরু মন আমার মনে, বৃষ্টির রিমঝিম সুরে, কথা: মাসুদ করিম, কণ্ঠ: কাদেরী কিবরিয়া ও নার্গিস পারভীন, চলচ্চিত্র: ভালো মানুষ

এই বৃষ্টি ভেজা রাতে চলে যেও না, কথা: আহমেদ জামান চৌধুরী, কণ্ঠ: রুনা লায়লা, চলচ্চিত্র: নরম গরম

আনারকলি সেলিমের প্রেম কাহিনি, কথা: মাসুদ করিম, কণ্ঠ: অ্যান্ড্রু কিশোর ও রুনা লায়লা, চলচ্চিত্র: তালাচাবি

চন্দ্র তারায় মিছে খুঁজেছি তোমায়, কথা: এম এ মালেক, কণ্ঠ: রুনা লায়লা, চলচ্চিত্র: রাজকন্যা

রাতের কোলে মাথা রাইখা আসমানের চাঁদ ঘুমাইলো রে, কথা: গাজী মাজহারুল আনোয়ার, কণ্ঠ: সৈয়দ আবদুল হাদী ও আবিদা সুলতানা, চলচ্চিত্র: গলি থেকে রাজপথ

আরে লাল গোলাপি অঙ্গ আমার, কথা: এম এ মালেক, কণ্ঠ: রুনা লায়লা, চলচ্চিত্র: রাজ নন্দিনী

পূর্ণিমার ওই চাঁদ তুমি নও, নও ফুল তুমি ফাগুনের, কথা: গাজী মাজহারুল আনোয়ার, কণ্ঠ: বশির আহমেদ ও রুনা লায়লা, চলচ্চিত্র: রাজ সিংহাসন

মনেরও ছোট্ট ঘরে আগুন লেগেছে হায় রে, কথা: মনিরুজ্জামান মনির, কণ্ঠ: সাবিনা ইয়াসমিন, চলচ্চিত্র: সওদাগর

চাকবুম চাকবুম চাঁদনী রাতে, কথা: এম এ মালেক, কণ্ঠ: খুরশিদ আলম ও রুনা লায়লা, চলচ্চিত্র: আবেহায়াত

প্রেমেরও ছোট্ট একটি ঘর আমায় দাও, কথা: মাসুদ করিম, কণ্ঠ: বশির আহমেদ ও রুনা লায়লা, চলচ্চিত্র: ঝুমুর

কত যে ভালোবাসি তোমাকে বলো নাকো একবার, কথা: মাসুদ করিম, কণ্ঠ: প্রবাল চৌধুরী ও উমা খান, চলচ্চিত্র: দোস্তী

আজকের এই চাঁদের আলো লাগে এত ভালো, কথা: মনিরুজ্জামান মনির, কণ্ঠ: রুনা লায়লা, চলচ্চিত্র: সোনার সংসার

একী বাঁধনে বলো জড়ালে আমায়, কথা: মাসুদ করিম, কণ্ঠ: আবিদা সুলতানা, চলচ্চিত্র: তালুকদার

শিল্পী আমি তোমাদেরই গান শোনাবো, কথা: মাসুদ করিম, কণ্ঠ: রুনা লায়লা, চলচ্চিত্র: শিল্পী

ভালোবাসা তুমি আমার, যুগে যুগে আমি তোমার, কথা: গাজী মাজহারুল আনোয়ার, কণ্ঠ: অ্যান্ড্রু কিশোর ও সাবিনা ইয়াসমিন, চলচ্চিত্র: অন্ধ ভালোবাসা


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Shares