Select Page

২০২০ সালেই কানে নির্বাচিত হয় ‘রেহানা মরিয়ম নূর’!

২০২০ সালেই কানে নির্বাচিত হয় ‘রেহানা মরিয়ম নূর’!

কান চলচ্চিত্র উৎসবের প্রথমবারের মতো কোনো বাংলাদেশি ছবি অফিশিয়াল মনোনয়ন পেল—আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ সাদের ‘রেহানা মরিয়ম নূর’। সেই আনন্দদায়ক খবরটা এলো ৩ জুন। তারও ঠিক এক সপ্তাহ আগে ২৭ মে আয়োজকরা মেইলে জানিয়েছিলেন সুসংবাদটা। এক সপ্তাহ ধরে ছবিটির কলাকুশলীরা কীভাবে এ রকম একটা খবর কেবল নিজেদের মধ্যেই রাখতে পেরেছেন, সেটা ভেবে অবাক হচ্ছেন অনেকেই।

কিন্তু আরো বিস্ময়কর খবর উঠে এসেছে কালের কণ্ঠের এক প্রতিবেদনে। এক বছর আগেই অর্থাৎ ২০২০ সালে কানের ৭৩তম আসরে ‘আঁ সার্তে রিগা’ বিভাগে নির্বাচিত হয়েছিল ‘রেহানা মরিয়ম নূর’! প্রায় এক বছর ধরেই খবরটা নিজেদের মধ্যে রেখেছেন ছবিসংশ্লিষ্টরা।

এ বিষয়ে ছবির অন্যতম প্রযোজক রাজীব মহাজনের সঙ্গে কথা বলেন পত্রিকাটি।

তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, আমাদের ছবিটা গত বছরই কানে নির্বাচিত হয়েছিল। করোনার কারণে গত বছর ফিজিক্যালি অংশ নেওয়ার উপায় ছিল না। আয়োজকরা ছবিতে শুধু কানের লেবেল সেঁটে দিতে চেয়েছিল। আমরা সেটা চাইনি। নিজেদের মধ্যে আলাপ করে ওদের জানালাম, ফিজিক্যালি যদি উৎসবটা হয় এবং সেখানে যদি অংশ নিতে পারি সেটা আমাদের এবং দেশের জন্য বিশেষ সম্মানের বিষয় হবে। ওরা তখন আমাদের ৭৪তম আসরে আবারও ছবি জমা দিতে বলে। গত এক বছর আমাদের টিমের কেউই খবরটা চার কান করেনি।’

বেসরকারি মেডিকেল কলেজের শিক্ষক রেহানা মরিয়ম নূরকে ঘিরে এ ছবির গল্প। যেখানে রেহানা একজন মা, মেয়ে, বোন ও শিক্ষক হিসেবে জটিল জীবন যাপন করেন। এর মধ্যে এক সন্ধ্যায় কলেজ থেকে বের হওয়ার সময় রেহানা একটি অপ্রত্যাশিত ঘটনার সাক্ষী হন। এরপর থেকে তিনি এক ছাত্রীর পক্ষে সহকর্মী শিক্ষকের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে ঘটনার প্রতিবাদ করেন।

একই সময়ে তার ছয় বছরের মেয়ের বিরুদ্ধে স্কুল থেকে রূঢ় আচরণের অভিযোগ পাওয়া যায়। এ অবস্থায় অনড় রেহানা তথাকথিত নিয়মের বাইরে থেকেই সেই ছাত্রী ও নিজ সন্তানের ন্যায়বিচারের জন্য লড়তে থাকেন।

ছবির মূল চরিত্রে আছেন আজমেরী হক বাঁধন। ‘রেহানা মরিয়ম নূর’-এ আরও অভিনয় করেছেন আফিয়া জাহিন জাইমা, কাজী সামি হাসান, আফিয়া তাবাসসুম বর্ণ, ইয়াছির আল হক, সাবেরী আলম প্রমুখ।


অামাদের সুপারিশ

মন্তব্য করুন

ই-বুক ডাউনলোড করুন

BMDb ebook 2017

Shares